২০ মে ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সুনামগঞ্জে ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে হত্যা

সুনামগঞ্জে ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে হত্যা

নিজস্ব সংবাদদাতা, সুনামগঞ্জ ॥ সুনামগঞ্জের সদর উপজেলার দোপাজান বালি-পাথর কোয়ারীতে চাদাঁ না দেয়ায় ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে হত্যা করেছে দূর্বৃত্তরা। নিহত ব্যবসায়ী মিজানুর রহমান উপজেলার সুরমা ইউনিয়নের ইব্রাহিমপুর গ্রামের মৃত আব্দুর রহিমের ছেলে। আজ বৃহস্পতিবার সকালে সদর উপজেলার অক্ষয় নগর এলাকায় এই হতাহতের ঘঠনা ঘটেছে। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে পুলিশ ৩’জনকে আটক করেছে। আটককৃতরা হলেন, সদরগড় গ্রামের মৃত সজ্জাদ আলীর ছেলে মোঃ মালেক মিয়া (৫৫), গুলজার আলীর ছেলে মোঃ ছত্তার আলী (৩৫) ও মৃত মাছিম আলীল ছেলে মোঃ আব্দুল হাই(৪৯)।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সুত্রে জানা যায়, বৃহম্পতিবার সকাল ১০টায় ধোপাজান নদীর সদরগড় খালে ইব্রাহিমপুর গ্রামের রুহুল আমীনের ছেলে রেজা উদ্দিনের ৪ টি বালু ভর্তি বারকি নৌকা সদরগড় খালের পাড়ে নোংগর করা অবস্থায় আটককৃত বেশ কয়েকজন মিলে ঐ নৌকার মালিক রেজা উদ্দিনের নিকট চাদাঁ দাবি করে। সে চাদাঁ দিতে অস্বীকার করলে উভয়ের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। কথাকাটাকাটির একপর্যায়ে মিজানুর রহমান চিৎকার শুনে এগিয়ে গেলে সংঘবদ্ধ চঁদাবাজচক্র তাকে ডেকে নিয়ে ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাথারি কুপিয়ে গুরুতর আহত করে। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে নিয়ে আসলে জরুরি বিভাগে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিহতের স্বজনদের অভিযোগ পুর্বশত্রুতার জের ও চাঁদা না দেয়ায় মিজানকে হত্যা করেছে। নিহত মিজানের লাশ সদর হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে। বিকেলে ময়নাতদন্ত শেষে স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হবে বলে সদর হাসপাতালে আবাসিক চিকিৎসক ডা. রফিকুল ইসলাম জানিয়েছেন।

এব্যপারে সদর থানার এস আই মিজানুর রহমান বলেন পূর্ব শত্রুতা ও চাঁদাবাজি বিরোধকে কেন্দ্র করে এঘটনা ঘটেছে। লাসের সুরতহার করা হয়েছে। পুলিশ আসামী গ্রেফতারে অভিযান চালিয়ে এপর্যন্ত ৩’জনকে আটক করেছে। এ ঘটনার সাথে জরিতদের ধরতে গ্রেফতারে অভিযান চলছে বলেও জানান তিনি।

উলেখ্য, ‘হাওড় বাঁচাও সুনামগঞ্জ বাঁচাও আন্দেলন’ সহ হাওড়বাসির দাবির প্রেক্ষিতে গত বছরের ন্যায় এবারও ১৭ এপ্রিল থেকে ৫ মে পর্যন্ত বালি ও পাথর কোয়রি বন্ধ রাখার নির্দেশনা জারি করেছে জেলা প্রশাসন।