২০ মার্চ ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ভারতের বিকানের পাকিস্তানিদের ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে শহর ছাড়ার নির্দেশ

ভারতের বিকানের পাকিস্তানিদের ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে শহর ছাড়ার নির্দেশ

অনলাইন ডেস্ক ॥ পুলওয়ামা হামলার জেরে পাকিস্তান বিরোধী ক্ষোভ-বিক্ষোভ তীব্র হচ্ছে। পাকিস্তানি নাগরিকদের উপর হামলা, অত্যাচার বা হেনস্থার আশঙ্কাও উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না। সেই আশঙ্কা থেকেই এ বার রাজস্থানের বিকানেরে পাকিস্তানিদের উপর কড়া নিষেধাজ্ঞা জারি করল জেলা প্রশাসন। ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে পাকিস্তানিদের শহর ছাড়ার নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে। ভারতীয় দণ্ডবিধির ১৪৪ ধারায় সোমবার এই নির্দেশিকা জারি করেছেন জেলাশাসক কুমার পাল গৌতম।

জেলাশাসকের ওই নির্দেশিকায় হোটেল, লজ বা বাড়িতে পাকিস্তানি নাগরিকদের নতুন করে থাকতে দেওয়ার উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। পাকিস্তানি নাগরিকদের কোনও স্পর্শকাতর তথ্য দেওয়া পুরোপুরি নিষিদ্ধ। এমনকি, মোবাইল-টেলিফোনে পাকিস্তানের নাগরিকদের সঙ্গে কথা বলা এবং ব্যবসা-বাণিজ্যের উপরও কড়া নিষেধাজ্ঞা জারি হয়েছে। কোনও পাকিস্তানি নাগরিককে কাজ দেওয়ার উপরও থাকছে পুরোপুরি নিষেধাজ্ঞা। প্রশাসন ওই নির্দেশ প্রত্যাহার না করলে আগামী দু’মাস এই নিষেধাজ্ঞা বলবৎথাকবে।

গত ১৪ ফেব্রুয়ারি পুলওয়ামায় জঙ্গি হামলার পর থেকেই দেশের বিভিন্ন প্রান্তে কাশ্মীরের নাগরিকদের হেনস্থা, তাঁদের উপর অত্যাচারের নানা ঘটনা সামনে এসেছে। কিন্তু এ ভাবে পাকিস্তানের নাগরিকদের থাকার উপর সরাসরি নিষেধাজ্ঞা, দেশে কার্যত এই প্রথম। জেলা প্রশাসনের একটি সূত্রে খবর, পুলওয়ামা হামলার পর অশান্তির আশঙ্কাতেই এই নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে।

জেলাশাসকের ওই নির্দেশে বলা হয়েছে, ‘‘পাকিস্তানি নাগরিকদের ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে বিকানের ছেড়ে চলে যেতে হবে। হোটেল বা লজে নতুন করে কাউকে চেক ইন করতে দেওয়া যাবে না। পাকিস্তানের কোনও নাগিরকের সঙ্গে ভারতীয় সেনা সম্পর্কিত বা অন্য কোনও তথ্য আদানপ্রদান করা পুরোপুরি নিষিদ্ধ।’’ কেউ আইন ভঙ্গ করলে তাঁর বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ১৮৮ ধারায় আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার কথাও স্পষ্ট করে দেওয়া হয়েছে ওই নির্দেশিকায়।

জেলা প্রশাসন জানিয়েছে, পাকিস্তান থেকে বিকানের শহরবাসীকে ফোন করে ব্যাঙ্গ, বিদ্রুপ, উপহাস করা হচ্ছে। সেই কারণেই টেলিফোনে পাক নাগরিকদের সঙ্গে কথা বলা বা ইন্টারনেটের মাধ্যমে যোগাযোগ রাখা এবং ব্যবসা বাণিজ্য বা অন্য কোনও রকম লেনদেনের উপরেও পুরোপুরি নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। বিকানের শহরের কেউ পাকিস্তানি সিম কার্ডও ব্যবহার করতে পারবেন না। তবে ভারতে এসে যাঁরা ফরেনার্স রেজিস্ট্রেশন অফিসার বা বিদেশি নিবন্ধক আধিকারিকের কাছে নাম নথিভুক্ত করেছেন, তাঁদের ক্ষেত্রে এই নির্দেশ প্রযোজ্য হবে না।

ভারত-পাক সীমান্ত শহর রাজস্থানের বিকানের-এ প্রচুর পাকিস্তানি নাগরিক আসেন। ব্যবসা-বাণিজ্য-সহ নানা কারণে শহরে পাকিস্তানি নাগরিকদের ভিড় প্রায় সব সময়ই থাকে। কিন্তু পুলওয়ামায় পাক মদতে পুষ্ট জঙ্গী গোষ্ঠী জইশ-ই-মহম্মদ জঙ্গিদের আত্মঘাতী হামলায় ৪৯ সিআরপিএফ জওয়ানের মৃত্যুর পর থেকে সারা দেশেই পাকিস্তানবিরোধী ক্ষোভ তীব্র হচ্ছে। সেই ক্ষোভের আঁচে পাকিস্তানি নাগরিকদের হেনস্থা বা তাঁদের উপর হামলার আশঙ্কাও উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না। নিষেধাজ্ঞা জারির পিছনে সেটাও অন্যতম কারণ বলে জেলা প্রশাসনের একটি সূত্রে জানা গিয়েছে।

সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা