১৯ মার্চ ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

আয়াক্সের ঐতিহাসিক জয়ে ৩ বারের চ্যাম্পিয়ন রিয়ালের বিদায়

আয়াক্সের ঐতিহাসিক জয়ে ৩ বারের চ্যাম্পিয়ন রিয়ালের বিদায়

অনলাইন ডেস্ক ॥ নেদারল্যান্ডসের ক্লাব আয়াক্স আমস্টারডাম। ২০০৬ সালের পর এই বছর তারা প্রথম উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ ষোলোতে স্থান করে নিয়েছিল।

শেষ ষোলোর ড্রতে তারা পেয়েছিল টানা তিনবারের চ্যাম্পিয়ন রিয়াল মাদ্রিদকে। তাদের পেছনে ফেলে কোয়ার্টার ফাইনালে যেতে পারবে আয়াক্স সেটা হয়তো কেউ ভাবেনি। তার উপর শেষ ষোলোর প্রথম লেগে ঘরের মাঠে রিয়ালের কাছে ২-১ ব্যবধানে হেরেছিল আয়াক্স।

কোয়ার্টার ফাইনালে যেতে হলে রিয়ালের মাঠ সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে কমপক্ষে ২-০ ব্যবধানের জয় প্রয়োজন ছিল ডাচ ক্লাবটির। তবে মঙ্গলবার রাতে তারা যা করেছে সেটা স্বপ্নের চেয়েও বেশি। ৪-১ ব্যবধানে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন রিয়াল মাদ্রিদকে হারিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে জায়গা করে নিয়েছে। আর শেষ ষোলো থেকেই বিদায় নিয়েছে বর্তমান ও টানা তিনবারের চ্যাম্পিয়ন রিয়াল মাদ্রিদ।পাশাপাশি চ্যাম্পিয়নস লিগে রিয়ালের যে একচ্ছত্র আধিপত্য ছিল সেটারও অবসান ঘটলো। ২০১০ সালের পর এই প্রথম শেষ ষোলো থেকে বিদায় নিল মাদ্রিদিস্তারা। ২০১০ সালের পর তারা টানা আটবার সেমিফাইনালে উঠেছিল স্প্যানিশ জায়ান্ট রিয়াল।

আয়াক্সের এমন ঐতিহাসিক জয়ের নায়ক ডুসান তাডিচ। তিনি একটি গোল করার পাশাপাশি দুটি গোলে সহায়তাও করেছেন। রিয়ালকে উপহার দিয়েছেন তাদের উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের ইতিহাসে ঘরের মাঠে সবচেয়ে বাজে হার।সার্জিও রামোসবিহীন রিয়াল মাদ্রিদ মঙ্গলবার রাতে ঘরের মাঠে ম্যাচের ৭ মিনিটেই পিছিয়ে পড়ে। এ সময় ডুসান তাডিচের সহায়তায় হাকিম জায়িচ গোল করে এগিয়ে নেন আয়াক্সকে। ১৮ মিনিটের মাথায় আয়াক্স এগিয়ে যায় ২-০ ব্যবধানে। এ সময় ফাঁকা জালে বল জড়ান ডেভিড নেরেস। এই গোলেরও যোগানদাতা ছিলেন ডুসান।

বিরতির পর ৬২ মিনিটে ডুসান নিজেই গোলের দেখা পান। তাকে নেদারল্যান্ডসের ক্লাবটি এগিয়ে যায় ৩-০ ব্যবধানে। ৭০ মিনিটে অবশ্য মার্কো আসেনসিও একটি গোল শোধ দেন। কিন্তু ৭২ মিনিটে আয়াক্স রিয়ালের পরাজয়ের কফিনে শেষ পেরেকটি ঠুকে দেয়। এ সময় ফ্রি কিকে অসাধারণ গোলটি করেন লাসে স্কোনি। শেষ পর্যন্ত ৪-১ ব্যবধানে (দুই লেগ মিলিয়ে ৫-৩) রিয়াল মাদ্রিদকে হারিয়ে ১৩ বছর পর কোয়ার্টার ফাইনালে নাম লেখায় আয়াক্স।