২৫ মে ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

গণতন্ত্র স্বৈরতন্ত্রে পরিণত হতে পারে ॥ ড. কামাল

গণতন্ত্র স্বৈরতন্ত্রে পরিণত হতে পারে ॥ ড. কামাল

অনলাইন রিপোর্টার ॥ দেশের গণতন্ত্র স্বৈরতন্ত্রে পরিণত হতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন। শুক্রবার ঢাকা মহানগর নাট্য মঞ্চে গণফোরামের বিশেষ জাতীয় কাউন্সিলে তিনি একথা বলেন।

‘গণতন্ত্র উদ্ধারে জাতীয় ঐক্য তুলুন’ এই স্লোগানকে ধারণ করে গণফোরামের কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হচ্ছে। নেতাকর্মীদের উদ্দেশে কামাল হোসেন বলেন, ‘ক্ষমতার উৎস হলো জনগণ। সুতরাং আপনাদের দেখতে হবে, যারা ক্ষমতায় তারা কী দেশের স্বার্থে নাকি নিজের স্বার্থে কাজ করছেন, নাকি অন্য কিছু করছেন। উল্টো কিছু করলে সংগঠিত হয়ে তাদেরকে থামাতে হবে। কারণ জনগণ গণতন্ত্রের পাহারাদার। আর এই নাগরিকরা যদি দায়িত্ব পালন না করে তাহলে গণতন্ত্র স্বৈরতন্ত্রে পরিণত হতে পারে।’

সাবেক প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘প্রধান বিচারপতি জনগণের হয়ে যে রায়টা দিয়েছিলেন সেটা চিরস্মরণীয় থাকবে। তিনি ঐতিহাসিক ভূমিকা রেখে গেলেন। একথা শুনে যে আপনারা যে করতালি দিলেন, এটা উনাকে জানানো হবে।’

নেতাকর্মীদের উদ্দেশে ড. কামাল বলেন, ‘মালিক হিসেবে আপনাদের দেখতে হবে যে, সংবিধানে যা লেখা আছে- সে অনুযায়ী ক্ষমতাসীনরা রাষ্ট্র পরিচালনা করছে কিনা। আর প্রশাসন ও পুলিশের যে দায়িত্ব-কর্তব্য সেগুলোও সংবিধানে স্পষ্টভাবে লেখা আছে। পুলিশ এদেশের মালিক না, তারা সেবক। সুতরাং সংবিধান ও আইন অনুযায়ী তারা আইনশৃঙ্খলা রক্ষা করবেন। তাই আপনারা সতর্ক থাকবেন, যাতে পুলিশ তাদের দায়িত্বের বাইরে গেয়ে ক্ষমতায় অপব্যবহার করে অন্যায় ও অত্যাচার করতে না পারে।’

গণফোরাম সভাপতি বলেন, ‘অর্থের বিনিময়ে যদি কেউ ভোটকে বিক্রি করে,এর চেয়ে বড় অন্যায় আর হতে পারে না। অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন বলতে, সবাই নিজের নিজের ভোট দিতে পারবেন। সেই কারণে আমরা ভোট ও নির্বাচনের ওপর গুরুত্ব দিয়ে থাকি।’

কাউন্সিলের শুরুতে জাতীয় সংগীতের বাজিয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। এরপর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে ড. কামাল হোসেনসহ গণফোরামের প্রেসিডিয়াম সদস্যরা মঞ্চে আসন গ্রহণ করেন।

উদ্বোধন অনুষ্ঠানের প্রথমে গণফোরাম নেতা জগলুল হায়দায় আফ্রিক শোক প্রস্তাব পাঠ করেন।