২৩ অক্টোবর ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

আফ্রিদির ‘গেম চেঞ্জার’ বই নিষিদ্ধের দাবি

আফ্রিদির ‘গেম চেঞ্জার’ বই নিষিদ্ধের দাবি

অনলাইন ডেস্ক ॥ পাকিস্তানের সাবেক অলরাউন্ডর শহীদ আফ্রিদির আত্মজীবনীমূলক বই ‘গেম চেঞ্জার’ প্রকাশিত হয়েছে। আত্মজীবনী ‘গেম চেঞ্জার’ প্রকাশের সূত্র ধরে একটার পর একটা চাঞ্চল্যকর ও বিতর্কিত বিষয় সামনে আসছে। নিজের বয়স থেকে সাবেক সতীর্থদের বিষয়ে ইতিবাচক এবং নেতিবাচক অনেক কথাই বলেছেন বইতে।

বইটিতে সব অজানা তথ্য ফাঁস করে আলোড়ন সৃষ্টি করেছেন শহীদ আফ্রিদি। বাজারে এখন এর তুমুল চাহিদা। তবে বইটি কতদিন মার্কেটে থাকে তাই দেখার।

ইতোমধ্যে আফ্রিদির বই নিষিদ্ধের দাবিতে আবেদন করা হয়েছে। পাকিস্তানের সিন্ধু হাইকোর্টে (এসএইচসি) আর্জিটি করেছেন দেশটির বিশিষ্ট আইনজীবী আব্দুল জলিল খান। তিনি আবার বুমবুমখ্যাত ক্রিকেটারের পাঁড় ভক্ত। এ নিয়েও শুরু হয়েছে জল্পনা-কল্পনা।

আব্দুল জলিলের দাবি, আফ্রিদির ‘গেম চেঞ্জারে’ প্রচুর পরিমাণে মানহানিকর শব্দ ব্যবহার করা হয়েছে। পক্ষান্তরে সেসব সাবেক মহাতারকাদের সুনাম ক্ষুণ্ণ করে।

তিনি বলেন, কিংবদন্তি পাক ব্যাটসম্যান জাভেদ মিঁয়াদাদকে বোঝাতে ‘স্মল ম্যান’ এবং সাবেক ভারতীয় ওপেনার গৌতম গম্ভীরের ক্ষেত্রে ‘সরিয়ল’ (বদমেজাজী) শব্দ প্রয়োগ করেছেন আফ্রিদি। এসব মানহানিকর শব্দ। এর মাধ্যমে তিনি ভক্তদের মনে, পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) সম্মান এবং খেলাটির মর্যাদায় আঘাত করেছেন।

বলা বাহুল্য, মিঁয়াদাদ, গম্ভীরের পাশাপাশি ওয়াকার ইউনিস, ২০১০ আমিরদের স্পট ফিক্সিং, টিম ম্যানেজমেন্ট নিয়ে নেতিবাচক তথ্য উঠে এসেছে এতে।

নিজের আসল বয়স জানানোর পাশাপাশি ওয়াসিম আকরাম, ইমরান খান ও প্রয়াত কোচ বব উলমারের প্রশংসা করেছেন পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক। আফ্রিদির জীবনকাহিনী ও ক্যারিয়ারের বহু তথ্যসমৃদ্ধ বইটি লিখেছেন পাকিস্তানের বিখ্যাত সাংবাদিক ওজাহাত খান।

১৯৯৬ সালে ত্রিদেশীয় সিরিজে নাইরোবিতে জাতীয় দলে অভিষেক হয় আফ্রিদির। দ্বিতীয় ম্যাচেই ৩৭ বলে সেঞ্চুরি করে নিজের করে নেন সবচেয়ে দ্রুততম শতকের রেকর্ডটি। পাকিস্তানের হিসেবে মাত্র ১৬ বছরে সেঞ্চুরিটি করেছিলেন আফ্রিদি। কিন্তু আফ্রিদি এখন নিজেই জানাচ্ছেন রেকর্ডটি ছিল ২১ বছর বয়সে!

এদিকে দেশটির সংবাদমাধ্যম 'ডন' আফ্রিদি হিটস আউট বা আফ্রিদির আঘাত’ শিরোনামে লিখেছে, ‘ক্রিকেটার শহীদ আফ্রিদির বইটি অতীতের নায়কদের বিতর্ককে জাগিয়ে তুলেছে এবং আমাদের ক্রিকেট ইতিহাসের গুরুত্বপূর্ণ মুহূর্তে কর্তৃপক্ষের প্রতিক্রিয়া নিয়ে প্রশ্ন করেছে। কঠিন বিশ্বকাপ পরীক্ষায় নামার আগে সব পাকিস্তানির যখন নজর দেয়া প্রয়োজন ইংল্যান্ড সিরিজের দিকে। তখন..!’

ডন আরও লিখেছে, ‘গেম চেঞ্জার কিছু মহিমান্বিত মুহুর্তের উন্মোচন করেছে এবং করাচি ক্রিকেটের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেছে। কিন্তু এটি জাতীয় ক্রিকেটকে পরাজিত করে অভ্যন্তরীণ যুদ্ধকেও উস্কে দেয়।’

পাকিস্তানের হয়ে খেলেছেন ২৭টি টেস্ট, ৩৯৮টি ওডিআই ও ৯৯টি টি-টোয়েন্টি। আফ্রিদি ব্যাট হাতে ১১ হাজার ১৯৬ রানের পাশাপাশি নিয়েছেন ৫৪১টি আন্তর্জাতিক উইকেট। ঝুলিতে রয়েছে ১১টি শতক ও ৫২টি অর্ধশতক। তিন ফরম্যাটে ছক্কা রয়েছে ৪৭৬টি। গৌরব অর্জন করেন পাকিস্তান জাতীয় ক্রিকেট দলের নেতৃত্ব দেয়ার।

২০ বছরের আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারসহ ব্যক্তিগত ৩৯ বছর জীবনের অনেক জানা-অজানা ঘটনার সাক্ষী এই বই।