২১ মে ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

চেন্নাইনের বিরুদ্ধে নাটকীয় জয় ঢাকা আবাহনীর

  • এএফসি কাপ, বঙ্গবন্ধুতে প্রতিশোধের জয়ে দ্বিতীয় পর্বের সম্ভাবনা টিকে রইলো বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়নদের

জাহিদুল আলম জয় ॥ অনেকবার এএফসি কাপে অংশ নিয়েও গ্রুপপর্ব পেরোতে পারেনি বাংলাদেশের চ্যাম্পিয়ন ঢাকা আবাহনী। তবে এবার প্রথমবারের মতো দ্বিতীয়পর্বে খেলার উজ্জ্বল সম্ভাবনা আছে ক্লাবটির। বাছাইপর্বে ‘ই’ গ্রুপে ভালমতোই লড়াই করে চলেছে মারিও লেমোসের দল।

বুধবার রাতে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে ফিরতি পর্বের ম্যাচে ভারতের ক্লাব চেন্নাইন এফসিকে ৩-২ গোলে হারিয়েছে স্বাগতিক ঢাকা আবাহনী। বিজয়ী দলের হয়ে গোল করেন দুই বিদেশী বেলফোর্ট ও মাসিহ সাইগানি এবং মামুনুল ইসলাম। উত্তেজনাপূর্ণ, উপভোগ্য ও নাটকীয় ম্যাচ জিতে যুগ্মভাবে গ্রুপের শীর্ষে উঠে এসেছে আকাশী-হলুদ জার্সিধারীরা। বর্তমানে চারটি করে ম্যাচ শেষে ৭ পয়েন্ট করে নিয়ে শীর্ষে আবাহনী ও চেন্নাইন। তবে গোলগড়ে এগিয়ে থেকে একে আছে ভারতের চেন্নাইন ও দুইয়ে আবাহনী। আগামী জুনে গ্রুপের বাকি দুই ম্যাচে জিততে পারলে প্রথমবারের মতো এএফসি কাপের নকআউট রাউন্ডে খেলার সুযোগ হবে ঢাকা আবাহনীর। চোট জর্জরিত আবাহনীর রেসে টিকে থাকতে হলে ম্যাচটিতে জয়ের বিকল্প ছিল না। কেননা আগের রাউন্ডে আহমেদাবাদে চেন্নাইনের কাছে অপ্রত্যাশিতভাবে ১-০ গোলে হেরেছিল বাংলাদেশের লীগ চ্যাম্পিয়নরা। যে কারণে অনেকটাই পিছিয়ে পড়েছিল তারা। সম্ভাবনা জিইয়ে রাখতে হলে জয়ের বিকল্প ছিল না এই ম্যাচে। নাটকীয়তায় ভরপুর ম্যাচের শেষ দিকে (৮৮ মিনিট) মামুনুল ইসলাম গোল করে আবাহনীকে মহামূল্যবান জয় উপহার দেন। তবে ম্যাচের শুরুটা কিন্তু ভয়ই ধরিয়ে দিয়েছিল স্বাগতিক ক্লাবের। ষষ্ঠ মিনিটেই পিছিয়ে পড়ে তারা। এই গোলে এগিয়ে থেকেই বিরতিতে যায় অতিথিরা। কিন্তু বিরতির পর দুই মিনিটের ধামাকায় ২-১ গোলে এগিয়ে যায় আবাহনী। ৬৪ ও ৬৬ মিনিটে দুই গোল আদায় করে নেয় বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়নরা। তবে ৭৪ মিনিটে গোল করে ম্যাচে ২-২ সমতায় ফেরায় অতিথি চেন্নাইন। এই ফলাফলেই ম্যাচ শেষ হতে যাচ্ছিল। কিন্তু শেষের বাঁশি বাজার দুই মিনিট আগে মামুনুল গোল করে আবাহনীকে উচ্ছ্বাসে ভাসান। ম্যাচের ষষ্ঠ মিনিটে গোলরক্ষক শহিদুল আলম সোহেলের ব্যর্থতায় গোল হজম করে বসে আবাহনী। অতিথিদের হয়ে গোল করেন ভিনিথ। হাইতির ফরোয়ার্ড বেলফোর্টের গোলে ম্যাচে ফেরে আকাশী-হলুদ শিবির। এরপর মাসির দুর্দান্ত ফ্রিকিক অতিথি দলটির জালে জড়ালে প্রথমবারের মতো এগিয়ে যায় আবাহনী। গোলরক্ষক ও রক্ষণভাগের ভুল বোঝাবুঝিতে সমতায় ফিরে আসে চেন্নাইন। এবার অতিথিদের গোলদাতা ভানমালসামা। তবে ম্যাচ শেষ হওয়ার আগ মুহূর্তের নায়ক হন বাংলাদেশ জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক মামুনুল ইসলাম। তার দুর্দান্ত গোলেই জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে আবাহনী। নেপালের চ্যাম্পিয়ন মানাং মার্সিয়াংদি ক্লাবকে হারিয়ে এএফসি কাপ শুরু করলেও সে ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে পারেনি আবাহনী। পরের ম্যাচেই ঘরের মাঠে ড্র করে ভারতের ক্লাব মিনারভা পাঞ্জাবের সঙ্গে। ভারতের আরেক ক্লাব চেন্নাইন এফসির সঙ্গে পরের ম্যাচ ড্র করলেও যুগ্মভাবে টেবিলের শীর্ষে থাকতে পারতো বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগের ৬ বারের চ্যাম্পিয়নরা। কিন্তু আহমেদাবাদ থেকে আবাহনীকে ফিরে আসতে হয় শূন্য হাতে। আত্মঘাতী গোলে হেরে যায় বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়নরা। এবার সেই হারের প্রতিশোধ নিয়ে শীর্ষে উঠে এসেছে আবাহনী।