২৪ এপ্রিল ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

পার্বতীপুরে আগামী জুনেই ঘরে ঘরে বিদ্যুত

  • ‘আলোর ফেরিওয়ালা’ অন্যরকম সেবা

স্টাফ রিপোর্টার, দিনাজপুর ॥ পার্বতীপুর উপজেলার প্রত্যন্ত এলাকা চ-িপুর ইউনিয়নের একটি গ্রামের নাম উত্তর শালন্দার। এই গ্রামের অশীতিপর বৃদ্ধা ছইদা বেগম। তিনি আবেদন করার সঙ্গে সঙ্গে একইদিন বিদ্যুত পাবেন, এমনটি কখনও স্বপ্নেও ভাবেননি। বাড়ি বাড়ি গিয়ে এভাবেই বিদ্যুত সংযোগ প্রদান করে যাচ্ছে দিনাজপুর পল্লী বিদ্যুত সমিতির-২ এর পার্বতীপুর জোনাল অফিস। একই রকম মন্তব্য করলেন ওই গ্রামের মোরশেদুল, ওহেদুল ও মাসুদা বেগম। পল্লী বিদ্যুত অফিস ‘আলোর ফেরিওয়ালা’ নামে এই কর্মসূচীর আওতায় পার্বতীপুর উপজেলার প্রত্যেক ঘরে ঘরে বিদ্যুত সংযোগ প্রদান করছে। পার্বতীপুর জোনাল অফিসের উপ-মহাব্যবস্থাপক (ডিজিএম) মোঃ মজিবুল হক বলেন, বাদপড়া সংযোগ প্রত্যাশীদের অফিসে যাওয়ার দরকার নেই। কোন আবেদন বা ইলেকট্রিশিয়ানের ওয়্যারিং রিপোর্টের প্রয়োজন নেই। শুধু ঘরে ওয়্যারিং থাকলেই বাড়িতে বসেই বিদ্যুত সংযোগ পাবেন সকল সংযোগ প্রত্যাশী গ্রাহকেরা। তিনি আরও বলেন, কোন গ্রাহক হয়রানি হবে না এ কর্মসূচীর মাধ্যমে। ‘আলোর ফেরিওয়ালা’ ব্যানার লাগিয়ে একটি ভ্যানে করে দুজন কর্মচারী একজন অফিসারের নেতৃত্বে প্রতিটি বাড়িতে বিদ্যুত সংযোগ প্রদানের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন। রবিবার উত্তর শালন্দার গ্রামে দুপুর ২টায় সরেজমিন গিয়ে বিদ্যুত কর্মীদের কাছ থেকে জানা যায়, সারা দিনে তারা ৪২ জন সংযোগ প্রত্যাশীকে বিদ্যুত সংযোগ প্রদান করেছেন। এছাড়া ‘আলোর ফেরিওয়ালা’ কর্মসূচীর মাধ্যমে অভিযোগ গ্রহণ ও সমাধানের কাজও করছেন তারা। দিনাজপুর পল্লী বিদ্যুত সমিতি-২ এর বর্তমান উপ-মহাব্যবস্থাপক (ডিজিএম) মোঃ মজিবুল হক ২০১৭ সালের জানুয়ারি মাসে পার্বতীপুর জোনাল অফিসে যোগদান করেন। গত ২৬ মাসে তার সময়ে ২৬ হাজার নতুন গ্রাহককে বিদ্যুত সংযোগ প্রদান করা হয়েছে।

বর্তমানে পার্বতীপুর উপজেলায় ১০ ইউনিয়ন ও পৌরসভায় (আংশিক) পল্লী বিদ্যুত সমিতি ৭৪ হাজার গ্রাহককে বিদ্যুত সেবা দিয়ে যাচ্ছে। এখানে আগের মতো নেই লোড শেডিং। সেচ মৌসুমেও সার্বক্ষণিক বিদ্যুত পাচ্ছেন সকল গ্রাহক। সিস্টেম লস দুই বছর আগেও ছিল শতকরা ১২ ভাগ, এখন সেই সিস্টেম লস নেমে এসেছে ৭ দশমিক ৫ ভাগে। ডিজিএম মজিবুল হক আরও বলেন ‘শেখ হাসিনার উদ্যোগ- ঘরে ঘরে বিদ্যুত’ এ স্লোগানকে বাস্তবে রূপদানের লক্ষ্যে এখানকার বিদ্যুত বিভাগের কর্মীরা কাজ করে হচ্ছে নিরলসভাবে। আগামী জুন মাসের মধ্যে পার্বতীপুর উপজেলার প্রতিটি ঘরে বিদ্যুত পৌঁছে যাবে। গ্রামকে শহরের সকল সুবিধা দেয়ার জন্য সরকারের ‘আমার গ্রাম আমার শহর’ কর্মসূচী নিয়েও বিদ্যুত বিভাগ কাজ করে যাচ্ছে বলে তিনি উল্লেখ করেন।