২৫ মে ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

চ্যাম্পিয়ন কুমিল্লার শাহজালাল

চ্যাম্পিয়ন কুমিল্লার শাহজালাল
  • জব্বারের বলীখেলা

স্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম অফিস ॥ চট্টগ্রামের ইতিহাস আর ঐতিহ্য টিকিয়ে রাখতে বৈশাখী মেলা। আর এ মেলা জমে উঠে জব্বারের বলীখেলাকে ঘিরে। জেলার লালদীঘি মাঠে আব্দুল জব্বারের বলীখেলার ১১০তম আয়োজন সম্পন্ন হয়েছে। ১০৯ বছর আগে বনেদী ব্যবসায়ী আব্দুল জব্বার এই আয়োজন শুরু করেন। এবার চ্যাম্পিয়ন কুমিল্লা থেকে আসা শাহজালাল বলী। তাকে ২০ হাজার টাকা নগদ সম্মানী দেয়া হয়েছে। অপরদিকে রানার আপ হয়েছে কক্সবাজারের চকরিয়ার জীবন বলী। তাকে দেয়া হয়েছে ১৫ হাজার টাকা। সাধারণ বাউটে বিজয়ী ৩১ জনকে ক্রেস্ট ও মেডেল দেয়া হয়েছে।

এদিকে, পাঁচদফা থেমে সর্বশেষ বিচারকদের শেষ ১০ মিনিটের সিদ্ধান্তের মধ্যেই কুপোকাত হয়েছে রানার্স আপ জীবন বলী। প্রায় ৩২ মিনিট ধরে কৌশলের এই খেলা খেলেছে সেয়ানে সেয়ানে। বৃহস্পতিবারের আয়োজনে সাধারণ ও চ্যালেঞ্জিং বাউটে ৭০ জন বলী অংশ নিয়েছে। এরমধ্যে চ্যালেঞ্জিং বাউটে খেলেছে ৮ জন। এই খেলাকে ঘিরে মেলার আয়োজনও চলছে।

বলী খেলা পরিচালনা করেন রেফরি ও সাবেক কাউন্সিলর এম এ মালেক। মোবাইল অপারেটর গ্রামীণ ফোনের অর্থায়নে আয়োজিত আব্দুল জব্বারের স্মৃতি কুস্তি প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করবেন চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার মাহাবুবর রহমান। কুস্তি শেষে বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন প্রধান অতিথি ও সাবেক প্যানেল মেয়র চৌধুরী মোহাম্মদ হাসনী।

গ্রাম বাংলা থেকেই বৈশাখী মেলার আয়োজন শুরু হলেও গ্রাম বাংলার চিরায়ত রূপসী সংস্কৃতির উল্লেখযোগ্য দিক ফুটিয়ে তুলতে চট্টগ্রামে সেই শতবর্ষ আগ থেকেই চলে আসছে ইতিহাস আর ঐতিহ্যের অবয়বে। মূলতঃ ১৯০৯ সালে সর্বপ্রথম এ মেলার আয়োজন করা হয় ঐতিহাসিক লালদীঘি মাঠে। এ খেলাকে ঘিরে চট্টগ্রামে সোমবার থেকে তিন দিনব্যাপী মেলার আয়োজন শুরু হয়েছে ঐতিহাসিক লালদীঘি ময়দানের আশপাশ এলাকায়। দেশের অজপাড়া গাঁয়ে তৈরি হস্তশিল্পের বিশাল সমাহার এ মেলায়। ক্ষুদ্র ও কুটিরশিল্পের সঙ্গে জড়িত ব্যবসায়ীরা তাদের পসরা নিয়ে গত তিনদিন ধরে এ চত্বরকে ঘিরে নিজেদের অবস্থান ঠিক করে নিয়েছে।