১৬ জুন ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

অর্থনৈতিক কূটনীতি জোরদারে দূত সম্মেলন হচ্ছে

অর্থনৈতিক কূটনীতি জোরদারে দূত সম্মেলন হচ্ছে

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ অর্থনৈতিক কুটনীতি জোরদার করতে নানা উদ্যোগ নিচ্ছে সরকার। এ ছাড়া বিভিন্ন দেশে অবস্থানরত বাংলাদেশিদের পরিসেবাও বাড়াতে চায় সরকার। এমন সব প্রেক্ষাপটে বিভিন্ন দেশে কর্মরত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূতদের ডেকে পাঠানো হয়েছে।

আগামী এপ্রিলের শেষ দিকে ঢাকায় এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হতে পারে। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে নতুম মন্ত্রী আসার পর এই প্রথম বিভিন্ন মিশনে অবস্থিত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূতদের ডেকে পাঠাচ্ছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

বিভিন্ন দেশে বাংলাদেশের ৫৮টি মিশনের রাষ্ট্রদূত, হাইকমিশনার, স্থায়ী প্রতিনিধিরা এ সম্মেলনে অংশ নেবেন। এর আগে ২০১৭ সালের নভেম্বরে সর্ব প্রথম দূত সম্মেলন বা এনভয় কনফারেন্স আয়োজন করা হয়। এ বছর দ্বিতীয় এ দূত সম্মেলন উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এ বিষয়ে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা বলেন, সম্মেলনের তারিখ এখনো চূড়ান্ত হয়নি। এ নিয়ে কাজ চলছে। তারা আরও বলেন, বন্ধুরাষ্ট্রগুলোর কাছে বর্তমান সরকারের ভাবমূর্তি আরও উজ্জ্বল করা এ সম্মেলনের উদ্দেশ্য। পাশাপাশি অর্থনৈতিক কূটনীতি কীভাবে জোরদার করা যায় সে বিষয়ে আলোচনা করা হবে।

দেশভিত্তক কোন কোন বিষয়ের ওপর সরকার জোর দিতে চায়, নীতি নির্ধারণী পর্যায়ের এ জরুরি বার্তাগুলো এ সম্মেলনের মাধ্যমে বাংলাদেশের দূতদের কাছে পৌঁছানো হবে বলেও জানান এক কর্মকর্তা।

এ ছাড়া বাংলাদেশের মিশনগুলোর সমস্যা, সেগুলো সমাধানের উপায়, প্রবাসীদের সেবা নিশ্চিত করা এসব বিষয়গুলো দূতদের সঙ্গে সরাসরি আলোচনা করতে চায় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

জানা গেছে, নতুন মন্ত্রী দায়িত্ব নেয়ার পর অর্থনৈতিক কূটনীতি বা ইকনোমি ডিপ্লোমেসিকে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দিয়েছেন। ফলে আলোচনায় এ ইসু্যর সঙ্গে রোহিঙ্গা ইস্যু এবং কনস্যুলার সেবা অগ্রাধিকার পাবে দূত সম্মেলনে।

এ প্রসঙ্গে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা বলেন, ডিজিটাল পদ্ধতিতে নাগরিকদের সরাসরি সেবা দেয়ার উদ্যোগ নিয়েছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। এ সেবার প্রক্রিয়া সহজ, নিখুঁত ও শতভাগ নিশ্চিত করতে ডিজিটাল অ্যাপ বানানো হচ্ছে।

তিনি বলেন, আগ্রহীরা ওই অ্যাপের মাধ্যমেই যোগাযোগ করে সেবা নিতে পারবেন। অ্যাপটি চালু হলে নাগরিক সেবার ক্ষেত্রে বিশ্বে বাংলাদেশ নতুন উদাহরণ সৃষ্টি করবে।

আগামী দূত সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আনুষ্ঠানিকভাবে এ অ্যাপটি উদ্বোধন করবেন বলেও জানান তিনি।

ইউরোপের একটি দেশে কর্মরত বাংলাদেশের একজন রাষ্ট্রদূ বলেন, নতুন মন্ত্রী আসার পরে প্রথমবার আমাদের ডেকে পাঠানো হচ্ছে। আশা করি, নতুন নির্দেশনা পাব। যদিও কিছুদিন আগে মন্ত্রী মহোদয় নতুন নির্দশনা দিয়ে বার্তা পাঠিয়েছেন। তবুও এ সম্মেলনে সার্বিক বিষয় উঠে আসবে।

নির্বাচিত সংবাদ