২২ এপ্রিল ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

নরসিংদীতে মা ও মেয়েকে গণধর্ষণ মামলার মূল আসামী গ্রেফতার

নরসিংদীতে মা ও মেয়েকে গণধর্ষণ মামলার মূল আসামী গ্রেফতার

স্টাফ রিপোর্টার, নারায়ণগঞ্জ ॥ নরসিংদীর শিবপুরের চাঞ্চল্যকর বহুল আলোচিত মা ও মেয়েকে গণধর্ষণ মামলার মূল আসামী মোঃ মোখলেছ (৩৬)কে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব-১১ সদস্যরা। সোমবার ভোর ৫ টায় একই জেলার মাধবদী পৌরসভা এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

সোমবার বিকেলে নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জের আদমজীর র‍্যাব-১১ প্রধান কার‍্যালয়ে র‍্যাব-১১ এর অধিনায়ক (সিও) লেঃ কর্ণেল কাজী শামশের উদ্দিন এক সাংবাদিক সম্মেলনে গ্রেফতারের বিষয়টি গণমাধ্যমে অবহিত করেন। গ্রেফতারকৃত আসামী মোঃ মোখলেছ একই জেলার শিবপুরের সৃষ্টিগড় এলাকার মৃত চান মিয়ার ছেলে। গ্রেফতারকৃত মোখলেছের বিরুদ্ধে শিবপুর থানায় ডাকাতি, অস্ত্র ও আইনশৃঙ্খলা বিঘœকারী দ্রুত বিচার আইনসহ নানা অপরাধে ৬টি মামলা রয়েছে।

সাংবাদিক সম্মেলনে র‍্যাব-১১ এর অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল কাজী শামশের উদ্দিন বলেন, গ্রেফতারকৃত আসামীকে জিজ্ঞাসাবাদে ও প্রাথমিক অনুসন্ধানে জানা যায়, গত ১৫ মার্চ মা ও মেয়ে এক সঙ্গে ঢাকা থেকে হবিগঞ্জগামী একটি যাত্রীবাহী বাসযোগে বাড়ি ফেরার সময় সন্ধ্যায় বাসটি ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের শিবপুরের সৃষ্টিগড় বাসষ্ট্যান্ড এলাকায় বিকল হয়ে যায়।

এ সময় ঘটনার মূলহোতা মোখলেছ (৩৬) ও তার সহযোগী দেলোয়ার হোসেন(৩০), শফিক (২৫), বাদল (৪২), বাবু (২৫), মোঃ আলমগীর (৪০) মা ও মেয়েকে অন্য একটি বাসে উঠিয়ে দেয়ার কথা বলে ফুসলিয়ে সৃষ্টিগড় এলাকার প্রাইম জুটমিলের মধ্যে পরিত্যক্ত কক্ষে নিয়ে সহযোগীরাসহ পালাক্রমে গণধর্ষণ করে। নির‍্যাতনের শিকার মা ও মেয়ের চিৎকার শুনে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে আসলে ঘটনাস্থল থেকে মোখলেছ ও তার সহযোগীরা পালিয়ে যায়।

গণধর্ষণের ঘটনায় গত ১৬ মার্চ শিবপুর থানায় ধর্ষণ মামলা দায়ের করা হয় (মামলা নং-১৭। পরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে দেলোয়ার হোসেন ও শফিককে গ্রেফতার করে। এ ঘটনার প্রেক্ষিতে র‍্যাব-১১ এর একটি বিশেষ দল উক্ত ঘটনার মূল হোতা মোখলেছ ও পলাতক অন্যান্য আসামীদের গ্রেফতার করার লক্ষ্যে বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালায়।

এ প্রেক্ষিতে সোমবার ভোরে নরসিংদী জেলার মাধবদী পৌর এলাকায় অভিযান চালিয়ে মোখলেছকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত আসামীকে নরসিংদীর শিবপুর থানায় আইনানুগ কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলে তিনি জানান।