২১ মে ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

যেখানে রোনাল্ডোই প্রথম

  • কোহিনুর আক্তার

বর্তমান বিশ্ব ফুটবলের অন্যতম সেরা খেলোয়াড় ক্রিস্টিয়ানো রোনাল্ডো। অসাধারণ সব পারফর্মেন্স উপহার দিয়ে নিজেকে নিয়ে গেছেন অন্য এক উচ্চতায়। সর্বশেষ জুভেন্টাসের জার্সিতে ইতালিয়ান সিরি’এ লীগের শিরোপা জিতলেন সিআর সেভেন। সেই সঙ্গে গড়লেন নতুন ইতিহাস। বিশ্বের প্রথম ফুটবলার হিসেবে তিন লীগের শিরোপা জয়ের অনন্য রেকর্ড গড়লেন ক্রিস্টিয়ানো রোনাল্ডো।

ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগের ইতিহাসের সবচেয়ে সফল ক্লাব ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে দারুণ সময় কেটেছে রোনাল্ডোর। ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের জার্সিতে তিন তিনটি লীগ শিরোপা জয়ের স্বাদ পান তিনি। এরপর নতুন করে ঠিকানা গড়েন স্পেনের জায়ান্ট ক্লাব রিয়াল মাদ্রিদে। স্প্যানিশ লা লিগায় রিয়াল মাদ্রিদকে একাধিকবার শিরোপা জিতিয়েছিলেন ক্রিস্টিয়ানো রোনাল্ডো। এবার ইতালিয়ান সিরি’এ তে জুভেন্টাসকে শিরোপা জিতিয়েছেন তিনি। তাতেই ইতিহাসের প্রথম ফুটবলার হিসেবে ইউরোপের শীর্ষ তিন লীগ জেতা হয়ে যা তার। শনিবার শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে ফিওরেন্টিনাকে ২-১ গোলে হারিয়ে লীগ শিরোপা নিশ্চিত করে জুভেন্টাস।

গত সপ্তাহে চ্যাম্পিয়ন্স লীগে অ্যায়াক্সের বিপক্ষে ঘরের মাঠে হেরে হতাশা বেড়েছিল তুরিনের ক্লাবটির। এবার সেই ক্ষতে যেন একটুখানি প্রলেপ লাগল। তবে শিরোপা জেতা ম্যাচে গোল পাননি জুভেন্টাসের সেরা খেলোয়াড়। এমন ম্যাচের শুরতে ছিল ভিন্ন আভাস। ছয় মিনিটেই যে গোল খেয়ে বসে জুভেন্টাস, প্রথম আধাঘণ্টা প্রায় কোনঠাসাও হয়েছিল তারা। ৩৭ মিনিটে দলকে সমতায় ফেরান ব্রাজিলিয়ান এ্যালেক্স সান্দ্রো। বিরতির পর গোল পেতে পারতেন রোনাল্ডো। তিনি গোল না পেলেও সৌভাগ্যের গোল পায় তার দল ৫৩ মিনিটের সময় একজন কাটিয়ে ডি-বক্সে ঢুকে শট নিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু ফিওরেন্টার আর্জেন্টাইন ডিফেন্ডার হের্মান পেস্তাইরার পায়ে লেগে দিক বদলে গোলে ঢুকে যায় জালে। এর পরের সময়টাতে আর কোন গোল না হলে দলের জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে জুভেন্টাস। সেই সঙ্গে শিরোপা জয়ের উৎসবেও মাতে ম্যাসিমিলিয়ানো এ্যালেগ্রির দল। আর তাতেই রেকর্ডবুকে জায়গা করে নেন রোনাল্ডো। ইংল্যান্ড ও স্পেনে লীগ শিরোপা জেতার পর ইতালিতেও লিগ শিরোপা জিতলেন সিআর সেভেন। অসামান্য এই কীর্তি গড়ে দারুণ রোমাঞ্চিত রোনাল্ডো। ম্যাচের শেষে জুভেন্টাসের পর্তুগীজ সুপারস্টার জানালেন, ‘এটা আমার জন্য মানিয়ে নেওয়ার একটা বছর ছিল। বেশ ভাল কেটেছে, এ কথা বলাই যায়। আমি অনেক বেশি খুশি কারণ এই দলটা অনেক ভাল ও লীগ শিরোপা জেতার দাবিদার।’

তবে স্পেনের জায়ান্ট ক্লাব রিয়াল মাদ্রিদ থেকে রোনাল্ডোকে জুভেন্টাসে নিয়ে আসার মূল কারণ ছিল উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লীগ। কিন্তু আয়াক্সের কাছে হেরে যাওয়ার কারণে সে আশা অন্তত এই মৌসুমে পূরণ হবে না। এ নিয়ে কী ভাবছেন রোনাল্ডো? ‘আপনি সব সময়েই যে জিতবেন, সেটা সম্ভব না। চ্যাম্পিয়নস লীগ জেতার জন্য যা যা করার দরকার আমরা সবকিছুই করেছি। হয়তো সেটা লিগ জেতার জন্য যথেষ্ট ছিল না, শুধু একটা দলই এই শিরোপা জিততে পারে। সামনের বছরেও চ্যাম্পিয়নস লিগ জেতা সম্ভব। আমি হাজার শতাংশ নিশ্চিত, সামনের মৌসুমে জুভেন্টাসেই থাকব।’ রোনাল্ডোর ওপর বিশ্বাস রাখছেন জুভেন্টাসের কোচ এ্যালেগ্রিও। যে কারণেই চ্যাম্পিয়নস লীগে ক্লাবকে সাফল্য এনে না দিতে পারলেও ক্রিস্টিয়ানো রোনাল্ডোই জুভেন্টাসের ভবিষ্যত বলে মন্তব্য করেন ম্যাসিমিলিয়ানো এ্যালেগ্রি।

