১৯ মার্চ ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

গ্যাসের দাম বাড়ানোর উদ্যোগের প্রতিবাদ

স্টাফ রিপোর্টার ॥ নতুন করে গ্যাসের দাম বাড়ানোর উদ্যোগের প্রতিবাদ জানিয়েছে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল। এলএনজি ব্যবসায়ীদের মুনাফার স্বার্থে গ্যাসের দাম বাড়ানোর পাঁয়তারা বন্ধ করা না হলে আন্দোলনের কর্মসূচী ঘোষণার হুঁশিয়ারি দেয়া হয়েছে।

গ্যাসের দাম বাড়ানোর প্রস্তাবের প্রতিবাদ জানিয়ে গণফোরাম বলেছে, দাম বাড়ানো হলে তারা কর্মসূচী দেবে। গণমাধ্যমে পাঠানো গণফোরামের তথ্য ও গণমাধ্যম সম্পাদক রফিকুল ইসলাম পথিকের স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানানো হয়।

গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির প্রস্তাব প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছেন গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মোহসীন মন্টু। তারা বলেন, গণশুনানির নামে প্রতারণা ও এলএনজি ব্যবসায়ীদের মুনাফার স্বার্থে গ্যাসের দাম বাড়ানোর পাঁয়তারা বন্ধ করা না হলে আন্দোলনের কর্মসূচী দেয়া হবে। গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধিকে অযৌক্তিক আখ্যা দিয়ে কামাল হোসেন ও মন্টু বলেন, সিদ্ধান্ত সাধারণ মানুষের জীবনযাত্রার ব্যয় বাড়াবে, উৎপাদন ও উন্নয়ন বাধাগ্রস্ত হবে। এ ছাড়া শিল্পকারখানা ও পরিবহনব্যবস্থা হুমকির মুখে পড়বে বলে জানান তারা।

এদিকে ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন এমপি ও সাধারণ সম্পাদক ফজলে হোসেন বাদশা এক বিবৃতিতে নতুন করে গ্যাসের দাম বাড়ানোর উদ্যোগ এর তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছেন। বিবৃতিতে তারা বলেন, গত কয়েক বছরে দফায় দফায় গ্যাসের মূল্য বাড়ানো হয়েছে। এবার নতুন করে দাম বাড়ানো হলে সাধারণ মানুষের ওপর চাপ বাড়বে। শুধু তাই নয়, এই মূল্যবৃদ্ধির কারণে দেশীয় শিল্প হুমকির মুখে পড়বে। দেশীয় শিল্প উদ্যোক্তারা নিরুতসাহী হবে।

নেতৃবৃন্দ বলেন, গ্যাসের দাম বাড়লে পরিবহন বিদ্যুত ও পণ্য উৎপাদনসহ সকল খাতে ব্যয় বৃদ্ধি পাবে। যার প্রভাব জনগণের ঘাড়ে চেপে বসবে। এমনিতে জীবনযাত্রার ব্যয় বৃদ্ধিতে জনজীবনে সঙ্কট বাড়ছে। নতুন এই মূল্য বৃদ্ধি জনগণের ঘাড়ে মূল্যস্ফীতির বোঝা হিসেবে চাপবে। বিবৃতিতে নেতৃদ্বয় বলেন, ‘বিইআরসি’-এর কাছে গ্যাস কোম্পানিগুলোর দাম বাড়ানোর প্রস্তাব করার কোন ভিত্তি নেই।