১৯ আগস্ট ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

কথা কবিতা ও স্মৃতিচারণায় নিখিল সেন

স্টাফ রিপোর্টার ॥ কথা, কবিতা ও স্মৃতিচারণার মাধ্যমে স্মরণ করা হলো একুশে পদকপ্রাপ্ত সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব নিখিল সেনকে। শুক্রবার বিকেলে জাতীয় জাদুঘরের সুফিয়া কামাল স্মৃতি মিলনায়তনে এ স্মরণানুষ্ঠানের আয়োজন করে নিখিল সেন স্মৃতি পরিষদ। সদ্যপ্রয়াত এ গুণীকে শ্রদ্ধা ও ভালবাসায় জানাতে এতে উপস্থিত হয়েছিলেন রাজনীতি, সংস্কৃতিসহ নানা অঙ্গনের বিশিষ্টজনেরা।

নিখিল সেন দীর্ঘ ৮৮ বছরের জীবনের প্রায় পুরোটা সময় বিলিয়েছেন বরিশালের সাংস্কৃতিক সমৃদ্ধির জন্য। তার হাতেই প্রতিষ্ঠিত হয়েছে বরিশাল শিল্পী সংসদ, বরিশাল থিয়েটার প্রভৃতি সাংস্কৃতিক সংগঠন। স্মরণের এ আয়োজনে স্বাগত বক্তব্য দেন নিখিল সেন স্মৃতি পর্ষদের যুগ্ম আহ্বায়ক সাংবাদিক তৌফিক মারুফ। পর্ষদ সভাপতি অধ্যাপক বদিউর রহমানের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব মঞ্জুরুল আহসান খান, নাট্যজন আতাউর রহমান, নাট্যজন মামুনুর রশীদ, বিচারপতি এএফআরএম নাজমুল আহসান, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব গোলাম কুদ্দুছ, অধ্যাপক সৈয়দ আজিজুল হক, রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব এ্যাডভোকেট মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, সাংবাদিক অজয় দাশগুপ্ত, আবৃত্তিজন ইস্তেকবাল হোসেন, নাট্যজন সৈয়দ আওলাদ, ইমানুয়েল হাকিম, শামসুদ্দিন কামাল প্রমুখ। নিখিল সেনকে নিবেদিত কবিতা আবৃত্তি করেন ভাষ্কর বন্দ্যোপাধ্যায়। গান গেয়ে শোনান হাসান আবিদুর রেজা জুয়েল, সুনীল ঘোষ প্রমুখ। প্রদর্শিথ হয় নিখিল সেনের ওপর নির্মিত তথ্যচিত্র।

মামুনুর রশীদ বলেন, কিছু কিছু গুণী মানুষ স্থানীয় পর্যায়ে আলো ছড়ান। তাদের আলো প্রান্ত থেকে কেন্দ্র সর্বত্রই ছড়িয়ে পড়ে। নিখিল সেনের চেতনার আলো শুধু বরিশাল নয়, জাতীয় পর্যায় হয়ে ছড়িয়ে পড়ে আন্তর্জাতিক পর্যায়েও।

আতাউর রহমান বলেন, সংস্কৃতি শুধু নয়, অসাম্প্রদায়িক রাজনীতি চর্চা ও বিকাশের ক্ষেত্রে সদা স্মরণীয় ব্যক্তিত্ব নিখিল সেন। বাঙালীয়ানা, স্বদেশপ্রেম, মাতৃভাষার প্রতি তিনি যে ভালবাসা ও আত্মত্যাগ প্রদর্শন করেছেন তা অতুলনীয়।

গোলাম কুদ্দুছ বলেন, সংস্কৃতির এক বটবৃক্ষ ছিলেন নিখিল সেন। তার ছায়াতলে সংস্কৃতিকর্মীরা আশ্রয় নিয়েছেন, অনুপ্রেরণা নিয়েছেন। শুধু দক্ষিণ বঙ্গে নয়, গোটা দেশেরই নাটক ও আবৃত্তি চর্চায় তার রয়েছে গুরুত্বপূর্ণ অবদান।

তৌফিক মারুফ বলেন, বরিশালের সংস্কৃতি ও প্রগতিশীল রাজনীতির জগতের এক অনন্য অভিভাবক ছিলেন নিখিল সেন। প্রান্তিকে অবস্থান করেও তিনি হয়ে উঠেছিলেন জাতীয় পর্যায়ের ব্যক্তিত্ব।