১৯ জুন ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

পাকিস্তানেও আজ মাতৃভাষা দিবস পালিত হচ্ছে - মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী

পাকিস্তানেও আজ মাতৃভাষা দিবস পালিত হচ্ছে - মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার, গাজীপুর ॥ মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ. ক. ম. মোজাম্মেল হক সেই বায়ান্ন’র ভাষা আন্দোলনের বীর শহীদদের স্মরণ করে এবং তাঁদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করে বলেছেন, মাতৃভাষার জন্য পৃথিবীর আর কোনো রাষ্ট্র এত আন্দোলন করে নাই, রক্ত দেয় নাই।

সেই জন্য ১৯৯৬ সালে সফল রাষ্ট্র নায়ক দেশরত্ন শেখ হাসিনা ক্ষমতায় এসে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে পালনের জন্য জাতিসংঘে প্রস্তাব উপস্থাপন করেন। তাঁর প্রচেষ্টায় এই ২১শে ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছে। এখন সারা বিশ্বে প্রায় ২০০টি রাষ্ট্রে এই আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন করা হয়।

যে পাকিস্তানীরা সেই দিন আমাদের গুলি করে হত্যা করেছিল, সেই পাকিস্তানেও আজকে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত হচ্ছে। এটাই হলো আমাদের বড় সফলতা, আমাদের আনন্দের বিষয়। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলা মিলয়নাতনে মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদ্যাপন উপলক্ষে আলোচনা সভা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনিএসব কথা বলেন।

উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত ওই অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন কালিয়াকৈর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কাজী হাফিজুল আমীন। এসময় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন- কালিয়াকৈর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক মুরাদ কবীর, উপজেলা প্রানীসম্পদ কর্মকর্তা রফিকুল ইসলাম প্রমুখ।

মন্ত্রী আরো বলেন, যে রক্ত দিয়ে আমরা বাংলা ভাষা কায়েম করলাম এবং পরবর্তীকালে এ আন্দোলনের ধারাবাহিকতায় বঙ্গবন্ধুর নির্দেশে সশস্ত্র যুদ্ধ করে বাংলাদেশকে স্বাধীন করলাম। কিন্তু দুঃখের বিষয় স্বাধীনতার দীর্ঘদিন পেরিয়ে গেলেও এখনো আদালত বাংলা ভাষায় লিখতে পারে না। এটাই আমাদের ব্যর্থতা। এটা সংবিধানের লঙ্ঘন। সংবিধানে সু-স্পষ্ট ঘোষণা করা আছে, সমস্ত কর্মকান্ড বাংলা ভাষায় হবে। শুধু আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে ইংরেজি ভাষায় হবে। পূর্ব পুরুষের রক্ত দিয়ে যে ভাষা এনে দিয়ে গেলেন আমরা তার মর্যাদা রক্ষা করতে ব্যর্থ হয়েছি। আমাদের বাংলা ভাষার সম্মান বজায় রাখতে হবে এবং সর্বক্ষেত্রে বাংলার সুষ্ঠ প্রচলন বাস্তবায়ন করতে হবে।

পরে তিনি চিত্রাংকন প্রতিযোগীতায় বিভিন্ন স্কুল-কলেজের বিজয়ী শিক্ষার্থীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন।