২৬ মে ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

কেশবপুরের জমি নিয়ে বিরোধে বসতবাড়ি ভাংচুর ও লুটপাটের অভিযোগ

কেশবপুরের জমি নিয়ে বিরোধে বসতবাড়ি ভাংচুর ও লুটপাটের অভিযোগ

নিজস্ব সংবাদদাতা, কেশবপুর ॥ কেশবপুরের মোমিনপুর গ্রামে জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষরা আমির হোসেনের বসতবাড়ি ভাংচুর, লুটপাটসহ তাকে মারপিট করে আহত করেছে। এ ঘটনায় কেশবপুর থানায় লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

উপজেলার মোমিনপুর পীরবক্স মোড়লের ছেলে আমির হোসেনের সাথে নওয়াব আলী মোড়লের ছেলে রেজাউল মোড়লের জমি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। তার জের ধরে বুধবার রিজাউল মোড়লের নেতৃত্বে তার সহযোগী আব্দুল গফফার, আব্দুল গফুর, নওয়াব আলী, তানিয়া খাতুন ও রাবেয়া খাতুন আমির হোসেনের বসত ঘর ভাংচুর করে। এ সময় তারা ঘরের মধ্যে থাকা লক্ষাধিক টাকার মালামাল লুটপাট করে নিয়ে গেছে বলে কেশবপুর থানায় অভিযোগ করা হয়েছে।

বাধা দিতে গেলে তারা আমির হোসেনকে মারপিট করে আহত করে। আহত আমির হোসেনকে কেশবপুর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় আমির হোসেন বাদি হয়ে কেশবপুর থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন।

ঘর ভাংচুর, লুটপাট ও মারপিটের অভিযোগ অস্বীকার করে প্রতিপক্ষ রেজাউল মোড়ল বলেছেন, পৌতৃক সুত্রে আমরা ওই জমিটা পেয়েছি। আমির হোসেন আমাদের জমি দখল করে দীর্ঘদিন ধরে ভোগদখল করে আসছিল। ওই জমি নিয়ে আমির হোসেনের সাথে আমাদের বিরোধ দীর্ঘদীনের। স্থানীয় মেম্বর, চেয়ারম্যান ও থানা পুলিশের মাধ্যমে একাধিকবার শালিস করা হলেও সুষ্ঠু সমাধান হয়নি। মঙ্গলবার পারিবারিকভাবে এক মিটিংয়ের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বুধবার আমরা ওই ঘর সরিয়ে নিতে বললে আমির হোসেন সরাতে রাজি না হলে আমরা তার একটি গোয়াল ঘরের চাল ও বেড়া খুলে দিয়েছি। সেখানে কোন মালপত্র ছিলনা ।

কেশবপুর থানার উপপরিদর্শক ফরিদউদ্দীন আহমেদ জানান, ঘরবাড়ি ভাংচুরের খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। জমি নিয়ে বিরোধের সুত্র ধরে এ ঘটনা ঘটেছে। এ বিষয়ে একটি অভিযোগ পেয়েছি, তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।