২০ মার্চ ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ব্রিজটাউনে জয় দিয়ে শুরুর আশা ইংলিশদের

  • ওয়েস্ট ইন্ডিজ-ইংল্যান্ড প্রথম ওয়ানডে আজ

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ টেস্ট সিরিজে পারেননি জো রুট। তার নেতৃত্বে স্বাগতিক ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ২-১ ব্যবধানে সিরিজ খুইয়েছে ইংল্যান্ড ক্রিকেট দল। এবার ৫ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে সেই দুঃখটা ভোলার সুযোগ সফরকারী ইংলিশদের। আজ বার্বাডোজের ব্রিজটাউনে কেনসিংটন ওভাল স্টেডিয়ামে ৫ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের শুরু হবে। বাংলাদেশ সময় রাত ৯টায় প্রথম ওয়ানডে মাঠে গড়াবে। ইয়ন মরগানের নেতৃত্বে এবার জয় দিয়েই সিরিজ শুরুর আশা ইংলিশদের।

টেস্ট সিরিজের প্রথম দুই ম্যাচে ইংলিশদের একেবারে নাজেহাল করে ছেড়েছিল ক্যারিবীয়রা। জ্যাসন হোল্ডারের নেতৃত্বে স্বাগতিক দল যেন হয়ে উঠেছিল দুর্বার। কিন্তু সিরিজের তৃতীয় ও শেষ টেস্টে দারুণ এক জয় পেয়ে ঘুরে দাঁড়িয়েছিল ইংল্যান্ড। ওই ম্যাচে স্লো ওভার রেটের কারণে নিষেধাজ্ঞায় খেলতে পারেননি নিয়মিত অধিনায়ক ও জয়ের নায়ক জ্যাসন হোল্ডার। তিনি এবার অনেকটাই অভিজ্ঞ একটা দলকে নেতৃত্ব দিতে ফিরছেন ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচ থেকেই। তবে ইনজুরির কারণে মারকুটে ওপেনার এভিন লুইসকে পাচ্ছেন না তিনি। তার বদলে টেস্ট সিরিজে নিজের সামর্থ্য প্রমাণ করা আরেক আক্রমণাত্মক ব্যাটসম্যান জন ক্যাম্পবেল প্রথমবারের মতো সুযোগ পেয়েছেন। এন্টিগায় জেমস এ্যান্ডারসনকে ছক্কা হাঁকিয়ে ক্যারিবীয়দের টেস্ট সিরিজ জয় নিশ্চিত করেছিলেন আক্রমণাত্মক ওপেনার ক্যাম্পবেল। আন্তর্জাতিক পর্যায়ে তার এই প্রথম উপস্থিতিটা তাই বেশ ভালভাবে নির্বাচকদের নজর কেড়েছে। তিন ইনিংসে অর্ধশতক হাতছাড়া হয়েছে তার, ৪০ এর বেশি করেই সাজঘরে ফিরেছেন। কিন্তু তিন টেস্টের সিরিজে ক্রেইগ ব্রেথওয়েটের সঙ্গে চারটি ৫০-এর বেশি জুটি গড়েছেন তিনি। এভিন লুইসের সঙ্গে ইনজুরিতে দল থেকে ছিটকে গেছেন রোভম্যান পাওয়েল ও কিমো পল। তারা দু’জন সেন্ট লুসিয়ায় অনুষ্ঠিত তৃতীয় টেস্টে চোট পেয়েছেন। ওই টেস্টেই অশালীন মন্তব্যের জেরে ৪ ম্যাচে খেলতে পারবেন না পেসার শ্যানন গ্যাব্রিয়েল। এ কারণে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ওয়ানডে দলে বেশকিছু পরিবর্তন আনতে হয়েছে। এর বদলে সুযোগ পেয়ে গেছেন অলরাউন্ডার কার্লোস ব্রেথওয়েট। তিনি সর্বশেষ ক্যারিবীয় জার্সিতে ওয়ানডে খেলেছিলেন বিশ্বকাপ বাছাইয়ে। এবার ফিরলেন পাকিস্তান সুপার লীগে (পিএসএল) লাহোর কালান্দার্সের হয়ে খেলা শুরুর পর। পিএসএল থেকে তাই দেশে ফিরে এসেছেন কার্লোস। আর অভিজ্ঞ ওপেনার ক্রিস গেইল নিঃসন্দেহে ক্যারিবীয়দের বাড়তি আত্মবিশ্বাস জোগাবে। তাই টেস্ট সিরিজের পর ওয়ানডেতেও ইংলিশদের হারাতে চায় ক্যারিবীয়রা।

অপরদিকে সর্বশেষ টেস্ট জেতার পর নিজেদের ফিরে পেয়েছে ইংলিশরা। আর একমাত্র প্রস্তুতি ম্যাচে ভাইস চ্যান্সেলর্স একাদশকে ১৭১ রানের বড় ব্যবধানে বিধ্বস্ত করে ওয়ানডে সিরিজে স্বাগতিকদের একটা প্রচ্ছন্ন হুমকি দিয়েই রেখেছে মরগানের দল। ওই ম্যাচে জেসন রয় ও জো রুট দু’জনই বিস্ফোরক সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছেন। ৩৭১ রানের বিশাল সংগ্রহটা তাই ওয়ানডেতে ইংলিশদের শক্তি অনেকটাই বেশি তার প্রমাণ দিচ্ছে। তাছাড়া এবার দলে লেগস্পিনার আদিল রশিদ ফিরেছেন। তিনি বেশ কার্যকরী হবেন এমনটাই আশা ইংল্যান্ডের। প্রস্তুতি ম্যাচে তিনি ২ উইকেটও নিয়েছেন মিতব্যয়ী বোলিং করে। সফরে সর্বশেষ দুটি জয়ে এখন ওয়ানডে সিরিজে টেস্টের প্রতিশোধ তোলার প্রত্যয়েই নামবে ইংল্যান্ড।