২২ অক্টোবর ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

শ্রীলঙ্কায় মসজিদ গির্জা এড়িয়ে চলার পরামর্শ

শ্রীলঙ্কার গোয়েন্দা সংস্থাগুলো গাড়িবোমা হামলার ঝুঁকির কথা জানানোর পর আপাতত মসজিদ বা গির্জায় জমায়েত না হয়ে বাড়িতেই প্রার্থনা সারার পরামর্শ দেয়া হচ্ছে। কলম্বোতে যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসও বিভিন্ন ধর্মীয় উপাসনালয়ে আরও হামলার আশঙ্কার কথা জানিয়ে তাদের নাগরিকদের সতর্ক করেছে। খবর ওয়েবসাইটের।

২১ এপ্রিল ইস্টার সানডের সকালে তিনটি গির্জা ও চারটি হোটেলে একযোগে আত্মঘাতী হামলার পর শ্রীলঙ্কায় জারি করা হয়েছে জরুরী“অবস্থা। ইস্টার সানডের হামলার পর শ্রীলঙ্কার সংখ্যালঘু মুসলমানরা পাল্টা সাম্প্রদায়িক সহিংসতার আশঙ্কার মধ্যে দিন কাটাচ্ছেন। বোমার ভয়ের পাশাপাশি গ্রেফতার-হয়রানি এড়াতে অনেকেই বাড়ি ছেড়ে পালাচ্ছেন। এই পরিস্থিতিতে দেশটিতে মুসলমানদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় সংগঠন অল সিলোন জমিয়াতুল উলামা শুক্রবার জুমার নামাজের জন্য মসজিদে না গিয়ে ঘরেই প্রার্থনা করার পরামর্শ দিয়েছে। ক্যাথলিক চার্চের কার্ডিনাল ম্যালকম রনজিতও একই ধরনের আহ্বান জানিয়েছেন শ্রীলঙ্কার খ্রীস্টানদের উদ্দেশে। পরবর্তী ঘোষণার আগ পর্যন্ত গির্জায় সমবেত না হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি।

এদিকে অস্ট্রেলিয়া বৃহস্পতিবার সতর্কতা উচ্চারণ করে বলেছে, শ্রীলঙ্কায় আরও সন্ত্রাসী হামলা হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। ইস্টার সানডে বোমা হামলার পর এ দ্বীপ রাষ্ট্রে ভ্রমণের বিরুদ্ধে নাগরিকদের সতর্ক করে দিয়ে দেশটি একথা বলেছে। খবর এএফপির।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এর সাম্প্রতিক ভ্রমণ পরামর্শে সতর্কতা প্রকাশ করে বলেছে, সন্ত্রাসীরা শ্রীলঙ্কায় আরও হামলা চালাতে পারে। মন্ত্রণালয় বলেছে, বিদেশীরা যে সকল স্থানে ভ্রমণে যান সেগুলোসহ যে কোন স্থানে নির্বিচার হামলা হতে পারে। ক্যানবেরা অস্ট্রেলীয়দের প্রতি পরামর্শে বলেছে, শ্রীলঙ্কা ভ্রমণে আপনার প্রয়োজনীয়তা সম্পর্কে আবারও ভাবুন। শ্রীলঙ্কায় ২১ এপ্রিল বোমা হামলার পর ব্রিটেন, নেদারল্যান্ডস ও যুক্তরাষ্ট্রের একই ধরনের সতর্কতা উচ্চারণের পর ক্যানবেরা এর নাগরিকদের এ পরামর্শ দিল।