২০ মে ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বাঁশখালীতে হত্যা মামলা করে পালিয়ে বেড়াচ্ছে পরিবার

নিজস্ব সংবাদদাতা, বাঁশখালী, ২৪ এপ্রিল ॥ কৃষি ও রাজমিস্ত্রির কাজ করে পরিবার পরিজন নিয়ে শান্তিতে বসবাস করতেন ১৫ এপ্রিল প্রতিপক্ষের হাতে খুন হওয়া আবুল কালাম। হিং¯্র প্রতিপক্ষ হত্যা করেই ক্ষান্ত হয়নি। প্রতিনিয়ত নিহতের পরিবারের বাকি সদস্যদের মামলা তুলে নিতে প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে আসছে। এদিকে খুনের ঘটনায় নিহতের বড় ভাই আবুল হাসান বাদী হয়ে নুর মোহাম্মদকে প্রধান আসামি করে ২১ জনের নাম উল্লেখ করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করে। মামলা করায় প্রতিপক্ষের প্রতিনিয়ত প্রাণনাশের হুমকিতে বাড়িঘর ছেড়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন নিহতের পরিবারের সদস্যরা। ঘটনাটি ঘটেছে চট্রগ্রামের বাঁশখালী উপজেলার সরল ইউনিয়নের দক্ষিণ সরল আবদুল সোবাহান মিয়াজি বাড়িতে। তাছাড়া নিহতের মা, স্ত্রী ও সন্তানেরা প্রাণনাশের ভয়ে অসহায় হয়ে পড়েছে।

তাদের জীবনে নেমে এসেছে চরম দুর্ভোগ। এ ঘটনায় মঙ্গলবার বিকেলে নিহতের ছোট ভাই মোহাম্মদ মাহফুজ পরিবারের সদস্যদের জানমালের নিরাপত্তা চেয়ে একটি সাধারণ ডায়েরি করেছে। এ ব্যাপারে বাঁশখালী থানা পুলিশের ওসি (তদন্ত) মোঃ কামাল উদ্দিন বলেন, খুনের শিকার আবুল কালামের পরিবারের সদস্যদের নিরাপত্তার জন্য পুলিশ সর্বদা কাজ করে যাচ্ছে।

তবে এ ঘটনায় ১ জনকে আটক করা হলেও বাকি আসামিদের ধরতে পুলিশ মাঠে কাজ করছে বলে তিনি জানান।

স্থানীয় ও জিডি সূত্রে জানা যায়, সরল ইউপির ১নং ওয়ার্ডের মৃত মাস্টার কবির আহমদের পুত্র আবুল কালাম ১০ নবেম্বর ২০১৮ সালে বাদী হয়ে একই এলাকার মৃত শামসুল ইসলামের পুত্র নুর মোহাম্মদকে প্রধান আসামি করে ২২ জনের নাম উল্লেখ করে বাঁশখালী থানায় ৫০৬ (২) পেনাল কোডের ২৬ ধারায় (অঙ্গহানি) নিয়মিত মামলা দায়ের করে।