২৫ মে ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বিএনপি আগামী সব নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবে : ইসি

বিএনপি আগামী সব নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবে  :  ইসি

অনলাইন রিপোর্টার ॥ বিএনপিসহ নিবন্ধিত ৪১টি রাজনৈতিক দল আগামী সব নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবে বলে আশা করছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। অন্যদিকে বর্তমান সরকারের অধীনে নির্বাচনে অংশগ্রহণের ব্যাপারে এখনও নতুন কোন সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেনি বিএনপি।

ইসি কর্মকর্তারা জানান, সামনে নারী সংরক্ষিত আসনে ভোট। এখানে বিএনপি অংশ নিলে ফখরুলের আসনে উপ-নির্বাচন এবং শেষ ধাপের উপজেলা নির্বাচনসহ আগামী সব নির্বাচন বর্তমান কমিশনের অধীনে আসবে বিএনপি। ইসি সব সময় চায় প্রতিটি রাজনৈতিক দল নির্বাচনে অংশগ্রহণ করুক।

এ বিষয়ে নির্বাচন কমিশনার রফিকুল ইসলাম বলেন, আমরা চাই বিএনপিসহ সব রাজনৈতিক দল নির্বাচনে অংশগ্রহণ করুক। ইসি থেকে তারা নিবন্ধন নিয়েছে নির্বাচনে অংশগ্রণের জন্য। সব নির্বাচনে তারা অংশ নিবে বলে আমাদের আশা।

তবে নির্বাচন কমিশনের এ আশার সমালোচনা করে বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল বলেন, বর্তমান নির্বাচন কমিশন বিশ্বাসযোগ্যতা যেখানে পৌঁছে দিয়েছে, তাতে তারা কি আশা করল না করল সেটার সঙ্গে মিলিয়ে তাদের প্রত্যাশা পুরণের দায় বিএনপির নেই।

তিনি বলেন, নির্বাচন কমিশন যদি আস্থা জাগানোর মত কাজ করে তাহলে দেশ ও জনগণের জন্য ভাল হবে। বগুড়ায় উপনির্বাচন সহ আগামীতে কোন নির্বাচনে বিএনপি অংশগ্রহণ করবে কিনা তা দলীয় ফোরামে বসে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলেও উল্লেখ করেন দলটির এ নেতা।

একাদশ সংসদ নির্বাচনের পর বিএনপি ঢাকা উত্তর সিটির উপনির্বাচন এবং উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের চার ধাপে অংশ নেইনি। এখন সংরক্ষিত আসনে অংশ নিতে যাচ্ছে। সেক্ষেত্রে আগামী নির্বাচনগুলোতে বিএনপি অংশ নেবে কিনা এবং ইসির পক্ষ থেকে কোন উদ্যোগ নেওয়া হবে কি না- এমন প্রশ্নে রফিকুল ইসলাম বলেন, বিএনপি অংশ নেবে কিনা আমি তো বলতে পারব না। তবে আমরা চাই বিএনপিসহ নিবন্ধিত সব দল নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করুক। নির্বাচনে অংশ নিতে আমরা অনুষ্ঠানিক কোন উদ্যোগ না নিলেও বিভিন্ন সময় বক্তব্যর মধ্যেমে নির্বাচনে অংশ নিতে দলগুলোকে উৎসাহ দিয়ে থাকি। যাতে নির্বাচনে সব দল অংশগ্রহণ করে।

এদিকে সংসদ নির্বাচনের প্রার্থীদের ব্যয়ের হিসাব দেয়নি অধিকাংশ নিবন্ধিত রাহজনৈতিক দল। এ বিষয়ে কি ব্যবস্থা নিচ্ছেন এমন প্রশ্নে কমিশনার রফিকুল ইসলাম বলেন, আমরা তাদের চিঠি দিয়ে সতর্ক করেছি। দলগুলো হিসাব না দিলে আইন অনুয়ায়ী কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সূত্র জানায়, ৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচনে ‘আগের রাতে সিল’ মারার মতো অভিযোগ এনে এর ফলাফল বর্জন করে বিএনপি জোট। এমনপি এ নির্বাচনে বিজয়ী এমপিরা সংসদে যাবে না এবং এ সরকারের অধীনে আর কোন নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবে না বলেও ঘোষণা দেয় বিএনপি ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। এরই ধারাবাহিকতায় পরবর্তীতে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন ও চার ধাপরে উপজেলা নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেনি বিএনপি জোট।

