২৫ এপ্রিল ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

উত্তরায় বইমেলা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান

স্টাফ রিপোর্টার ॥ হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষে ঐতিহ্যবাহী সাংস্কৃতিক চর্চাকেন্দ্র গীতাঞ্জলি ললিতকলা একাডেমির আয়োজনে উত্তরায় প্রথমবারের মতো শুরু হলো দশ দিনব্যাপী বইমেলা ও সাংস্কৃতিক উৎসব।

মেলা উদ্বোধন করেন ঢাকা-১৮ আসনের সংসদ সদস্য এ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন। এ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক উপদেষ্টা এইচ টি ইমাম। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সাবেক সচিব আকতারী মমতাজ। আলোচনা সভার সভাপতিত্ব করেন জাতীয় অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম। স্বাগত বক্তব্য রাখেন গীতাঞ্জলি ললিতকলা একাডেমির প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক মাহবুব আমিন মিঠু। স্বাগত বক্তব্যে তিনি বলেন, আগামী বছর বঙ্গবন্ধুর জন্ম শতবার্ষিকীতে উত্তরা জনপদে গীতাঞ্জলি ৭ মার্চ থেকে ২৬ মার্চ পর্যন্ত বইমেলার আয়োজন করবে। ১৭ মার্চ সকাল ১০টায় গীতাঞ্জলিসহ কিছু স্কুলের শিক্ষার্থীরা চিত্রাঙ্কন উৎসবে অংশগ্রহণ করে। সন্ধ্যায় তাদের সনদ ও পুরস্কার প্রদান করা হয়। গীতাঞ্জলির মাননীয় উপদেষ্টা জাতীয় অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম আগত অতিথিদের নিয়ে বঙ্গবন্ধুর ‘জীবন ও কর্মে’ পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন এবং দশদিনের আয়োজনে সকলকে আমন্ত্রণ জানিয়ে আলোচনা সভা সমাপ্ত করেন। আলোচনা পর্বের আগে ও পরে গীতাঞ্জলিসহ কিছু সাংস্কৃতিক সংগঠনের শিশু-কিশোর শিল্পীরা সাংস্কৃতিক পরিবেশন তুলে ধরেন।

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ উত্তরা বিভাগের সহযোগিতায় এই মেলায় অংশ নেয়া প্রকাশনা প্রতিষ্ঠানগুলো হলো বাংলা একাডেমি, আগামী প্রকাশনী, অন্যপ্রকাশ, পাঞ্জেরী পাবলিকেশন্স লিমিটেড, অনিন্দ্য প্রকাশ, শব্দশৈলী, আহমদ পাবলিশিং হাউজ, নালন্দা, আদর্শ, নওরোজ কিতাবিস্তান, দি ইউনিভার্সেল একাডেমি, জিনিয়াস পাবলিকেশন্স, শোভা প্রকাশ, কথামেলা, রূপ প্রকাশন, কলি প্রকাশন, কথা প্রকাশনী, তিউরি প্রকাশনী। সুস্থ সাংস্কৃতিক চর্চা ও বিকাশের লক্ষ্যে গীতাঞ্জলি গত পনেরো বছর ধরে উত্তরা জনপদে কাজ করে চলছে। বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে উত্তরা জনপদে এই মেলাটি সর্বপ্রথম একটি আয়োজন।