১৮ অক্টোবর ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

৩০ বছর পর শিকলমুক্ত

৩০ বছর পর শিকলমুক্ত

স্টাফ রিপোর্টার, মুন্সীগঞ্জ ॥ মুন্সীগঞ্জের মিরকাদিম পৌরসভার উত্তর রাম গোপালপুর গ্রামের বৃদ্ধ রামা সাহা ৩০ বছর পর শিকলবন্দী থেকে মুক্ত হয়েছেন। শনিবার বিকেলে মুন্সীগঞ্জের পুলিশ প্রশাসন শিকলবন্দী রামা সাহার তালা ভেঙ্গে উদ্ধার করে। এদিকে দীর্ঘ ৩০ বছর বৃদ্ধকে শিকলে বেঁধে রাখার অভিযোগে তার ভাবি গৌরী রানী সাহাকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। এ ঘটনায় তার বিরুদ্ধে সদর থানা পুলিশ অবৈধভাবে আটক করে রাখার অপরাধে মামলা দায়ের করেছেন বলে জানিয়েছেন সদর থানার ওসি (তদন্ত) গাজী সালাহউদ্দিন।

জানা গেছে, শুক্রবার (১৯ শে এপ্রিল) বিষয়টি প্রশাসনের নজরে আসে। পরে শনিবার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমানের হস্তক্ষেপে হাতিমারা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের সদস্যরা রামা সাহাকে উদ্ধারে মাঠে নামে। রামা সাহার বাড়ি গিয়ে পরিত্যক্ত একটি জরাজীর্ণ ঘর থেকে তালা ভেঙ্গে তাকে বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে উদ্ধার করে। পরে তার স্বাস্থ্য পরীক্ষা করতে মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। হাসপাতালের জরুরী বিভাগের চিকিৎসক এ এস এম ফেরদৌস রামা সাহাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেন। চিকিৎসক জানান, দীর্ঘবছর বন্দী জীবনযাপন করায় রামা সাহা কিছুটা মানসিকভাবে বিপর্যস্ত। তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে এবং ওষুধ লিখে দেয়া হয়েছে।

হাতিমারা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জানিয়েছেন, উর্ধতন কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে সংবাদ পেয়ে অভিযানে নেমে রামা সাহাকে শিকলমুক্ত করে উদ্ধার করা হয়েছে। প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এদিকে সম্পত্তির লোভে ৩০ বছর ধরে শিকলবন্দী করে রাখার অভিযোগ করেছেন রামা সাহা। কিশোর বয়সে পিতা গৌরাঙ্গ সাহা মারা গেলে সংসারের হাল ধরেন রামা সাহা। বরিশালের আঞ্জুরহাট থেকে ধান-ডাল এনে মিরকাদিম বন্দরের আড়তে তা বিক্রি করতেন রামা সাহা। সম্পত্তির কারণে জীবনের সোনালী সময় শিকলবন্দী থেকে তিনি এখন বৃদ্ধ। রামা সাহার আত্মীয়স্বজনদের দাবি, বরিশালে ব্যবসা করতে গিয়ে মারধরের শিকার হয়ে রামা সাহা মানসিক ভারসাম্য হারায়। ছেড়ে দিলে অত্যাচার ও উৎপাত করে। এই জন্য তাকে বেঁধে রাখা হয়েছে।