২২ এপ্রিল ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

১১ শতাংশ আইপিওয়ের টাকা অব্যবহৃত একমির

বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) মাধ্যমে একমি ল্যাবরেটরিজের জন্য সংগৃহীত অর্থ ব্যবহারের নির্দিষ্ট সময় শেষেও ১১ শতাংশ অব্যবহৃত রয়েছে। চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ (সিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। কোম্পানিটির পক্ষে আইপিও’র মাধ্যমে শেয়ারবাজার থেকে ২০১৬ সালে ৪০৯ কোটি ৬০ লাখ টাকা সংগ্রহ করা হয়। প্রসপেক্টাস অনুযায়ী, যা ব্যবহারের জন্য ২০১৮ সালের ২০ অক্টোবর পর্যন্ত সময়সীমা ছিল। তবে সেই নির্ধারিত সময়ের সাড়ে ৪ মাস পরেও ৪৫ কোটি ৪৮ লাখ টাকা অব্যবহৃত রয়েছে। একমি ল্যাবরেটরিজ স্টেরয়েড ও পণ্য প্রকল্প এবং আয়ুরবেদিক, মডার্ন হারবাল ও প্রকল্পের জন্য আইপিওর মাধ্যমে অর্থ সংগ্রহ করা হয়। উল্লেখ্য একমি ল্যাবরেটরিজ আইপিওতে ৫ কোটি শেয়ার ইস্যুর মাধ্যমে ৪০৯ কোটি ৬০ লাখ টাকা সংগ্রহ করে। বুক বিল্ডিংয়ে শেয়ারবাজারে আসা কোম্পানিটির কাট-অফ প্রাইস হয়েছিল ৮৫.২০ টাকা। Ñঅর্থনৈতিক রিপোর্টার

শেয়ার বেচবেন হাক্কানি পাল্প উদ্যোক্তা

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হাক্কানি পাল্পের উদ্যোক্তা পরিচালক গোলাম মোস্তফা ব্লক মার্কেটে শেয়ার বেচার ঘোষণা দিয়েছেন। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। সূত্র জানায়, এই উদ্যোক্তা ১ লাখ শেয়ার বেচবেন। এই উদ্যোক্তা পরিচালক আগামী ৩০ কার্যদিবসের মধ্যে বর্তমান বাজার দরে উল্লেখিত পরিমাণ শেয়ার বেচতে পারবেন। -অর্থনৈতিক রিপোর্টার