১৪ অক্টোবর ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

নবজাতকের স্বাস্থ্য পরিচর্যা

১। নবজাতকের জন্মের পর বার বার বুকের দুধ টানান। যত স্তন চুষবে তত দুধ নামবে, প্রথম ৩ দিন কষ কষ দুধ- শাল দুধ, অল্পতে যথেষ্ট।

২। সে দিনে ১৮ ঘণ্টা পর্যন্ত ঘুমাতে পারে, দুশ্চিন্তার কারণ নেই।

৩। ৩ দিনের দিকে হলুদ হয়ে যেতে পারে ৮০% বাচ্চারই এমনটি হয়। বেশি হলে জন্ডিজের পরীক্ষা করতে হবে কিন্তু রোদে দেয়া যাবে না, রোদে ক্ষতিকারক আলট্রাভায়োলেটরে রেড রে থাকে যা কিনা আপনার বাচ্চাকে ক্ষতি করতে পারে। করতে পারে হিট স্ট্রোক।

৪। নাভি শুকনো ও পরিষ্কার রাখুন। কোন কিছু লাগানো যাবে না। নাভি শুকাতে ২/৩ সপ্তাহ সময় লাগে।

৫। বাচ্চার গায়ে কাপড় চোপড়ে কোন ডেটল ও স্যাভলন দিবেন না, ত্বকে র‌্যাশ বের হতে পারে। লাল লাল র‌্যাশ এমনি বের হয়। এমনিতেই সেরে যায় কোন চিকিৎসা লাগে না।

৬। বাইরের দুধ ধরাবেন না, যা কিনা আপনার বাচ্চাকে সমূহ ক্ষতি করতে পারে। ৭। নবজাতকের জন্য সবচেয়ে ২৫/২৬ ডিগ্রী সেন্ট্রিগ্রেড ঘরের তাপমাত্রা শ্রেয়। ৮। কম মানুষ আপনার বাচ্চাকে ধরবে। ধরার আগে হাত ধুয়ে নিন সাবান দিয়ে। আঁতুরঘর মানতে হবে প্রথম ৪০ দিন।

৯। চোখ ও নাকের সংযোগ স্থলের কোণে ১০ বার করে দৈনিক ম্যাসেজ করুন। তাহলে বাচ্চার চোখ দিয়ে পানি পড়া দূর হবে।

১০। সাধারণত দ্বিতীয় সপ্তাহ থেকে আমরা গোসল দিতে বলি।