২১ মার্চ ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

গ্যাসের দাম দ্বিগুণ বাড়ানোর প্রস্তাব তিতাসের

গ্যাসের দাম দ্বিগুণ বাড়ানোর প্রস্তাব তিতাসের

অনলাইন রিপোর্টার ॥ শিল্প কারখানা ও গৃহস্থালিতে গ্যাসের মূল্য শতকরা একশ থেকে দুইশ’ শতাংশ বাড়ানোর প্রস্তাব দিয়েছে তিতাস গ্যাস কোম্পানি। একচুলার জন্য চার্জ ৭৫০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ১৩৫০ টাকা এবং দুই চুলার জন্য ৮০০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ১৪৪০ টাকা করার আবেদন করা হয়েছে। সকালে রাজধানীর কারওয়ান বাজারে টিসিবি মিলনায়তনে গ্যাসের মূল্যহার বাড়ানোর আবেদনের ওপর গণশুনানিতে তিতাস কর্তৃপক্ষ এ প্রস্তাব করেন।

তবে এমন প্রস্তাবনাকে অযৌক্তিক আখ্যায়িত করেছেন ভোক্তা অধিকার, ব্যবসায়ি ও রাজনৈতিক সংগঠনের প্রতিনিধিরা। দাম না বাড়িয়ে সেবা বাড়ানোর তাগিদ দিয়েছেন তারা।

বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন-বিইআরসি’র আয়োজনে গ্যাসের ট্রান্সমিশন চার্জ, ডিস্ট্রিবিউশন চার্জ এবং ভোক্তা পর্যায়ে গ্যাসের মূল্যহার পুনঃনির্ধারণে এই গণশুনানির আয়োজন। মঙ্গলবার কারওয়ান বাজারের টিসিবি মিলনায়তনে গণশুনানির দ্বিতীয় দিনে অংশ নেন তিতাস, পেট্রোবাংলা, কনজ্যুমারস এসোসিয়েশন-ক্যাব ও ব্যবসায়ি সংগঠনের প্রতিনিধিরা।

এদিন তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন এ্যাণ্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড ভোক্তা পর্যায়ে গ্যাসের দাম বাড়ানোর প্রস্তাব তুলে ধরেন। আর্থিক তারল্য বাড়াতে, গ্রাহক সেবা উন্নয়নে ও ভর্তুকি কমাতে দাম বাড়ানোর আবেদন করে সংস্থাটি।

তবে গৃহস্থালিতে গ্যাসের দাম বাড়ানোর প্রস্তাবের তীব্র সমালোচনা করে ক্যাবের পক্ষ থেকে বলা হয়, সেবা প্রদানে নানা অক্ষমতার পরও দাম বাড়ানোর প্রস্তাব অযৌক্তিক।

অনুষ্ঠানে ব্যবসায়ী নেতারা বলেন, ব্যাংক ঋণের সুদের হার, শিল্পায়ন ব্যয় ও শ্রমিকদের মজুরী বাড়ানো নিয়ে এমনিতেই চাপ রয়েছে। এমন সময় গ্যাসের দাম বাড়ালে ব্যবসা গুটিয়ে নিতে হবে।

ব্যবসায়ি নেতারা বলেন, গ্যাসের দাম বাড়ানো হলে বিনিয়োগ বাধাগ্রস্ত হবে। তাই এমন প্রস্তাবের বিরোধীতা করেন তারা। ১৪ই মার্চ এই গণশুনানি চলবে।