তবে আগের সিদ্ধান্ত বদলিয়ে সম্প্রতি বিএনপির জোটের এমপিরা শপথ নিয়ে সংসদে যোগ দেওয়ায় রাজনীতিতে নতুন মোড় নিয়েছে। তাছাড়া দলীয় কৌশলের কথা বলে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম শপথ না নেওয়ায় শূন্য ঘোষিত বগুড়া-৬ আসনে উপ-নির্বাচনের তফসিল দিয়েছে নির্বাচন কমিশন। এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে ২৪ জুন। এজন্য চলতি মাসের ২৩ তারিখের মধ্যে প্রার্থীদের মনোনয়ন জমা দিতে হবে।

এর আগে সংসদে বিএনপির জন্য সংরক্ষিত একটি নারী আসনের জন্য ১৬ জুন ভোট গ্রহণের তফসিল ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন। এ তফসিল অনুযায়ী ২০ মে’র মধ্যে মনোনয়নপত্র জমা দিতে হবে।

সূত্র মতে, বিএনপির এমপিরা সংসদে যোগ দেওয়ায় সংরক্ষিত মহিলা আসনের নির্বাচনেও তাদের অংশগ্রহণের সম্ভাবনা রয়েছে। সামনে ফখরুলের আসনে উপ-নির্বাচন এবং পরবর্তীতে উপজেলা পরিষদের শেষ ধাপের নির্বাচন ও সারাদেশে পৌরসভা নির্বাচন রয়েছে। এসব নির্বাচনে বিএনপিসহ রিরোধী দলগুলো অংশ নেবে কিনা সেদিকে নজর ইসির।

জানা যায়, ২০১৪ সালের সাধারণ নির্বাচন বয়কট করার পরপরই উপজেলা নির্বাচন অংশ নিয়েছিল বিএনপি। তখন তারা কিন্তু ‘খালি মাঠে গোল করতে দেওয়া যাবে না’ বলে নির্বাচনে অংশ নিয়েছিল। ৪৬০ উপজেলায় ছয় ধাপের নির্বাচনে ১০০টির বেশি উপজেলায় বিএনপি এবং ৩০টির বেশি উপজেলায় জামায়াতের প্রার্থীরা জয়ী হয়েছিলেন। এর পরে একাদশ সংসদ নির্বাচনের আগ পর্যন্ত সব নির্বাচনে অংশ নিয়েছিল বিএনপি।

তবে বগুড়ায় উপ-নির্বাচনে বিএনপি অংশ নেবে কিনা তা এখনও ঠিক করতে পারেনি দলটি। বরং শপথ না নিয়ে ছেড়ে দেওয়া আসনটিতে নতুন করে উপ-নির্বাচনে অংশগ্রহণের যৌক্তিকতা সম্পর্কে বিএনপি নেতাদের মধ্যে মতবিরোধ দেখা দিয়েছে বলে জানা গেছে। তাছাড়া এ বিষয়ে বিএনপির দুই জোট ২০ দল ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্টেরও মতামত নেওয়া লাগতে পারে।

আজ ২০ দলীয় জোটের বৈঠকে এ বিষয়ে আলোচনা হতে পারে। পরবর্তীতে শিগগিরই জাতীয় ঐক্যফ্রন্টেরও বৈঠক অনুষ্ঠিত হতে পারে বলে সংশ্লিষ্টরা আভাস দিয়েছেন।

বগুড়ায় উপ-নির্বাচনে অংশ নেওয়া নিয়ে সিদ্ধান্তহীনতা থাকলেও সংরক্ষিত নারী আসনে বিএনপি প্রার্থী দিতে পারে বলে আভাস পাওয়া গেছে। এরইমধ্যে এ আসনে প্রার্থী হতে দলীয় ফোরামে সম্ভাব্য অনেকের নাম আলোচিত হচ্ছে।

উপ-নির্বাচন বা সংরক্ষিত নারী আসনের বিষয়ে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবেন বলে সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন।