১৯ মার্চ ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

মোরেলগঞ্জে ইউএনও’র হস্তক্ষেপে বাল্য বিয়ে বন্ধ

মোরেলগঞ্জে ইউএনও’র হস্তক্ষেপে বাল্য বিয়ে বন্ধ

স্টাফ রিপোর্টার, বাগেরহাট ॥ বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে নবম শ্রেণির এক ছাত্রীর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. কামরুজ্জামানের হস্তক্ষেপে বাল্য বিবাহ থেকে রক্ষাপেয়েছে। সোমবার গভীর রাতে তিনি অভিযান চালিয়ে এ বিয়ে বন্ধ করেন। একই সাথে ভ্রাম্যমান আদালত বসিয়ে কনে পক্ষ্যের ৩ জনকে আটক করে ৪২ হাজার টাকা অর্থদন্ড দিয়েছেন। বিয়েবাড়ি থেকে একটি ভূয়া জন্ম সনদও উদ্ধার করেছেন ইউএনও। ইউএনও’র উপস্থিতিতে ইলিয়াস সরদারসহ কনে পক্ষের ৪ শতাধীক অতিথি খাবার ফেলে পালিয়ে যান।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা উত্তর সূতালড়ী গ্রামের ইলিয়াস সরদার তার সদ্য নবম শ্রেণিতে পড়–য়া মাদ্রাসা ছাত্রীকে কালিকাবাড়ি বাড়ি গ্রামের আলী আজগর এর সাথে বিয়ের আয়োজন করেন। খবর পেয়ে ইউএনও পুলিশ নিয়ে সেখানে পৌছান। সেখান থেকে জব্দকৃত জন্ম সনদে মেয়েটির বয়স ১৯ বছর যা প্রকৃত বয়সের চেয়ে ৫ বছর বেশী। বারইখালী ইউনিয়ন পরিষদের সচিবের সহায়তায় জালিয়াতির আশ্রয়ে এমন জন্ম সনদ তৈরী করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধেও আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে বলে ইউএনও জানান।