২২ এপ্রিল ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

হিজবুল্লাহর প্রতি জনগণের সমর্থন রয়েছে ॥ পম্পেওকে আউন

হিজবুল্লাহর প্রতি জনগণের সমর্থন রয়েছে  ॥  পম্পেওকে আউন

অনলাইন ডেস্ক ॥ লেবাননের প্রেসিডেন্ট মিশেল আউন বলেছেন, তার দেশের ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন হিজবুল্লাহর প্রতি জনগণের ব্যাপক সমর্থন রয়েছে। মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেওর সঙ্গে বৈঠকে মিশেল আউন একথা বলেছেন।

প্রেসিডেন্ট আউনের দপ্তর থেকে গতকাল (শুক্রবার) এক টুইটার বার্তার মাধ্যমে এ খবর দেয়া হয়েছে। বৈঠকে তিনি পম্পেওকে আরো বলেন, “জাতীয় ঐক্য ও বেসামরিক লোকজনের নিরাপত্তা ধরে রাখা আমাদের কাছে অগ্রাধিকার পাচ্ছে।” এ বক্তব্যের মাঝদিয়ে তিনি মূলত হিজবুল্লাহর গুরুত্ব তুলে ধরেছেন। গতকাল পম্পেও রাজধানী বৈরুতের পূর্বে অবস্থিত বাবদা প্রেসিডেন্ট প্রাসাদে আউনের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন।

পম্পেও দাবি করেন, ইরান ও হিজবুল্লাহ সম্পর্কে মার্কিন চাপ কাজ করছে এবং লেবাননের জনগণকে হিজবুল্লাহর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানোর আহ্বান জানান তিনি। মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী লেবাননের জনপ্রিয় ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলনকে সন্ত্রাসী সংগঠন এবং হুমকি বলেও আখ্যা দেন। তিনি বলেন, “হিজবুল্লাহকে অর্থ যোগান দেয়া বন্ধের জন্য আমরা চাপ সৃষ্টি করেছি এবং সে চাপ কাজ করছে।”

হিজবুল্লাহর বিরুদ্ধে অবস্থান নেয়ার জন্য মাইক পম্পেও লেবাননের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর জেবরান বাসিলের প্রতিও আহ্বান জানান। তবে যৌথ সংবাদ সম্মেলনে লেবাননের পররাষ্ট্রমন্ত্রী পম্পেওর দাবি সরাসরি নাকচ করে বলেন, হিজবুল্লাহ সন্ত্রাসী সংগঠন নয়। তিনি জানান, মার্কিন মন্ত্রীর সঙ্গে তার গঠনমূলক আলোচনা হয়েছে কিন্তু হিজবুল্লাহ ইস্যুতে মতপার্থক্য রয়েছে। বাসিল দৃঢ়তার সঙ্গে বলেন, হিজবুল্লাহ হচ্ছে লেবাননের একটি রাজনৈতিক দল, তাদের ব্যাপক জনপ্রিয়তা রয়েছে এবং তারা কোনোভাবেই সন্ত্রাসী সংগঠন নয়।

এদিকে, জাতীয় সংসদের স্পিকার নাবিহ বেরির সঙ্গে পম্পেও সাক্ষাৎ করতে গেলে তিনি বলেছেন, হিজবুল্লাহর ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের কারণে লেবাননের সাধারণ মানুষের ক্ষতি হচ্ছে। তিনি বলেন, হিজবুল্লাহ একটি রাজনৈতিক দল, তারা সরকার ও সংসদে রয়েছে এবং ইহুদিবাদী ইসরাইলের দখলদারিত্ব থেকে লেবাননের ভূখণ্ড মুক্ত করার জন্য ইসরাইলকে প্রতিরোধ করছে।

লেবানন সফরে পম্পেও দেশটির প্রধানমন্ত্রী সাদ হারিরির সঙ্গেও বৈঠক করেন।#