২০ এপ্রিল ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বঙ্গবন্ধু আজীবন বেঁচে থাকবেন শিশুদের অন্তরে ॥ স্পীকার

সংসদ রিপোর্টার ॥ জাতীয় সংসদের স্পীকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেছেন, আজকের শিশুরাই আগামীর ভবিষ্যত। জাতির পিতার জন্ম দিবসকে ‘জাতীয় শিশু দিবস’ আখ্যায়িত করার মূল উদ্দেশ্যই হলো শিশুদের অন্তরে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে জাগ্রত করা। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু আজীবন বেঁচে থাকবেন শিশুদের অন্তরে।

তিনি বলেন, টুঙ্গিপাড়ার সেই দিনের ‘খোকা’ বর্তমানে ইতিহাসের মহানায়ক, আপোসহীন থেকে অন্যায় ও বৈষম্যের বিরুদ্ধে জনগণের মুক্তির লক্ষ্যে লড়াই সংগ্রামের মাধ্যমে এনেছিলেন বাংলার স্বাধীনতা। কারও দান কিংবা অনুকম্পা নয়, লাখো শহীদের রক্তের বিনিময়ে অর্জিত বাংলার স্বাধীনতা।

শুক্রবার বিকেলে জাতীয় সংসদের দক্ষিণ প্লাজায় পার্লামেন্ট মেম্বারস ক্লাব আয়োজিত জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে শিশু-কিশোর চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা ও আর্ট ক্যাম্প উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

পার্লামেন্ট মেম্বারস ক্লাবের সভাপতি আ স ম ফিরোজ এমপির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন চীফ হুইপ নুর-ই-আলম চৌধুরী লিটন এমপি ও পার্লামেন্ট মেম্বারস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক এ বি তাজুল ইসলাম এমপি। এ সময় হুইপ মোঃ আতিউর রহমান আতিক এমপি, এনামুল হক এমপি, মোঃ হাবিবর রহমান এমপি ও বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সিনিয়র সচিব ড. জাফর আহমদ খানসহ সংসদ সচিবালয়ের উর্ধতন কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। পরে স্পীকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় বিজয়ী শিশু- কিশোরদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন।

শিশুদের চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা আয়োজনের মাধ্যমে পার্লামেন্ট মেম্বারস ক্লাব এক মহতী উদ্যোগ গ্রহণ করায় ক্লাবের সকল সদস্যকে স্পীকার ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, এ ধরনের উদ্যোগের ফলে শিশুদের সুপ্ত প্রতিভার বিকাশ ঘটবে। বঙ্গবন্ধুর আদর্শে উদ্বুদ্ধ হয়ে ভবিষ্যত রাষ্ট্র বিনির্মাণে সকল শিশুকে বঙ্গবন্ধুকে ভালবাসার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুকে জানলে ও চিনতে পারলে দেশপ্রেম জাগ্রত হবে, যা জাতিকে উন্নত সমৃদ্ধ ঠিকানায় পৌঁছে দেবে অচিরেই।