গত সপ্তাহে উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লীগের কোয়ার্টার ফাইনালে আয়াক্সের বিপক্ষে মৌসুমের ২৬তম গোল করেন রোনাল্ডো। কিন্তু ম্যাচটিতে ২-১ গোলে পরাজয়ের কারণে টুর্নামেন্টের শেষ আট থেকেই বিদায় নিতে হয়েছে তুরিন জায়ান্টদের। আর সেই হারের পরই গুঞ্জনের ডালপালা মেলতে শুরু করে। কেউ কেউ মনে করেন আসন্ন গ্রীষ্মকালীন দলবদলেই দলকে ঢেলে সাজানোর লক্ষ্যে ব্যপক অর্থ ব্যয় করতে যাচ্ছে জুভেন্টাস। বিশেষ করে আবারও চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সাফল্যই জুভদের জন্য বড় লক্ষ্য হয়ে দেখা দিতে পারে। এবারও একমাত্র এই লক্ষ্যকে সামনে রেখেই রিয়াল মাদ্রিদ থেকে জুলাইয়ে ১১২ মিলিয়ান ইউরোতে পর্তুগীজ সুপারস্টারকে দলে ভিড়িয়েছিল জুভেন্টাস। চার বছরের চুক্তিতে দলে আসলেও চ্যাম্পিয়ন্স লীগের ব্যর্থতায় ৩৪ বছর বয়সী রোনাল্ডোকে ছেড়ে দেবার গুঞ্জনও শুরু হয়। তবে এ্যালগ্রি এসব কথাকে উড়িয়ে দিয়ে বলেছেন, রোনাল্ডো শান্তই আছে। দলকে সামনে এগিয়ে নিয়ে যাবার জন্য সেই জুভেন্টাসের সবচেয়ে বড় অস্ত্র। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘ইতালিতে রোনাল্ডোর দারুণ একটি মৌসুম কেটেছে। চ্যাম্পিয়নস লিগ শেষ হয়ে গেছে। রোনাল্ডো কিংবা জুভেন্টাস কেউই চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গ্যারান্টি দিতে পারে না। ফুটবলে অনেক নিয়ামক রয়েছে যা যে কোন সময় সামনে চলে আসতে পারে। রোনাল্ডো জুভেন্টাসের ভবিষ্যৎ। এ বছর সে ভাল খেলেছে। আশা করছি সামনের বছরও সে এই ধারাবাহিকতা বজায় রাখবে। অবশ্যই চ্যাম্পিয়ন্স লীগের ব্যর্থতায় সে হতাশ। তবে এটা অন্য সকলের মতই স্বাভাবিক বিষয়।’

এদিকে, ফিওরেন্টিনাকে হারিয়ে টানা আটবার সিরি’এ লীগের চ্যাম্পিয়ন হওয়ার রাতেই নাকি বিতর্কের জন্ম দিয়েছেন রোনাল্ডো! শিরোপা উৎসবের আনন্দে মাঠের মধ্যেই উৎসব শুরু করে দেন জুভেন্টাসের ফুটবলাররা। রোনাল্ডোকে দেখা গেছে শ্যাম্পেনের বোতলে চুমুক দিতে। এই ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হতেই বিতর্কের শুরু। অনেকে লিখেছেন, ‘রোনাল্ডো মদ্যপান করেন না বলে দাবি করেন ভক্তরা। কারণ, সি আর সেভেনের বাবা মদ্যপ ছিলেন।’ কেউ কেউ লিখেছেন, ‘এটা কী হচ্ছে? রোনাল্ডো নাকি মদ্যপান করেন না?’ তবে যাকে নিয়ে বিতর্ক, সেই রোনাল্ডো বেশ খোশমেজাজেই আছেন। ম্যাচের পর তিনি বলেছেন, ‘ইতালির সুপার কাপও জিতেছি। এক জন ফুটবলারের কাছে এর চেয়ে বড় প্রাপ্তি আর কী হতে পারে।’ শুধু তাই নয়, রোনাল্ডো যে জুভেন্টাসেই থাকছেন ভক্ত-অনুরাগীদের সেটাও নিশ্চিত করে দিয়েছেন। সিরি’এ লীগে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার রাতেই রোনাল্ডোর ঘোষণা, ‘এক হাজার শতাংশ আমি জুভেন্টাসেই থাকছি। ক্লাব ছাড়ার কোনও প্রশ্নই নেই।’