১৮ অক্টোবর ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বঙ্গবন্ধুর নাম ব্যবহার করে কেউ যেন অবৈধ সুবিধা নিতে না পারে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

বঙ্গবন্ধুর নাম ব্যবহার করে কেউ যেন অবৈধ সুবিধা নিতে না পারে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

অনলাইন রিপোর্টার ॥ বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন ও বঙ্গবন্ধুর নাম ব্যবহার করে কেউ যেন ব্যবসা বা ব্যক্তিগত সুবিধা নিতে না পারে সেদিকে খেয়াল রাখার অনুরোধ জানিয়েছেন বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের সভাপতি ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ. কে. আব্দুল মোমেন । তিনি বলেন, ‘কেউ যদি এ ধরনের কাজের সঙ্গে জড়িত তাদের সঙ্গে আমার কোনও সম্পর্ক নেই।’

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে একথা জানানো হয়। শুক্রবার (২৬ এপ্রিল) ঢাকায় জাতীয় গণগ্রন্থাগারের ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে মুজিবনগর দিবস উপলক্ষে ‘বর্তমান সরকার মুজিবনগর সরকারের ধারাবাহিক সরকার’ শীর্ষক আলোচনা সভায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

বঙ্গবন্ধুর জন্ম শতবর্ষের ধারাবাহিক অনুষ্ঠানমালার অংশ হিসেবে বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে ড. মোমেন বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু তার শত্রুকেও সম্মান দিতেন। পররাষ্ট্রমন্ত্রী আশা প্রকাশ করেন, সবাই ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে একে অন্যকে সম্মান করবে। স্বাধীনতার চেতনা হলো সেই চেতনা যেখানে আমরা সহমর্মিতা সৃষ্টি করব। আমরা যে পথে হাঁটছি, সে পথে হাঁটলে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন অবশ্যই প্রতিষ্ঠিত হবে। বঙ্গবন্ধুর জীবনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ দু’টি বৈশিষ্ট্য। একটি হলো ন্যায্য অধিকারের জন্য সংগ্রাম এবং অপরটি হলো স্বাধীন সার্বভৌম দেশের জন্য সংগ্রাম ও বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠা।’

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ২০১৯ সালের ১৭ মার্চ থেকে ২০২০ সালের ১৭ মার্চ পর্যন্ত বিভিন্নভাবে বঙ্গবন্ধুর জন্ম শতবার্ষিকী উদযাপন করবে। ২০২১ সালে আমরা স্বাধীনতার ৫০ বছর উদযাপন করবো। বাংলাদেশের সব মিশনকে এ বিষয়ে ইতোমধ্যে জানানো হয়েছে। আমাদের দায়িত্ব হলো এ দু’বছর বঙ্গবন্ধুকে জানা, বাংলাদেশকে জানা, বাংলাদেশের অভাবনীয় সাফল্য বিভিন্নভাবে সভা, সমিতি, ওয়ার্কশপ, কনসার্ট ও লেখালেখির মাধ্যমে জনগণকে জানানো।’

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন বক্তৃতা করেন।