১৫ এপ্রিল ২০১৯

বাঁশখালীতে ডাকাত দলের দু’গ্রুপের সংঘর্ষে নিহত-১, গুলিবিদ্ধ-২

বাঁশখালীতে ডাকাত দলের দু’গ্রুপের সংঘর্ষে নিহত-১, গুলিবিদ্ধ-২

নিজস্ব সংবাদদাতা, বাঁশখালী ॥ চট্টগ্রামের বাঁশখালী উপজেলার সরল ইউনিয়নের মধ্যম সরল বঙ্গোপসাগরে বেড়ীবাঁধ এলেকায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দু’ডাকাত দলের মধ্যে সংঘর্ষ ও গুলি বিনিময়ের ঘটনা ঘটেছে।

আজ সোমবার ভোর সকালে সংঘটিত গুলি বিনিময়ের ঘটনায় আবুল কালাম (৩৫) নামে এক যুবক নিহত ও দু’ডাকাত দলের প্রধান গুলিবিদ্ধ হয়েছে। নিহত আবুল কালাম দক্ষিণ সরল গ্রামের আব্দু ছালাম মিয়াজী পাড়ার কবির আহমদের পুত্র। সংঘর্ষের খবর পেয়ে সকাল ১০টার দিকে ঘটনাস্থাল থেকে বাঁশখালী থানার পুলিশ একজনের গুলিবিদ্ধ মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য চমেক হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করেছেন। এদিকে সরল ইউপির একাধিক ডাকাত গ্রুপের অস্ত্রের ঝনঝনানীতে আতংঙ্কিত সাধারণ মানুষ।

দু’ডাকাত দলের গুলি বিনিময় ও সংঘর্ষের ঘটনা অস্বীকার করে থানা পুলিশের ওসি মো: কামাল হোসেন বলেন, পূর্ব শত্রুতার জের ধরে এক পক্ষের হামলায় আবুল কালাম নামে এক ব্যাক্তি নিহত হয়েছে। তবে কি কারণে হামলার ঘটনা ঘটেছে পুলিশ মাঠে কাজ করছে বলেও তিনি জানান। স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, সরল ইউপির লবন মাঠ, চিংডীঘের দখল ও ফিশিং বোটে ডাকাতি সংঘটিত করে আসছে ভিন্ন একাধিক ডাকাত গ্রুফ। তৎমধ্যে সাধারণ মানুষের কাছে আতংঙ্কের যমদুত জাফর মেম্বার ও মোনাফ বাহিনী। এসব বাহিনীর মধ্যে হার হামেশা আধিপত্য বিস্তার নিয়ে রক্তের হুলিখেলা বিরাজমান। এরই জের ধরে সোমবার ভোর সকালে জাফর মেম্বার ও মোনাফ বাহীনির মধ্যে সংর্ঘষ ও গুলি বিনিময়ের ঘটনা ঘটে। গুলিবিদ্ধ হয়ে আবু কালাম নামে এক ডাকাত সদস্য ঘটনাস্থলে প্রান হারায়। এ সময় দু’ ডাকাত দলের প্রধান জাফর মেম্বার ও মো: মোনাফ গুলি বিদ্ধ হয়।

উল্লেখ্য সরল ইউনিয়নে বসবাসকারী সাধারণ মানুষ ডাকাত ও জলদস্যুর একাধিক বাহিনীর হাত থেকে পরিত্রান পেতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।