২৩ জুলাই ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

মেক্সিকো সীমান্তে জরুরি অবস্থা প্রত্যাহারের প্রস্তাবে ভিটো ট্রাম্পের

মেক্সিকো সীমান্তে জরুরি অবস্থা প্রত্যাহারের প্রস্তাবে ভিটো ট্রাম্পের

অনলাইন ডেস্ক ॥ মেক্সিকো সীমান্তে জারি করা জরুরি অবস্থা প্রত্যাহারে পার্লামেন্টের দুই কক্ষে পাস হওয়া একটি প্রস্তাবে ভিটো দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

দায়িত্ব নেয়ার দুই বছরে এই প্রথম তিনি ভিটো ক্ষমতা প্রয়োগ করলেন, জানিয়েছে বিবিসি।

অভিবাসনপ্রত্যাশীদের যুক্তরাষ্ট্রে অবৈধভাবে প্রবেশ ঠেকাতে মেক্সিকো সীমান্তে দেয়াল নির্মাণের লক্ষ্যে ট্রাম্প ওই জরুরি অবস্থা জারি করেছিলেন।

গত মাসে ডেমোক্রেট নিয়ন্ত্রিত প্রতিনিধি পরিষদের পর বৃহস্পতিবার রিপাবলিকান সংখ্যাগরিষ্ঠ সিনেটও এ জরুরি অবস্থা প্রত্যাখ্যান করে।

জরুরি অবস্থা তুলে নেয়ার প্রস্তাবে ১২ রিপাবলিকান সিনেটরের ডেমোক্রেটদের পক্ষ নেওয়ায় বিস্মিত হয়েছে মার্কিন গণমাধ্যমও।

ট্রাম্প ভিটো দেয়ায় কংগ্রেসের উভয়কক্ষেই এখন জরুরি অবস্থা তুলতে অন্তত দুই-তৃতীয়াংশের সমর্থন লাগবে।

“প্রেসিডেন্ট হিসেবে দেশের সুরক্ষা নিশ্চিত করাই আমার সর্বোচ্চ দায়িত্ব,” শুক্রবার ভিটো ক্ষমতা প্রয়োগ করে বলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট।

এসময় তার সঙ্গে ছিলেন ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী কার্সজেন নিয়েলসন, অ্যাটর্নি জেনারেল উইলিয়াম বার, অবৈধ অভিবাসীদের হাতে নিহত এক শিশুর বাবা-মা ও আইন প্রয়োগকারী বিভিন্ন সংস্থার শীর্ষ কর্মকর্তারা।

“গতকাল (বৃহস্পতিবার) কংগ্রেস একটি বিপজ্জনক প্রস্তাব পাস করেছে, তাতে স্বাক্ষর দিয়ে যদি আমি আইনে পরিণত করি, তবে তা বিপুল সংখ্যক মার্কিনিকে বিপদে ফেলবে। কংগ্রেসের স্বাধীনতা আছে এ ধরনের প্রস্তাব পাসের, আমার দায়িত্ব হচ্ছে তাতে ভিটো দেয়া। ভিটো দিয়ে আমি গর্বিত,” বলেছেন ট্রাম্প।

বিবিসি বলছে, প্রেসিডেন্ট ভিটো দেয়ায় জরুরি অবস্থা প্রত্যাহারের ওই প্রস্তাবটি এখন কংগ্রেসের উভয় কক্ষে ফেরত যাবে।

ডেমোক্রেট নিয়ন্ত্রিত প্রতিনিধি পরিষদে এ ভিটোর বিরুদ্ধে দুই-তৃতীয়াংশের সমর্থন মিললেও সিনেটে তা করতে ৬৭টি ভোট লাগবে। এখনকার পরিস্থিতিতে যা ‘অসম্ভব’ বলেই অনুমান পর্যবেক্ষকদের।

ডেমোক্রেট নিয়ন্ত্রিত প্রতিনিধি পরিষদের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসি সংবিধানের সুরক্ষায় রিপাবলিকান সাংসদদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন।

“রিপাবলিকানদের এখন তাদের দলের ভণ্ডামি এবং সংবিধানকে রক্ষা ও সমর্থনের পরিত্র শপথ রক্ষার একটিকে বেছে নিতে হবে,” বলেছেন তিনি।

নির্বাচিত সংবাদ