২১ মে ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

আজ বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ কিরগিজস্তান

আজ বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ কিরগিজস্তান

রুমেল খান ॥ তিন বছর আগে যে প্রতিপক্ষকে একবার বিপুল ব্যবধানে হারানোর অভিজ্ঞতা হয়েছিল, আজ সেই একই প্রতিপক্ষকে একই মাঠে হারানোর মিশন নিয়ে নামবে বাংলার বাঘিনীরা। পার্থক্য হলো ২০১৬ সালে সেই ম্যাচটি ছিল ‘এএফসি অনুর্ধ-১৬ মহিলা চ্যাম্পিয়নশিপ বাছাইপর্বের গ্রুপ ম্যাচে। আর এবারের লড়াই বঙ্গমাতা অনুর্ধ-১৯ নারী আন্তর্জাতিক গোল্ডকাপ’-এর গ্রুপ ম্যাচে। আরেকটা পার্থক্য আছে, তিন বছর আগে সেই ম্যাচটি ছিল অনুর্ধ-১৬ পর্যায়ে, এবারের লড়াই অনুর্ধ-১৯ পর্যায়ে। আজ শুক্রবার ঢাকার বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে সন্ধ্যা ৬টায় স্বাগতিক বাংলাদেশ মোকাবেলা করবে প্রতিপক্ষ কিরগিজস্তানকে।

বঙ্গমাতা অনুর্ধ-১৯ ফুটবলের চলতি আসরে প্রথম ম্যাচ জিতে বাংলাদেশ-কিরগিজস্তান উভয় দেশই আগেই শেষ চারে নাম লেখানো নিশ্চিত করে ফেলে। তাই দু’দলের মধ্যে অনুষ্ঠিত আজকের লড়াইটি হবে মূলত গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন হবার।

‘বি’ গ্রুপে কিরগিজস্তান পয়েন্ট টেবিলে আছে দ্বিতীয় স্থানে। স্বাগতিক বাংলাদেশ দলেরও সমান পয়েন্ট। তবে গোল গড়ে এগিয়ে থাকায় (+২) তারাই আছে এক নম্বরে, আর কিরগিজরা আছে তাদের নিচে (+১)। বাংলাদেশ তাদের প্রথম ম্যাচে ২-০ গোলে হারিয়েছিল মধ্যপ্রাচ্যের দেশ আমিরাতকে। একই দলকে কিরগিজস্তান হারিয়েছিল ২-১ গোলে।

পয়েন্ট টেবিলে গোল গড়ে এগিয়ে স্বাগতিকরা। তাই ড্র করলেও গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হবে বাংলাদেশই। তবে দলের কোচ গোলাম রব্বানী ছোটন ড্র নয় জিতেই চান গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হতে, গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার চেষ্টা করব। সেই লক্ষ্য নিয়েই মাঠে নামব।

এর আগেও কিরগিজদের সঙ্গে খেলেছে বাংলার বাঘিনীরা। তবে সেটা অনুর্ধ-১৬ পর্যায়ে (এএফসি অনুর্ধ-১৬ মহিলা চ্যাম্পিয়নশিপ বাছাইপর্ব আসরের ‘সি’ গ্রুপে) ২০১৬ সালের ৩১ আগস্ট এই বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামেই অনুষ্ঠিত ওই ম্যাচে প্রতিপক্ষকে স্রেফ ‘কচুকাটা’ করেছিল লাল-সবুজরা। জিতেছিল ১০-০ গোলে। ওই ম্যাচে হ্যাটট্রিক করেছিলেন দলের অধিনায়ক কৃষ্ণা রানী সরকার। এছাড়া জোড়া গোল করেছিলেন আনুচিং মগিনি এবং শামসুন্নাহার সিনিয়র। ১টি করে গোল করেছিলেন মারজিয়া আক্তার, নার্গিস খাতুন এবং মারিয়া মান্দা। ওই ম্যাচের আনুচিং বাদে বাকি গোলদাতারা আজকের ম্যাচে বাংলাদেশ অনুর্ধ-১৯ দলের হয়ে খেলবেন।

প্রতিপক্ষ কিরগিজদের সমীহ করছে বাংলাদেশ দল। তবে নিজেদের জয়ের ব্যাপারেও যথেষ্ট আত্মবিশ্বাসী তারা। এ নিয়ে তারা যথেষ্ট ‘হোমওয়ার্ক’ও করেছে বলে দাবি করেছে। বাংলাদেশ দল তাদের দ্বিতীয় ম্যাচটি যেখানে খেলছে চারদিনের ব্যবধানে সেখানে কিরগিজস্তান তাদের দ্বিতীয় ম্যাচটি খেলবে দুইদিনের ব্যবধানে। ফলে বাংলাদেশ দল বেশি বিশ্রাম পাওয়ায় প্রতিপক্ষ দলের চেয়ে বেশি সতেজ অবস্থায় খেলতে নামবে আজ। যা তাদের জন্য বাড়তি সুবিধা। এছাড়া মাঠ, আবহাওয়া ও দর্শকও তাদের অনুকূলে।

এখন দেখার বিষয় আজকের ম্যাচে এসব কিছুকে কাজে লাগিয়ে কিরগিজদের হারিয়ে গ্রুপসেরা হতে পারে কি না বাংলাদেশ।