২১ আগস্ট ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

পুলওয়ামা হামলায় তালেবান যোগ

পুলওয়ামা হামলায় তালেবান যোগ

অনলাইন ডেস্ক ॥ পুলওয়ামা হামলায় এ বার উঠে এল তালেবান যোগ। কাশ্মীরে হামলা চালানোর আগে মাসুদ আজহারের সঙ্গে তাদের শাখা সংগঠন হাক্কানি নেটওয়ার্কের বৈঠক হয়েছিল। সেখানে ভারতে আত্মঘাতী হামলা চালানো নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে কথা হয়েছিল বলে দাবি ভারতীয় গোয়েন্দা সংস্থাগুলির।

গত ১৪ ফেব্রুয়ারি দক্ষিণ কাশ্মীরের পুলওয়ামায় হামলা চালায় জইশ-ই-মহম্মদ। তার পর এক মাস কেটে গিয়েছে। তবে হামলার তদন্ত নিয়ে আজ মঙ্গলবার ভারতীয় গোয়েন্দা সংস্থা সূত্রে নয়া তথ্য উঠে এসেছে। জানা গিয়েছে, পুলওয়ামায় হামলার একমাস আগে পাকিস্তানের পঞ্জাব প্রদেশের ভাওয়ালপুরে তালেবানের শাখা সংগঠন হাক্কানি নেটওয়ার্কের শীর্ষ নেতৃত্বের সঙ্গে বৈঠকে বসে জইশ নেতা মৌলানা মাসুদ আজহার। সেখানে ভারতে আত্মঘাতী হামলা চালানো নিয়ে কথা হয় দু’পক্ষের মধ্যে।

তালেবান ও জইশের বৈঠকে পাকিস্তানি গুপ্তচর সংস্থা আইএসআই মধ্যস্থতা করেছিল বলেও গোয়েন্দা সূত্রে খবর। তাদের দাবি, পাকিস্তানের বালাকোটের জঙ্গী শিবিরেই প্রশিক্ষণ চলছিল হাক্কানি ও জইশ জঙ্গীদের। পুলওয়ামা হামলার পর বোমাবর্ষণ করে সেই শিবিরগুলি ধ্বংস করে দেয় ভারতীয় বিমানবাহিনী।

পুলওয়ামা হামলায় এতদিন শুধুমাত্র জইশ-ই-মহম্মদের নামই উঠে আসছিল। হামলার পর ভিডিয়ো প্রকাশ করে দায়ও স্বীকার করেছিল তারা। যদিও সেইসময়ই হামলাকারী আদিল আহমেদ দারের মুখে তালেবানের কথা শোনা গিয়েছিল। আফগানিস্তানে মার্কিন বাহিনীর বিরুদ্ধে তালিবানের লড়াই দেখেই জিহাদে অনুপ্রাণিত হয়েছে বলে বলতে শোনা যায় তাকে। তার পরই তদন্তে নেমে তালিবান যোগ ধরা পড়ল।

তবে এ ব্যাপারে পাকিস্তানের তরফে কতটা সহযোগিতা মিলবে তা নিয়ে ধন্দ রয়েছে। কারণ জইশের বিরুদ্ধে সমস্ত প্রমাণ হাতে পাওয়া সত্ত্বেও এখনও পর্যন্ত কোনও পদক্ষেপ করেনি তারা। বরং পুলওয়ামা হামলায় জইশ যোগের কথা কার্যত উড়িয়েই দিয়েছে। অন্য দিকে,মার্কিন বাহিনীর দাপটে আফগানিস্তান থেকে পিছু হটতে বাধ্য হলে, হাক্কানি নেটওয়ার্ককেও পাকিস্তান নিজের দেশে আশ্রয় দেয় বলে অভিযোগ মার্কিন গোয়েন্দাদের। সে দেশের উত্তর ওয়াজিরিস্তান থেকে হাক্কানি নেটওয়ার্ক নাশকতা চালায় বলে দাবি তাঁদের। কিন্তু বরাবরের মতো সেই অভিযোগও উড়িয়ে দিয়েছে পাকিস্তান।

সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা