১৮ নভেম্বর ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ভি-নেক্সটে যুক্ত হয়েছে ডিএসই ও শেনঝেন

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ শেনঝেন ও ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) ইস্যুয়ার ও আন্তর্জাতিক বিনিয়োগকারীদের মধ্যে সংযোগ স্থাপনের জন্য ভি-নেক্সট অনলাইন প্লাটফরম বাংলাদেশে যুক্ত করেছে। গতবছর শেনঝেন ও সাংহাই স্টক এক্সচেঞ্জের সম্মিলিত কনসোর্টিয়ামের সঙ্গে ডিএসইর কৌশলগত অংশীদারিত্ব চুক্তির আওতায় এ পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে বলে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানান ডিএসই।

ডিএসই জানায়, গত ৬ মে ভি-নেক্সটে বাংলাদেশ উইন্ডো উদ্বোধনের মধ্য দিয়ে বিদেশী বিনিয়োগের খোঁজে থাকা বাংলাদেশী কোম্পানি ও প্রকল্পগুলোর সঙ্গে চীনসহ অন্যান্য দেশের বিনিয়োগকারীদের এ সেতুবন্ধ রচনা করেছে শেনঝেন ও ডিএসই।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানায়, বিশেষায়িত এ প্লাটফরমে বিদেশী বিনিয়োগ গ্রহণে আগ্রহী বাংলাদেশী তালিকাভুক্ত বা তালিকা-বহির্ভূত কোম্পানি কিংবা প্রকল্পগুলো তাদের সব তথ্য-উপাত্ত উপস্থাপন করবে। অনলাইন প্লাটফরমটিতে রোডশো সম্পন্ন করা যাবে। টেক্সট বা মাল্টিমিডিয়া ফরম্যাটে আর্থিক তথ্য-উপাত্তের বাইরে বিভিন্ন কোয়ালিটেটিভ বিষয়ও সেখানে উপস্থাপন করা যাবে। বিনিয়োগযোগ্য কোম্পানি বা প্রকল্পের অনুসন্ধানে এখন পর্যন্ত বিশ্বের ৩৮টি দেশ অথবা অঞ্চলের বিনিয়োগকারীরা ভি-নেক্সট প্লাটফরমে নিবন্ধিত হয়েছেন।

কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার প্লাটফরমটি দুই পক্ষের চাহিদার খুঁটিনাটি পর্যালোচনা করে ম্যাচিংয়ের ভিত্তিতে ইস্যুয়ার ও বিনিয়োগকারীদের মধ্যে যোগাযোগ ঘটিয়ে দেয়। ম্যাচিংয়ের পর এ্যালার্ট পাওয়া ছাড়াও প্লাটফরম থেকে এনক্রিপটেড ডাটা আদান-প্রদান করতে পারেন এর গ্রাহকরা। রয়েছে কাস্টমাইজড ইনফরমেশন সার্চিংয়ের সুবিধাও।

জানা যায়, চীনে ১২ হাজারের বেশি যোগ্য প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারী এ প্লাটফরমের সেবা নিচ্ছেন। প্রকল্প ও পুঁজির সম্মিলন ঘটাতে ভি-নেক্সটের সাকসেস রেট প্রায় ২০ শতাংশ।

ডিএসই কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, শেনঝেনে বাংলাদেশ উইন্ডো উদ্বোধনের দিন তথ্যপ্রযুক্তি ও আধুনিক ম্যানুফ্যাকচারিং ইন্ডাস্ট্রির ২০টি বাংলাদেশী কোম্পানি অনসাইট মিটিং ও ভি-নেক্সট প্লাটফরমে লাইভ ব্রডকাস্টের মধ্য দিয়ে তাদের রোডশো সম্পন্ন করেছে।

ওইদিন একই স্থানে শেনঝেন ও ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ এবং বাংলাদেশ সরকারের আইসিটি বিভাগ যৌথভাবে আয়োজন করে দ্বিতীয় চায়না বাংলাদেশ ক্যাপিটাল মার্কেট কো-অপারেশন সেমিনার।

তথ্যপ্রযুক্তি, ডিজিটাল অর্থনীতি, দুই দেশের পুঁজিবাজারের মধ্যে সহযোগিতা, বাংলাদেশে বিনিয়োগের সুযোগ ইত্যাদি বিষয় নিয়ে সেখানে আলোচনা হয়। দুই দেশের দেড় শতাধিক তালিকাভুক্ত কোম্পানির প্রতিনিধি, ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান, উদ্যোক্তা, বিনিয়োগকারী সেমিনারে অংশ নেন।