২০ আগস্ট ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

মাশরাফিদের নকল জার্সি বিক্রি বন্ধে বিসিবির পদক্ষেপ

মাশরাফিদের নকল জার্সি বিক্রি বন্ধে বিসিবির পদক্ষেপ
  • জাতীয় দলের বিশ্বকাপ জার্সি বিক্রি করবে স্পোর্টস এ্যান্ড স্পোর্টজ, বিসিবির সঙ্গে ১ বছরের চুক্তি

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ আগামী ৩০ মে ইংল্যান্ডে শুরু হবে ওয়ানডে বিশ্বকাপ। ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় ও আকর্ষণীয় এ আসরটি সামনে রেখে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের জার্সি বাণিজ্যিকভাবে বিক্রির উদ্যোগ নিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। সেজন্য জার্সি বিক্রির স্বত্ব দেয়া হয়েছে দেশীয় প্রতিষ্ঠান স্পোর্টস এ্যান্ড স্পোর্টজকে। সোমবার প্রথমবারের মতো বিসিবি এমন উদ্যোগের ঘোষণা দিয়েছে মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামের সংবাদ সম্মেলন কক্ষে। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরী সুজন ও স্পোর্টস এ্যান্ড স্পোর্টজ জিজাইনের কর্ণধার মেহতাব উদ্দিন আনোয়ার আহমেদসহ প্রতিষ্ঠানটির অন্যান্য কর্মকর্তারা। সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয় জাতীয় দলের নকল জার্সি বিক্রি ঠেকাতেই এই উদ্যোগ নেয়া হয়েছে এবং স্পোর্টস এ্যান্ড স্পোর্টজ আগামী এক বছরের জন্য এর বিপণনে চুক্তিবদ্ধ হয়েছে। আগামী ২৫ এপ্রিল থেকে দেশের বিভিন্ন আউটলেটে এবং বিশ্বকাপ চলাকালীন ইংল্যান্ডের বিভিন্ন ভেন্যুতেও পাওয়া যাবে জাতীয় দলের জার্সি।

এই প্রথম বিসিবি বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের জার্সি আনুষ্ঠানিকভাবে বিক্রির উদ্যোগ নিয়েছে। এমনিতে বাংলাদেশ দলের জার্সি নকল করে বিভিন্ন দোকানে চড়া দামে বিক্রি করা হয়। ফলে নি¤œমানের জার্সি বেশি দামে কিনে মূলত দেশের অগণতি ক্রিকেট-ভক্তরা প্রতারিতই হন। এবার আর সেই সুযোগ পাবেন না সাধারণ ব্যবসায়ীরা। এখন থেকে কেউ অবৈধভাবে জার্সি তৈরি করে বিক্রি করলে তার বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও জানিয়েছেন বিসিবি সিইও নিজামউদ্দিন সুজন। তিনি বলেন, ‘কেউ যেন নকল জার্সি না বানাতে পারে, সেই দিকে নজরদারির ব্যবস্থা থাকবে। কেউ এমন কাজ করলে তার বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।’ এক বছরের জন্য স্পোর্টস এ্যান্ড স্পোর্টজ দায়িত্ব নিয়েছে। আগামী ২৫ এপ্রিল থেকেই নতুন জার্সিটি বাজারে আসবে সাধারণ মানুষের কাছে বিক্রির জন্য। আর সেটি দেশের স্বনামধন্য বিভিন্ন আউটলেট থেকে কিনতে পারবেন আগ্রহীরা। ঢাকাসহ সারাদেশেই জার্সিটি বিক্রির উদ্যোগ নেবে প্রতিষ্ঠানটি। তবে কত মূল্য এবং কোথায় কোথায় পাওয়া যাবে তা নির্দিষ্ট সময়ের আগেই জানিয়ে দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন প্রতিষ্ঠানটির প্রতিনিধি মেহতাব উদ্দিন আহমেদ। তিনি বলেন, ‘কয়েক সপ্তাহের মধ্যে বিশ্বকাপের জার্সি উন্মোচন হবে। এরপর বাংলাদেশের স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠানের আউটলেটের মাধ্যমে ক্রিকেটপ্রেমীরা জার্সি কেনার সুযোগ পাবেন। আমরা এখনও মূল্য নির্ধারণ করিনি। তবে জার্সির মূল্য সবার ক্রয় ক্ষমতার মধ্যেই থাকবে।’ শুধু বাংলাদেশেই নয়, ইংল্যান্ডে বিশ্বকাপ চলাকালেও আইসিসি নির্ধারিত ভেন্যুগুলোতে মাশরাফি বিন মর্তুজাদের জার্সি পাওয়া যাবে। এ বিষয়ে আইসিসির সঙ্গে কথা বার্তা হচ্ছে বিসিবির। নিজামউদ্দিন এ বিষয়ে বলেন, ‘আমরা আইসিসির সঙ্গে কথাবার্তা বলছি। বিশ্বকাপ চলাকালে ভেন্যুগুলোতে জার্সি বিক্রির উদ্যোগ নেব।’ আপাতত বিশ্বকাপ উপলক্ষে বিশেষ জার্সিটি বিক্রি করলেও আগামী এক বছরের জন্য বাংলাদেশের বিভিন্ন টুর্নামেন্টে ব্যবহৃত জার্সিও বিক্রি করবে স্পোর্টস এ্যান্ড স্পোর্টজ।