১৮ জুন ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

পটিয়ায় হাইওয়ে পুলিশের ব্যতিক্রমী অভিযান

   পটিয়ায় হাইওয়ে পুলিশের ব্যতিক্রমী অভিযান

নিজস্ব সংবাদদাতা, পটিয়া ॥ মহা সড়কে তিন চাকার গাড়ি নিষিদ্ধ হলেও এখানে মানা হচ্ছে না। ফলে প্রায় প্রতিদিন কোন না কোনভাবে দুর্ঘটনা ঘটছে। তবে দুর্ঘটনা কমাতে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার আরকান মহা সড়কের পটিয়ায় ব্যতিক্রমী অভিযান শুরু হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার সকালে পটিয়া-ক্রসিং হাইওয়ে পুলিশ ৫টি সিএনজি আটক করে যাত্রী নামিয়ে দিয়ে তাৎক্ষনিক পার্শ্ববর্তী খালে ফেলে দেন। হাইওয়ে পুলিশের অভিযোগ মহা সড়কে তিন চাকার গাড়ি চলাচল সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ হলেও পটিয়ায় তা মানছে না। যার দুর্ঘটনা ঘটছে। তাছাড়া বিভিন্ন সময় নিষিদ্ধ এইসব গাড়ি আটক করে মামলা দিলেও চালক ও মালিকরা জরিমানা দিয়ে গাড়ি পুনরায় রাস্তায় নামাচ্ছে। এদিকে, সিএনজি গাড়ি আটক করে মামলা না দিয়ে খালে ফেলে গাড়ির ক্ষতি সাধন করায় মালিক ও চালকরা ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

হাইওয়ে পুলিশ ও বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, মহা সড়কে তিন চাকার গাড়ি চলাচল যোগাযোগ মন্ত্রনালয় নিষিদ্ধ করলেও চট্টগ্রাম-কক্সবাজার আরকান মহা সড়কের পটিয়া, চন্দনাইশ, সাতকানিয়া, লোহাগাড়া উপজেলায় তা মানছে না। তিন চাকার শত শত গাড়ি প্রতিদিন মহা সড়ক হয়ে চলাচল করছে। পটিয়া-ক্রসিং হাইওয়ে পুলিশের ইনচার্জ মিজানুর রহমান মহা সড়কে সিএনজি চলাচল বন্ধে এবার ব্যতিক্রমী অভিযান শুরু করেছে। দুর্ঘটনা কমাতে মিজানুর রহমান নিষিদ্ধ গাড়ির বিরুদ্ধে মামলার পাশাপাশি আটক করে তা তাৎক্ষনিক খালে ও ডুবায় ফেলে দিচ্ছে। গত ৭ দিনে প্রায় ত্রিশটির অধিক গাড়ি খালে ও ডুবায় ফেলে দেওয়া হয়েছে এবং অর্ধ শতাধিক গাড়ির বিরুদ্ধে মামলা দেওয়া হয়েছে।

পটিয়া-ক্রসিং হাইওয়ে পুলিশের ইনচার্জ মিজানুর রহমান বলেন, মহা সড়কে নিষিদ্ধ সিএনজি চলাচল কোনভাবে বন্ধ করা যাচ্ছে না। যার কারণে গাড়ির বিরুদ্ধে মামলা দেওয়া হচ্ছে। সিএনজির বিরুদ্ধে মামলা দেওয়া ছাড়াও অতিরিক্ত লোডের কারণে বেশ কিছু গাড়ির বিরুদ্ধে মামলা দেওয়া হয়েছে।