২৩ এপ্রিল ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বঙ্গমাতা ফুটবলে চ্যাম্পিয়ন হতে মারিয়াদের প্রস্তুতি

বঙ্গমাতা ফুটবলে চ্যাম্পিয়ন হতে মারিয়াদের প্রস্তুতি

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ফুটবলের পর এবার অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে বঙ্গমাতা আন্তর্জাতিক নারী গোল্ডকাপ টুর্নামেন্ট। অনুর্ধ ১৯ বয়সভিত্তিক এই আসরে অংশ নেবে স্বাগতিক বাংলাদেশসহ এশিয়ার ৬ দেশ। ২২ এপ্রিল থেকে ৩ মে পর্যন্ত এ টুর্নামেন্ট চলবে। প্রথমবারের মতো টুর্নামেন্ট হচ্ছে অনুর্ধ ১৯ পর্যায়ে। ঢাকার কমলাপুর স্টেডিয়াম ব্যবহারের অনুপযোগী, তাই সব ম্যাচই অনুষ্ঠিত হবে ঢাকার বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে।

গ্রুপিং অনুযায়ী বাংলাদেশ পড়েছে ‘বি’ গ্রুপে। এই গ্রুপের অন্য দুটি দেশ হলো সংযুক্ত আরব আমিরাত এবং কিরগিজস্তান। এই দুই দলের সঙ্গেই খেলার অভিজ্ঞতা আছে বাংলাদেশের। অর্থাৎ দেশ দুটো হচ্ছে বাংলাদেশের জন্য চেনা প্রতিপক্ষ। ‘এ’ গ্রুপে আছে মঙ্গোলিয়া, তাজিকিস্তান ও লাওস।

প্রত্যাশার সঙ্গে প্রাপ্তির সমন্বয়টা ঠিকমতো হয়নি। প্রত্যাশা ছিল সাফ মহিলা চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপা জেতার। এজন্য প্রয়োজন ছিল ফাইনালে ওঠার। কিন্তু ফাইনালে ওঠা তো দূরে থাক, সেমিফাইনাল থেকেই বিদায় নিতে হয়েছে অসহায় আত্মসমপর্ণ করে, বাংলাদেশ জাতীয় মহিলা ফুটবল দলকে। নেপালের বিরাটনগরে বিরাট আশা নিয়ে গিয়েছিলেন সাবিনা-স্বপ্না-মারিয়ারা। সেই আশার বেলুন চুপসে যায় সেমিতে ভারতের কাছে ৪-০ গোলে হেরে। যাহোক, সাফ মিশন শেষে ইতোমধ্যেই দেশে ফিরেছে লাল-সবুজ বাহিনী। তাদের পারফর্মেন্স নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা থেমে নেই। তবে দলের কোচ গোলাম রব্বানী ছোটন জানান নির্ধারিত লক্ষ্য পূরণ করেই দেশে ফিরেছে বাংলাদেশ দল। তাই তাতে হতাশ হওয়ার কিছুই নেই। জাতীয় দলের মিশন শেষে এখন সময় অনুর্ধ ১৯ দল নিয়ে ভাবার। কারণ সামনেই ঘরের মাঠে ‘বঙ্গমাতা অ-১৯ টুর্নামেন্ট। যেখানে ফেবারিট হিসেবেই খেলতে নামবে তার শিষ্যারাÑ এমনটাই জানিয়েছেন তিনি।

সাফে বাংলাদেশের ব্যর্থতার কারণ কিন্তু সবারই জানা। কারণ এই দলে সিনিয়র খেলোয়াড়দের চরম অভাব। বলতে গেলে পুরো দলটিই বয়সভিত্তিক দল! একমাত্র সাবিনা খাতুনই সিনিয়র প্লেয়ার। দলে এক সময় খেললেও এখন আর নেই অ¤্রাচিং মারমা, সুইন প্রু মারমা, মাইন মারমা, আসিয়া খাতুন বিথী, মনিকা চাকমা সিনিয়র, জাহানারা আক্তার জানুসহ অনেকে। তাদের জায়গায় যারা খেলছে সেই মনিকা, আঁখি, মারিয়ারা বয়সে অনেক যেমন ছোট, তেমনি অভিজ্ঞতায়ও অনেক পিছিয়ে। এরই প্রভাব পড়েছে জাতীয় দলের খেলায়।

নেপাল আর ভারতের বিপক্ষে বাংলাদেশ পিছিয়ে ছিল বয়স, অভিজ্ঞতা, ফিটনেস, ক্ষিপ্রতা, গতি ... সবদিক দিয়েই। ফলে প্রতিপক্ষের ফুটবলারদের সামনে বাংলাদেশের মেয়েরা ছিল বলতে গেলে শিশু! যেখানে ভারতের ফুটলারদের গড় বয়স ২১ বছর চার মাস, সেখানে বাংলাদেশের মেয়েদের গড় বয়স ১৭ বছর ৪ মাস!

ছোটনের পরবর্তী মিশন বঙ্গমাতা আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্ট। এখন তার চিন্তা ভাবনায় আসন্ন এই টুর্নামেন্ট। ছোটন বলেন, ‘যেহেতু অনুর্ধ ১৯ টুর্নামেন্ট। দেশের মাটিতে খেলা দর্শক আমাদের। তাছাড়া বঙ্গমাতার নামে খেলা, খুবই গুরুত্ব সহকারে নেয়া হবে। আমরা ফেবারিট হিসেবেই মাঠে নামব।’