২০ এপ্রিল ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

শেরপুরে দাফনের দেড়মাস পর কবর থেকে যুবকের লাশ উত্তোলন

শেরপুরে দাফনের দেড়মাস পর কবর থেকে যুবকের লাশ উত্তোলন

নিজস্ব সংবাদদাতা, শেরপুর ॥ শেরপুরের নকলায় দাফনের একমাস ২০ দিন পর আদালতের নির্দেশে কবর থেকে সাইদুল হক (৩৫) নামে এক যুবকের লাশ উত্তোলন করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। বুধবার দুপুরে উপজেলার নকলা সদর ইউনিয়নের ধামনা গ্রামে নিহতের পারিবারিক কবরস্থান থেকে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জাহিদুর রহমানের উপস্থিতিতে পুলিশ ওই লাশ উত্তোলন করে। এদিকে বিকেলে জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে ওই লাশের ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হয়েছে।

জানা যায়, গত বছরের ২১ ডিসেম্বর বিকেলে নকলা সদর ইউনিয়নের ধামনা গ্রামের যুবক সাইদুল হক ও তার ভাতিজা মজিবর রহমানের সাথে মাইকে বঙ্গবন্ধুর ভাষণ বাজানোকে কেন্দ্র করে স্থানীয় শফিকুল ইসলাম গংদের তর্কাতর্কি হয়। ওই ঘটনার জের ধরে পরদিন সাইদুল ধামনা বাজারের যাওয়ার উদ্দেশে বাড়ি থেকে বের হলে তার উপর অতর্কিত হামলা চালানো হয়।

পরে সে নকলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হয়ে চিকিৎসায় কিছুটা সুস্থ্য হয়ে বাড়ি ফিরলেও ৩১ জানুয়ারি রাতে মারা যায়। পরদিন শুক্রবার সকালে ময়নাতদন্ত ছাড়াই পারিবারিক কবরস্থানে সাইদুলের লাশ দাফন করা হয়।

এদিকে সাইদুল হকের স্ত্রী শিল্পী খাতুন বাদী হয়ে স্বামীকে হত্যার অভিযোগে গত ৬ ফেব্রুয়ারি শফিকুল ইসলামসহ ১১ জনকে আসামী করে আদালতে একটি নালিশী মামলা দায়ের করলে আদালতের নির্দেশে নকলা থানায় তা নিয়মিত মামলা হিসেবে রেকর্ড হয়।

ওই মামলায় তদন্ত কর্মকর্তা এসআই শরিফ হোসেনের আবেদনের প্রেক্ষিতে সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট হুমায়ুন কবীর তালুকদার একজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের উপস্থিতিতে কবর থেকে সাইদুল হকের লাশ উত্তোলন করে ময়নাতদন্তের জন্য অনুমতি প্রদান করেন।

নির্বাচিত সংবাদ