২০ আগস্ট ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

গেইলের রেকর্ড গড়া ইনিংসে জয়ে শুরু পাঞ্জাবের

  • আইপিএল

জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) এবারের আসর জয় দিয়ে শুরু করল কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব। সোমবার নিজেদের উদ্বোধনী ম্যাচে ক্রিস গেইলের রেকর্ড গড়া হাফসেঞ্চুরিতে রাজস্থান রয়্যালসকে তাদেরই মাঠে হারিয়েছে ১৪ রানে। খবর ক্রিকইনফোর।

শুরুতে ধীরগতিতে রান তুললেও সময় গড়ানোর সঙ্গে খোলস ভেঙ্গে বের হন গেইল। ক্যারিবিয়ান হার্ডহিটার ৪৭ বলে খেলেন ৭৯ রানের ঝড়ো ইনিংস। এই ইনিংস খেলার পথেই আইপিএল ইতিহাসের দ্রুততম ৪ হাজার রানের রেকর্ড গড়েছেন তিনি। তার ঝড়ে নির্ধারিত ২০ ওভারে পাঞ্জাব ৪ উইকেটে স্কোরে জমা করে ১৮৪ রান। কঠিন এই লক্ষ্যে জস বাটলারের হাফসেঞ্চুরির পরও রাজস্থান করতে পারে ৯ উইকেটে ১৭০ রান। টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে পাঞ্জাবের শুরুটা ছিল নড়বড়ে। ৪ রানে তারা হারায় ওপেনার লোকেশ রাহুলের (৪) উইকেট। মায়ঙ্ক আগারওয়ালকে নিয়ে গেইল খুব একটা সুবিধা করতে পারছিলেন না। মায়াঙ্ক ফেরেন ২২ রান করে। তবে শুরুটা ধীরে হলেও সময় গড়ানোর সঙ্গে নিজের চেনা রূপে ফেরেন গেইল। চার-ছক্কার ফুলঝুরিতে বাড়িয়ে নেন দলের রান। হাফসেঞ্চুরি করার পথে গড়েন আইপিএল ইতিহাসের দ্রুততম ৪ হাজার রান রেকর্ড। তার আগে রেকর্ডটি ছিল ডেভিড ওয়ার্নারের দখলে। অস্ট্রেলিয়ান ওপেনারের এই মাইলফলক স্পর্শ করতে লেগেছিল ১১৬ ইনিংস, আর গেইল সেটা করে ফেললেন ১১৪ ইনিংসেই। আউট হওয়ার আগে ৪৭ বলে ৮ বাউন্ডারি ও ৪ ছক্কায় ক্যারিবিয়ান তারকা করেন ৭৯ রান। গেইলের গড়ে দেওয়া ভিতের ওপর দাঁড়িয়ে সরফরাজ খান ২৯ বলে ৬ বাউন্ডারি ও ১ ছক্কায় অপরাজিত থাকেন ৪৬ রানে। ১২ রান করেছেন নিকোলস পুরান। রাজস্থানের সবচেয়ে সফল বোলার বেন স্টোকস, এই পেসার ৪৮ রানে পেয়েছেন ২ উইকেট। ১৮৫ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে আজিঙ্কা রাহানে ও বাটলারের ব্যাটে দারুণ শুরু পায় রাজস্থান। উদ্বোধনী জুটিতে তারা যোগ করেন ৭৮ রান। এরপরও হার নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয়েছে তাদের। রাহানে ২৭ রানে ফিরলেও বাটলার তুলে নেন হাফসেঞ্চুরি। ৪৩ বলে ১০ চার ও ১ ছক্কায় তিনি করেন ৬৯ রান। তবে তার আউটের পর আর সুবিধা করতে পারেননি রাজস্থানের ব্যাটসম্যানরা। পাঞ্জাবের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ের সামনে সাঞ্জু স্যামসন করেন ৩০, আর এক বছর বিরতি দিয়ে আইপিএলে ফেরা স্টিভেন স্মিথের ব্যাট থেকে আসে ২০ রান। পরের দিকের ব্যাটসম্যানরা কেউই যেতে পারেননি দুই অঙ্কের ঘরে। দলের জয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছেন পাঞ্জাবের বোলাররা। ২টি করে উইকেট নিয়েছেন স্যাম কারান, মুজিব উল রহমান ও অঙ্কিত রাজপুত।