২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

গ্রামীণ জনপদে সুইমিং পুল, বিভিন্ন রাইড ও খেলনা

গ্রামীণ জনপদে সুইমিং পুল, বিভিন্ন রাইড ও খেলনা

স্টাফ রিপোর্টার ॥ শহরের কোলাহল ছেড়ে গ্রামীণ জনপদে বিনোদন প্রেমী ও ভ্রমন পিপাসুদের জন্য সুইমিং পুল, রিসোর্টসহ দেশ-বিদেশের নামীদামী পার্কের আদলে ফারিহা গার্ডেনের মধ্যকার সু-বিশাল লেকের চারিপাশে রোপন করা হয়েছে বিভিন্ন প্রজাতের দুর্লভ গাছপালা, লতা ও ফুলগাছ। গার্ডেনের মধ্যে রোপিত নানা প্রজাতির ফুল গাছে দৃষ্টিনন্দন ফুল ফুটেছে।

গ্রামের শিশু-কিশোরদের বিনোদনের জন্য এরইমধ্যে গার্ডেনের মধ্যে কৃত্রিম পশু-পাখি যেমন-বাঘ, হরিন, হাতি, জাতীয় পাখি দোয়েল, মাছরাঙা, উট পাখি, জিরাফ, জেব্রাসহ বিভিন্ন প্রানীর ম্যুরাল স্থাপনের পাশাপাশি অসংখ্য স্ট্যাচু দিয়ে সাড়ে সাত একর জমিকে প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের লীলাভূমির ন্যায় সাজানো হয়েছে অপরূপ সাজে। কয়েকদিনের মধ্যেই এখানে স্থাপন করা হবে শিশু-কিশোরদের বিনোদনের বিভিন্ন রাইডসহ দেশ-বিদেশের অসংখ্য খেলনা সামগ্রী।

গ্রামের মধ্যবিত্ত ও দরিদ্র পরিবারের শিশু-কিশোররা অনেক সময় অর্থাভাবে দুরবর্তী কোথাও বিনোদনে যেতে পারেনা। তাই গ্রামের ওইসব সাধারণ মানুষের কথা চিন্তা করেই গ্রামীণ জনপদে সুইমিং পুল, রিসোর্টসহ দেশের নামীদামী পার্কের আদলে অপূর্ব সব নৈশর্গিক দৃশ্যে ঘেরা বিনোদনমূলক ফারিহা গার্ডেন নির্মান করা হচ্ছে। ইতোমধ্যে গার্ডেনের ৬০ শতাংশ কাজ সম্পন্ন করা হয়েছে। খুবশীঘ্রই গার্ডেনটি বিনোদন প্রেমীদের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হবে।

সৌন্দর্য মন্ডিত এ গার্ডেনে একবার আসলে আর ফিরে যেতে মন চায়না। অজপাড়া গাঁয়ের এ গার্ডেনের অমোঘ সৌন্দর্যের আকর্ষণ অগ্রাহ্য করা সত্যিই কঠিন। তাইতো আনুষ্ঠানিকভাবে ফারিহা গার্ডেনটি উদ্বোধনের আগেই প্রতিনিয়ত দর্শনার্থীদের ভীড় বেড়েই চলেছে। একমাত্র বিনোদনের জন্য শিশু-কিশোর, তরুন-তরুনী থেকে শুরু করে সকল বয়সের নারী-পুরুষের সরগরম উপস্থিতি গার্ডেন নির্মাতাকে বিমহিত করেছে।

কোন ব্যবসায়ীক উদ্দেশ্যে নয়; শুধুমাত্র অর্থাভাবে বিনোদনের জন্য দুরবর্তী কোথাও যেতে না পেরে সকল ধরনের বিনোদন বঞ্চিত গ্রামের মধ্যবিত্ত ও দরিদ্র পরিবারের শিশু-কিশোরসহ সব বয়সের মানুষের কথা চিন্তা করেই বরিশালের গৌরনদী, আগৈলঝাড়া, উজিরপুর, বাবুগঞ্জ, পাশ্ববর্তী মাদারীপুর জেলার কালকিনি উপজেলাসহ ডাসার থানার বিনোদন প্রেমীদের জন্য গ্রামীণ জনপদের অত্যাধুনিক ফারিহা গার্ডেনে সুইমিং পুল, রিসোর্টসহ দেশের নামীদামী পার্কের আদলে গড়ে তোলা হচ্ছে।

গৌরনদী উপজেলা নির্বাহী অফিসার খালেদা নাছরিন বলেন, শিশু-কিশোর থেকে শুরু করে সকল বয়সের মানুষের চিত্ত বিনোদনের জন্য অজপাড়া গাঁয়ে হলেও এতদাঞ্চলের সকল বয়সের মানুষের কাছে অত্যাধুনিক ফারিহা গার্ডেনটি বিনোদনের নতুন মাত্রা যোগ করবে।