২৫ আগস্ট ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ইউরোপে রফতানি বাড়ানোর উদ্যোগ

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ রফতানি বাড়াতে ইউরোপের বিভিন্ন দেশে নিযুক্ত কমার্শিয়াল কাউন্সিলরদের ইতিবাচক উদ্যোগ নেয়ার পরামর্শ দিয়েছেন বাণিজ্যসচিব মোঃ মফিজুল ইসলাম। তিনি বর্তমান বেলজিয়াম সফর করছেন। সফররত বাণিজ্যসচিব মোঃ মফিজুল ইসলাম ইউরোপে বিভিন্ন দেশে নিযুক্ত কমার্শিয়াল কাউন্সিলরদের উদ্দেশ্যে বলেছেন, বাংলাদেশের রফতানির লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করতে হবে।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয় থেকে জানানো হয়েছে, রফতানি বাণিজ্য বাড়াতে বাণিজ্য সচিব ইউরোপের বিভিন্ন দূতাবাসের কমার্শিয়াল কাউন্সিলদের সঙ্গে বসে করণীয় ঠিক করছেন। ওই সময় তিনি বলেন, বাংলাদেশ রফতানি বাণিজ্যে দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছে। বিশ^ বাণিজ্য সংস্থার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বাংলাদেশ পেপারলেস ট্রেড এগ্রিমেন্টে স্বাক্ষর করেছে। বাংলাদেশ এখন পেপারলেস ট্রেডে সক্ষমতা অর্জন করেছে। ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশের রফতানি ৬০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার নির্ধারণ করা হয়েছে। ইউরোপের বাজার বাংলাদেশের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। বাংলাদেশের তৈরি পণ্য ইউরোপে বেশ জনপ্রিয়। এ সুযোগকে কাজে লাগাতে হবে। মফিজুল ইসলাম বলেন, প্রতিযোগিতামূলক বিশ^ বাণিজ্যে বাংলাদেশ সফলতার সঙ্গে এগিয়ে যাচ্ছে। বাজার সম্প্রসারণের জন্য কমার্শিয়াল কান্সিলরদের দায়িত্ব অনেক। সম্প্রতি বেলজিয়ামের বাংলাদেশ দূতাবাস ব্রাসেল্স এ ইউরোপে নিযুক্ত কমার্শিয়াল কাউন্সিলরদের ইউরোপের বাজারে ‘ট্রেড স্ট্রাটেজি এ্যান্ড এ্যাকশন প্ল্যান’ বাস্তবায়ন বিষয়ে এক কর্মশালায় সভাপতিত্ব করে এ সব কথা বলেন। বাণিজ্যসচিব বলেন, বহির্বিশে^ বাংলাদেশের রফতানি বৃদ্ধিতে কমার্শিয়াল কাউন্সিলরদের দায়িত্ব সুনির্দিষ্ট করে দেয়া হয়েছে।

ইউরোপের আমদানিকারকদের সঙ্গে সুসম্পর্ক বজায় রেখে বাংলাদেশের বিশ^মানের পণ্য সম্পর্কে ব্যাপক ধারণা দিতে হবে। ব্যবসা সহজীকরণে বাংলাদেশের গৃহীত পদক্ষেপ আমদানিকারকদের কাছে তুলে ধরতে হবে। এ বিষয়ে বাংলাদেশ খুবই আন্তরিক, কমার্শিয়াল কাউন্সিলরদের দায়িত্ব নিয়ে কাজ করতে হবে। সরকারের গৃহীত পদক্ষেপের ফলে বিশ^ব্যাপী বাংলাদেশের রফতানি বাড়ছে। বাংলাদেশে পুরুষদের পাশাপাশি নারী উদ্যোক্তারাও এগিয়ে এসেছে। আগামীতে নারীদের বিশ^ বাণিজ্যে সফলভাবে কাজ করার সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে। বাংলাদেশে এখন নারী ব্যবসায়ীর সংখ্যা অনেক। নারী ব্যবসায়ীদের সহযোগিতা দিলে বাণিজ্যের পরিধি বাড়বে। বেলজিয়ামে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ শাহাদাত হোসেন, রফতানি উন্নয়ন ব্যুরোর ভাইস-চেয়ারম্যান বিজয় ভট্টাচার্য্য বক্তব্য রাখেন। কর্মশালায় ইউরোপে নিযুক্ত কমার্শিয়াল কাউন্সিলরগণসহ দূতাবাসের কর্মকর্তাগণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

নির্বাচিত সংবাদ