২৪ এপ্রিল ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

আগুয়েরোর শেষ মুহূর্তের গোলে সেমিতে ম্যানচেস্টার সিটি

আগুয়েরোর শেষ মুহূর্তের গোলে সেমিতে ম্যানচেস্টার সিটি

অনলাইন ডেস্ক ॥ সোয়ানসি সিটির বিপক্ষে প্রথমার্ধেই দুই গোল খেয়ে হারের শঙ্কায় পড়ে গিয়েছিল ম্যানচেস্টার সিটি। তবে শেষ দিকে দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়িয়ে রোমাঞ্চকর এক জয়ে এফএ কাপের সেমি-ফাইনালে উঠেছে পেপ গুয়ার্দিওলার শিষ্যরা।

প্রতিপক্ষের মাঠে শনিবার স্থানীয় সময় বিকালে কোয়ার্টার-ফাইনালে ৩-২ গোলে জিতে সিটি।

ম্যাচের শুরু থেকে বল দখলে এগিয়ে থাকা সিটি আক্রমণেও এগিয়ে ছিল। কিন্তু বিরতির আগে সাফল্যের দেখা পায়নি তারা। উল্টো ১০ মিনিটের মধ্যে দুই গোল খেয়ে বসে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের শীর্ষে থাকা দলটি।

২০তম মিনিটে ইংলিশ মিডফিল্ডার ম্যাট গ্রিমসের স্পট কিকে এগিয়ে যায় দ্বিতীয় সারির ক্লাব সোয়ানসি। আর ২৯তম মিনিটে দুর্দান্ত এক গোলে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন বেসাত সেলিনা। প্রতি-আক্রমণে সতীর্থের পাস ডি-বক্সে ফাঁকায় পেয়ে প্রথম ছোঁয়ায় উঁচু শটে বল ঠিকানায় পাঠান কসোভোর এই মিডফিল্ডার।

দ্বিতীয়ার্ধে গোলের জন্য মরিয়া হয়ে ওঠে সিটি। কিন্তু উজ্জীবিত সোয়ানসির বিপক্ষে তেমন সুবিধা করতে পারছিল না গুয়ার্দিওলার শিষ্যরা। আক্রমণের ধার বাড়াতে রাহিম স্টার্লিং ও শেষ ১২ ম্যাচে ১৩ গোল করা সের্হিও আগুয়েরোকে নামান কোচ।

৬৯তম মিনিটে অবশেষে বের্নার্দো সিলভার গোলে লড়াইয়ে ফেরে সিটি। স্বাগতিকরা নিজেদের ডি-বক্সে বল ক্লিয়ার করতে ব্যর্থ হলে আগুয়েরোর পাস ফাঁকায় পেয়ে জোরালো শটে দূরের পোস্ট দিয়ে লক্ষ্যভেদ করেন পর্তুগিজ মিডফিল্ডার।

৭৮তম মিনিটে সৌভাগ্যসূচক গোলে সমতায় ফেরে সিটি। স্টার্লিং ডি-বক্সে ফাউলের শিকার হলে পেনাল্টি পায় তারা। আগুয়েরোর স্পট কিকে বল পোস্টে বাধা পাওয়ার পর ঝাঁপিয়ে পড়া গোলরক্ষকের পায়ের পেছনের দিকে লেগে জালে জড়ায়।

অবশ্য রেফারির পেনাল্টির সিদ্ধান্ত নিয়ে প্রশ্ন উঠতে পারে। খুব সহজেই পড়ে গিয়েছিলেন ইংলিশ মিডফিল্ডার স্টার্লিং।

একের পর এক আক্রমণে প্রতিপক্ষের রক্ষণে প্রচণ্ড চাপ বাড়ানো সিটি ৮৩তম মিনিটে কয়েক সেকেন্ডের ব্যবধানে সোয়ানসি গোলরক্ষকের দৃঢ়তায় দুবার গোলবঞ্চিত হয়। গাব্রিয়েল জেসুসের হেড ঝাঁপিয়ে ঠেকানোর পর ফিরতি বলে আগুয়েরোর শট পড়ে থাকা অবস্থা থেকেই দারুণ ক্ষিপ্রতায় রুখে দেন সুইডিশ গোলরক্ষক ক্রিস্টোফার।

নির্ধারিত সময় শেষের দুই মিনিট আগে পার্থক্য গড়ে দেন আগুয়েরো। বের্নার্দো সিলভার ক্রসে ডাইভিং হেডে জয়সূচক গোলটি করেন আর্জেন্টাইন তারকা। প্রশ্ন উঠবে এই গোল নিয়েও। টিভি রিপ্লেতে দেখা যায়, পরিষ্কার অফসাইডে ছিলেন আগুয়েরো।

দিনের প্রথম ম্যাচে ক্রিস্টাল প্যালেসকে ২-১ গোলে হারিয়ে শেষ চারে জায়গা করে নিয়েছে ওয়াটফোর্ড।