২৪ আগস্ট ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

আদমদীঘিতে সালিশ পণ্ড ॥ লম্পট আটক

  • শিশুর যৌন হয়রানি

নিজস্ব সংবাদদাদা, সান্তাহার, ২১ মার্চ ॥ বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলা সদরের সুদিন গ্রামে তৃতীয় শ্রেণীর ছাত্রীকে যৌন হয়রানি করার ঘটনা ধামাচাপা দিতে গ্রাম্য মাতবরদের বসানো সালিশ পণ্ড করে দিয়েছে পুলিশ। সেই সঙ্গে সালিশে উপস্থিত লম্পট রবিউল ইসলামকে গ্রেফতার করেছে। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার আদমদীঘি থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা হয়েছে। জানা গেছে, উপজেলা সদরের সুদিন গ্রামের রওশন আলী তার ৯ বছরের শিশুকন্যাকে দাদি আমেনা বেগমের কাছে রেখে সস্ত্রীক কর্মক্ষেত্র ঢাকায় থাকেন। মঙ্গলবার সকালে ওই ছাত্রীকে বাড়িতে রেখে তার দাদি পান সুপারি কেনার জন্য গ্রামের একটি দোকানে যায়। এই সুযোগে একই গ্রামের মৃত আলেফ উদ্দিনের ছেলে লম্পট রবিউল ইসলাম ওই শিশু কন্যাকে বাড়িতে একা পেয়ে ধর্ষণের চেষ্টা করে। ধস্তাধস্তিতে কুলিয়ে উঠতে না পেরে সে চিৎকার করে।

তার চিৎকারে বাড়ির এবং প্রতিবেশী লোকজন এগিয়ে এসে ঘরের দরজা ধাক্কা দিয়ে খুলে ফেলে এবং উলঙ্গ অবস্থায় ওই শিশুকে উদ্ধার করে। লম্পট রবিউলকে আটক করে গণধোলাই দেয়ার প্রস্তুতি কালে সে কৌশলে দ্রুত পালিয়ে যায়। পরে ঘটনাটি ধামাচাপা দেয়ার জন্য গ্রামের প্রভাবশালী মাতবররা বুধবার রাতে গ্রামে একটি সালিশ বৈঠক বসায়। এদিকে থানা পুলিশ গোপন সূত্রে ওই সালিশের খবর জানতে পেরে অভিযান চালায়।