২০ মার্চ ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

শেবাচিমের ডাস্টবিনে ৩১ ভ্রুণ মরদেহ ॥ স্বাস্থ্যমন্ত্রীর ক্ষোভ

  • দু’জনকে সাসপেন্ড

স্টাফ রিপোর্টার, বরিশাল ॥ শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ডাস্টবিন থেকে ৩১ নবজাতকের মানব ভ্রুণ উদ্ধারের ঘটনায় ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক। এ ঘটনায় তিনি দায়ীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন। স্বাস্থ্যমন্ত্রী সোমবার রাতেই বিষয়টি জানতে পেরে স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডাঃ আবুল কালাম আজাদের কাছে ক্ষোভ প্রকাশ করে দাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ দেন। পরে স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক শেবাচিম হাসপাতালের পরিচালক ডাঃ এসএম বাকির হোসেনকে ফোনে এ বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে বলেন। শেবাচিম হাসপাতালের পালক মঙ্গলবার দুপুরে সাংবাদিকদের বলেন, বিধিমালা অনুযায়ী গাইনি বিভাগের প্রধান ডাঃ খুরশিদ জাহান এবং ওই বিভাগের ওয়ার্ড ইনচার্জ নার্স জোসনা বেগমের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে সকালে ইমেলযোগে অধিফতরে আবেদন পাঠানো হয়েছে।

তদন্ত কমিটি গঠন ॥ ময়লার স্তূপ থেকে ৩১টি অপরিণত শিশুর (ফিটাস) মরদেহ উদ্ধারের ঘটনায় তিন সদস্যর তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। এছাড়া হাসপাতালের গাইনি বিভাগের প্রধান সহযোগী অধ্যাপক ডাঃ খুরশীদ জাহান বেগম ও ওয়ার্ডের নার্স ইনচার্জ জোসনা বেগমকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুরে শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজের অধ্যক্ষ ডাঃ মোঃ সৈয়দ মাকসুমুল হক বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, অপরিণত শিশুর (ফিটাস) মরদেহ যা শিক্ষা উপকরণ হিসেবে ব্যবহৃত হয়ে থাকে।