২৪ আগস্ট ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বিশ্বকাপে শ্রীলঙ্কার নেতৃত্বে করুনারত্নে

  • ৪ বছর পর ওয়ানডে দলে ফিরেই অধিনায়ক

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ কিছুদিন আগে দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে শ্রীলঙ্কার টেস্ট দলকে নেতৃত্ব দিয়েছেন বাঁহাতি ওপেনার দিমুথ করুনারত্নে। তবে ওয়ানডে খেলেননি গত চার বছর ধরে। সেই ৩০ বছর বয়সী করুনারত্নেকে এবার আসন্ন বিশ্বকাপে অধিনায়ক করে চরম বিস্ময়ের জন্ম দিয়েছে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট (এসএলসি)। সম্প্রতি দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে টেস্ট দলকে নেতৃত্ব দিয়ে অবিস্মরণীয় বিজয় এনে দেয়া এবং ওয়ানডে অধিনায়ক হিসেবে লাসিথ মালিঙ্গার ব্যর্থতায় এমন সিদ্ধান্ত। এমনটাই জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচক অশঙ্কা ডি মেল। এছাড়া ঘোষিত ১৫ সদস্যের চূড়ান্ত দলটি চমকে ভরা। ২০১৭ সালের পর আর লঙ্কান জার্সিতে কোন ওয়ানডে না খেলা চার ক্রিকেটার লাহিরু থিরিমান্নে, জীবন মেন্ডিস, জেফরি ভ্যান্ডারসারি ও মিলিন্দা শ্রীবর্ধনেরা বিশ্বকাপ দলে ঠাঁই করে নিয়ে বিস্ময়ের জন্ম দিয়েছেন। আরও বড় বিস্ময়ের বিষয় উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান নিরোশান ডিকভেলা, অভিজ্ঞ ওপেনার উপুল থারাঙ্গা, গত অক্টোবরেই ওয়ানডে দলকে নেতৃত্ব দেয়া দীনেশ চান্দিমাল, অফস্পিনার আকিলা দনাঞ্জয়া ও টপঅর্ডার দানুশকা গুনাথিলকার সুযোগ হয়নি। তবে সাবেক অধিনায়ক এ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস ও অভিজ্ঞ পেসার লাসিথ মালিঙ্গা আছেন দলে।

দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে অধিনায়ক হিসেবে দলকে ঐতিহাসিক জয় এনে দিয়েছিলেন করুনারতেœ। আর ওপেনার হিসেবেও মোটামুটি টেস্ট দলে তিনি নিয়মিতই। তবে ২০১১ থেকে ২০১৭ পর্যন্ত এই ৬ বছরে ওয়ানডে খেলেছেন মাত্র ১৭টি। শুরু থেকেই ক্ষুদ্র ফরমেটের ক্রিকেটে তিনি লঙ্কান দলে অনিয়মিত। আর ২০১৫ সালের মার্চের পর কোন ওয়ানডেই খেলেননি তিনি। সেই করুনারতেœ প্রোটিয়াদের বিপক্ষে দুর্দান্ত নেতৃত্ব দিয়ে অবিস্মরণীয় জয় এনে দেয়ার পুরস্কার পেয়েছেন এবার। ওয়ানডেতে ফিরেছেন শ্রীলঙ্কা দলে, তাও আবার বিশ্বকাপ দলে। এরচেয়ে আশ্চর্যের বিষয় হচ্ছে এবার ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে শ্রীলঙ্কাকে নেতৃত্ব দেবেন তিনি। গত বিশ্বকাপেও খেলেছিলেন তিনি। কিন্তু সবগুলো ম্যাচে ব্যর্থ হয়েছিলেন চরমভাবে। এরপরই ওয়ানডে থেকে ছিটকে যান করুনারতেœ। তার বিষয়ে প্রধান নির্বাচক অশঙ্কা ডি মেল বলেন, ‘দক্ষিণ আফ্রিকায় দিমুথ যেভাবে দলকে নেতৃত্ব দিতে পেরেছেন এবং একতাবদ্ধ করেছিলেন সেটা সত্যিই দারুণ। সবাই দলগতভাবে খেলেছিল। এটাই আমাদের কাছে এই মুহূর্তে সবচেয়ে জরুরী বিষয়। আমি মালিঙ্গার সঙ্গে আগেরদিনই কথা বলেছিলাম এবং তাকে জানিয়েছিলেন নেতৃত্ব সংক্রান্ত বিষয়ে নির্বাচক হিসেবে তার ব্যাপারে কোন ইস্যুই নেই আমাদের। কিন্তু খেলোয়াড় হিসেবে ভাল খেললেও বাকি ১০ জনকে নিজের পেছনে একতাবদ্ধ অবস্থায় পায়নি সে। এই পরিস্থিতিতেই তাকে পরিবর্তন করে দিমুথকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।’ উল্লেখ্য, দক্ষিণ আফ্রিকা সফরেও শ্রীলঙ্কার ওয়ানডে দলকে নেতৃত্ব দিয়েছেন মালিঙ্গা।

বিশ্বকাপ দলে সবচেয়ে বড় চমক হিসেবে অবশ্য দেখা হচ্ছে শ্রীবর্ধনের অন্তর্ভুক্তি। তবে ডি মেল তার বিষয়ে বলেছেন দলকে সামঞ্জস্যপূর্ণ করতে গিয়েই শ্রীবর্ধনে ডাক পেয়েছেন। সে ৬ নম্বরে নেমে ব্যাটসম্যান হিসেবে যেমন কার্যকর তেমনি আবার স্পিনেও ভাল অবদান রাখতে সক্ষম। আর বাদ পড়াদের মধ্যে ডিকভেলা ও আকিলার নাম দুটিও আশ্চর্যজনক। সর্বশেষ দক্ষিণ আফ্রিকা সফরেও তারা দলের হয়ে খেলেছেন। তবে প্রোটিয়াদের বিপক্ষে তিনটি দুই অঙ্কের নিচে থাকা ইনিংস খেলাতেই বাদ পড়তে হয়েছে তাকে। আর বোলিং ত্রুটি কাটাতে এ্যাকশনে পরিবর্তন আনার পর আকিলা আগের চেয়ে কম কার্যকর হয়েছেন। তাছাড়া ডি মেল মনে করেন এবারের বিশ্বকাপে দুইজন অফস্পিনার নেয়ারও কারণ দেখেননি তারা। ধনাঞ্জয়া ডি সিলভা অফস্পিন করে থাকেন। এছাড়া থারাঙ্গা, চান্দিমাল ও গুনাথিলাকার বাদ পড়াটা আলোচনার জন্ম দিয়েছে। জীবন, জেফরি ও থিরিমান্নে সুযোগ পেয়েও আশ্চর্য করেছেন। এছাড়া নির্বাচকরা রেখেছেন ২১ বছর বয়সী আভিস্কা ফার্নান্দো এবং পেসার নুয়ান প্রদীপকে।

শ্রীলঙ্কার বিশ্বকাপ স্কোয়াড ॥ দিমুথ করুনারত্নে (অধিনায়ক), এ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস, লাসিথ মালিঙ্গা, কুশল পেরেরা, লাহিরু থিরিমান্নে, আভিস্কা ফার্নান্দো, কুশল মেন্ডিস, ধনঞ্জয়া ডি সিলভা, জেফরি ভেন্ডারসে, থিসারা পেরেরা, ইসুরু উদানা, সুরাঙ্গা লাকমাল, নুয়ান প্রদীপ, জীবন মেন্ডিস ও মিলিন্দা শ্রীবর্ধনে।