২৩ এপ্রিল ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

চলচ্চিত্র আমদানি রফতানি সুপারিশ কমিটির সভা অনুষ্ঠিত

স্টাফ রিপোর্টার ॥ তথ্যমন্ত্রনালয় থেকে বাংলাদেশের ৮টি চলচ্চিত্র কলকাতায় রফতানি এবং কলকাতা থেকে দুইটি চলচ্চিত্র বাংলাদেশে আমদানির অনুমোদন দেয়া হয়েছে। সম্প্রতি বাংলাদেশের তথ্যমন্ত্রণালয়ে চলচ্চিত্র আমদানি ও রফতানি সুপারিশ কমিটির সভায় এ অনুমোদন দেয়া হয়। চলচ্চিত্র আমদানি-রফতানি সুপারিশ কমিটির সদস্য ও চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির সভাপতি মুশফিকুর রহমান গুলজার বলেন, আগের দুটি চলচ্চিত্র ভারতে রপ্তানির বিপরীতে কলকাতার ‘বচ্চন’ ও ‘থাই কারি’ নামে দুটি চলচ্চিত্রের আমদানির অনুমোদন দেয়া হয়েছে। পাশাপাশি সভায় বাংলাদেশের ৮টি চলচ্চিত্র কলকাতায় রফতানির অনুমোদন দেয়া হয়েছে। জানা যায়, কলকাতায় রফতানির অনুমোদন পাওয়া বাংলাদেশের চলচ্চিত্রগুলো হলো ‘জান্নাত’, ‘ফিফটি ফিফটি লাভ’, ‘পাংকু জামাই’, ‘দাগ হৃদয়ে’, ‘শাহেনশাহ’, ‘বয়ফ্রেন্ড’, ‘চিটাগাইঙ্গা পোয়া নোয়াখাইল্যা মাইয়া’ ও ‘ধূসর কুয়াশা’। ভারত থেকে আমদানির অনুমোদন পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন চলচ্চিত্র আমদানি-রফতানিকারক প্রতিষ্ঠান এন ইউ আহাম্মদ ট্রেডার্সের স্বত্বাধিকারী কামাল মোহাম্মদ কিবরিয়া লিপু। তিনি বলেন, ‘থাই কারি’ চলচ্চিত্রটি আমদানি করছি আমি। এর বিপরীতে ‘ভালো থেকো’ চলচ্চিত্রটি আগেই বাংলাদেশ থেকে ভারতে রফতানি করা হয়েছিল। হয়তো আগামী সপ্তাহে পেয়ে যাব। এদিকে ভারত থেকে আমদানির জন্য ‘বচ্চন’, রফতানির জন্য ‘জান্নাত’, ‘ফিফটি ফিফটি লাভ’ চলচ্চিত্রগুলোর জন্য আবেদন করেছিল আমদানি-রফতানিকারক প্রতিষ্ঠান ইন উইন এন্টারপ্রাইজ। এ প্রতিষ্ঠানের কর্ণধার ইফতেখার উদ্দিন নওশাদ জানান, দেরিতে মুক্তি দিতে চাই না। এতে করে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছি আমরা। একটি নতুন চলচ্চিত্র কলকাতায় যেদিন মুক্তি পাবে, আমদানিতে বাংলাদেশের প্রেক্ষাগৃহেও সেদিন মুক্তি পাবে, এমনটাই চাওয়া আমার। কিন্তু ভারতে চলচ্চিত্র মুক্তির পর বাংলাদেশে মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন পেতে দেরি হচ্ছে বলে অভিযোগ অনেক প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের। কামাল মোহাম্মদ কিবরিয়া লিপু জানান, নতুন করে ‘দাগ হৃদয়ে’ চলচ্চিত্রট রফতানির জন্য আবেদন করার পর গত ১৯ মার্চের সভায় আমার এ চলচ্চিত্রসহ মোট ৮টি রপ্তানি চলচ্চিত্র ও দুটি আমদানির জন্য অনুমোদন হয়েছে। তবে এখনো অনুমোদনের চিঠি হাতে আসেনি।