২৫ মে ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

প্রধানমন্ত্রীর নামের বানান ভুল লেখা নিয়ে তোলপাড়

স্টাফ রিপোর্টার ॥ জাতীয় স্বাস্থ্য সপ্তাহ যথাযথভাবে পালন করতে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় থেকে দেশের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠানের জন্য জারি করা আদেশে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নামের বানান ভুল লেখা নিয়ে সমালোচনার ঝড় উঠেছে। মন্ত্রণালয়ের জারি করা আদেশে প্রধানমন্ত্রীর নাম লেখা হয়েছে ‘শেখা হাসিনা’। বৃহস্পতিবার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত সাংবাদিকরা প্রশ্ন উত্থাপন করলে বিষয়টি মন্ত্রী, সচিবসহ মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের নজরে আসে। বিষয়টি খতিয়ে দেখার আশ্বাস দিয়েছেন স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিব মোঃ আসাদুল ইসলাম।

বেসরকারী মেডিক্যাল কলেজ, হাসপাতাল ও ক্লিনিক কর্তৃপক্ষকে জাতীয় স্বাস্থ্যসেবা সপ্তাহ যথাযথভাবে পালনের নির্দেশনা দিয়ে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় থেকে জারি করা আদেশে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নামের বানান ভুল করে ‘শেখা হাসিনা’ লেখা হয়েছে। গত ১৫ এপ্রিল স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের যুগ্ম-সচিব আবদুল ওহাব খানের স্বাক্ষরে ওই আদেশ জারি করা হয়।

দেশের সব বেসরকারী মেডিক্যাল কলেজ, হাসপাতাল ও ক্লিনিক কর্তৃপক্ষকে উদ্দেশ করে ওই চিঠিতে লেখা হয়, ‘সরকারের সিদ্ধান্তের প্রেক্ষিতে দেশে প্রথমবারের মতো জাতীয় স্বাস্থ্যসেবা সপ্তাহ পালন করার লক্ষ্যে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় সার্বিক প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে। আগামী ১৬ এপ্রিল মঙ্গলবার বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে মাননীয় ‘প্রধানমন্ত্রী শেখা হাসিনা’ স্বাস্থ্যসেবাÑ২০১৯ এর শুভ উদ্বোধন করবেন।

প্রধানমন্ত্রীর নামের বানান ভুল করার পাশাপাশি ওই চিঠির পরতে পরতে বানান ভুলভাবে লেখা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর নামের বানানে ভুল করে জারি করা ওই চিঠির বিষয়ে বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে কমিউনিটি ক্লিনিক প্রতিষ্ঠা দিবস উপলক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক, স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিব আসাদুল ইসলাম, স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডাঃ আবুল কালাম আজাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন উপস্থিত সাংবাদিকরা। স্বাস্থ্যমন্ত্রী ও মহাপরিচালক কোন মন্তব্য করেননি। তবে স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিব আসাদুল ইসলাম বলেন, তারা বিষয়টি দেখবেন।

ওই আদেশের অনুলিপি স্বাস্থ্যমন্ত্রীর একান্ত সচিব, প্রতিমন্ত্রীর একান্ত সচিব, স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিবের একান্ত সচিবকে দেয়া হয়েছে। এছাড়া দেশের সব বেসরকারী মেডিক্যাল কলেজ, হাসপাতাল ও ক্লিনিকে বিতরণের জন্য ওই চিঠি সিভিল সার্জন ও উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কর্মকর্তাদের পাঠানো হয়। গুরুত্বপূর্ণ অফিসিয়াল আদেশে প্রধানমন্ত্রীর নামের ‘ভুল বানান’ স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের কারও নজরে না আসায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত সাংবাদিকরা।