২০ অক্টোবর ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

লালমনিরহাটে প্রকৌশলীকে পেটানো মামলায় স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা গ্রেফতার

লালমনিরহাটে প্রকৌশলীকে পেটানো মামলায় স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা গ্রেফতার

নিজস্ব সংবাদদাতা, লালমনিরহাট ॥ নিম্নমানের কাজের অভিযোগ তুলে জেলার আদিতমারী উপজেলায় উপ-সহকারী প্রকৌশলীকে মারধর ও চাঁদাবাজির মামলায় জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ-সভাপতি একেএম হুমায়ুন কবিরকে(৪১) গ্রেফতার করে রবিবার জেলহাজতে পাঠায় পুলিশ।

আদিতমারী থানার ওসি মাসুদ রানা জানান, লালমনিরহাট জেলা শহরের সরকারি মজিদা খাতুন মহিলা কলেজ সংলগ্ন এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করে রবিবার সকালে আদালতে সোপর্দ করা হয়। হুমায়ুন কবির আদিতমারী উপজেলার সারপুকুর ইউনিয়নের সরলখাঁ গ্রামের বাসিন্দা ও জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ-সভাপতি।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার সারপুকুর ইউনিয়নের সরলখাঁ উচ্চ বিদ্যালয় সংলগ্ন এলাকায় একটি রাস্তার কার্পেটিং এর কাজ বাস্তবায়ন করছে উপজেলা প্রকৌশলী অধিদপ্তর। সড়কটির কার্পেটিং কাজের শুরুতেই গত বৃহস্পতিবার জেলা স্বেচ্ছেসেবক লীগের সহ-সভাপতি একেএম হুমায়ুন কবির ও তার লোকজন কাজের মান নিম্নমানের নিয়ে প্রশ্ন তুলে ৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন।

এসময় কাজের তদারকির দায়িত্বে থাকা আদিতমারী উপজেলার উপ-সহকারী প্রকৌশলী জাকিরুল ইসলাম (৪৮) ও কার্য সহকারী আশরাফুল আলমের উপর হামলা চালায়। পরে আহত অবস্থায় তাদেরকে উদ্ধার করে প্রথমে আদিতমারী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে কার্য সহকারী আশরাফুলকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয় এবং উপ-সহকারী প্রকৌশলী জাকিরুলকে লালমনিরহাট সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার রাতেই প্রকৌশলী জাকিরুল বাদী হয়ে জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা হুমায়ুন কবির ও তার ছোট ভাই রাশেদুজ্জান রাশেদসহ অজ্ঞাত ১০/১২ জনের নামে একটি মামলা দায়ের করেন। এ মামলায় কবিরকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

এদিকে, এঘটনায় দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গ ও সংগঠনবিরোধী কার্যকলাপের অভিযোগে জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ-সভাপতির পদ থেকে হুমায়ুন কবীরকে সাময়িকভাবে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি সাইফুল ইসলাম।

এই মাত্রা পাওয়া