১৯ মে ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ফাইনালে উপস্থিত থাকবেন প্রধানমন্ত্রী

  • বঙ্গমাতা আন্তর্জাতিক ফুটবল

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ বঙ্গমাতা অনুর্ধ-১৯ নারী আন্তর্জাতিক গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনালে উপস্থিত থাকবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, সেটা নিশ্চিত করেছে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে)। তবে লন্ডন থেকে ট্রফি দেশে চলে এলেও এখনও প্রাইজমানি ঠিক করেনি ফেডারেশন। তবে বাফুফের একটি সূত্র জানিয়েছে- চ্যাম্পিয়ন এবং রানার্সঅপ দলকে যথাক্রমে ১৫ হাজার ও ১০ হাজার ডলার অর্থ পুরস্কার দেয়া হবে।

বিনা টিকেটে ম্যাচ দেখার সুযোগ পাবে স্কুল শিক্ষার্থীরা। তবে সাধারণ দর্শকদের ৫০ এবং ২০০ টাকা মূল্যের টিকেট কিনে খেলা দেখতে হবে। টিকেট পাওয়া যাবে বাফুফে ভবনে এবং বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামের গেটগুলোতে।

এই টুর্নামেন্টের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে দেখা যেতে পারে ফিফা কিংবা এএফসির বড় কোন কর্মকর্তাকে। খেলোয়াড়দের নিরাপত্তা ইস্যুতে সব মন্ত্রণালয়কে কাজ বুঝিয়ে দেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে বাফুফে।

লন্ডনের বিখ্যাত ট্রফি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ইনকারমেন্টের তৈরি ট্রফির আনভেলিং সিরোমনি আয়োজন করবে বাফুফে। বাফুফের সাধারণ সম্পাদক আবু নাইম সোহাগ জনকণ্ঠকে জানান, টুর্নামেন্টের ট্রফিটি তৈরি করা হয়েছে সোনার প্রলেপ দিয়ে। এছাড়া চ্যাম্পিয়ন দলকেও দেয়া হবে সোনার মেডেল।

তবে টুর্নামেন্টটি বিঘ্নিত হতে পারে ঝড়-বৃষ্টি-বজ্রপাতে। সামান্য বৃষ্টি হলেই বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামের মাঠটি জলমগ্ন হয়ে খেলার অনুপযোগী হয়ে পড়ে। তখন জল নিষ্কাশন করতে বাফুফেকে অবলম্বন করতে হয় প্রাচীন পদ্ধতি, যেটা চলমান বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগের কয়েকটি ম্যাচেই দেখা গেছে। সেটা হলো- বল বয়রা হার্ডবোর্ড দিয়ে মাঠের জল হাতে সেচে সরায়। কিন্তু তাতে খেলা শুরু করতে ঘণ্টাখানেক লেগে গেছে। বঙ্গমাতা টুর্নামেন্টেও কি এমন দৃশ্য দেখা যাবে? বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামের মাঠটির জল নিষ্কাশন পদ্ধতিতে সমস্যা আছে। এই সমস্যা অনেক পুরনো। এই সমস্যা সমাধানের জন্য আমরা অনেক বছর ধরেই বলে আসছি জাতীয় ক্রীড়া পরিষদকে। কিন্তু তারা সেটা ঠিক করেনি। এখন বঙ্গমাতা টুর্নামেন্টের খেলাগুলোতে বৃষ্টি হলে ও মাঠ জলমগ্ন হয়ে পড়লে মাঠ খেলার উপযোগী করে তুলতে বাফুফে তাদের নিজস্ব পদ্ধতিতে জল নিষ্কাশন করার চেষ্টা করবে। এ জন্য আমরা প্রয়োজনীয় জনবল ও দেশীয় প্রযুক্তি ব্যবহার করব। আশা করছি কোন সমস্যা হবে না সোহাগের উত্তর।