১৭ মে ২০১৯

তারুণ্যের ঈদ মানেই পাঞ্জাবি

চলছে পবিত্র মাহে রমজান। কয়েক দিন পরেই ঈদ-উল-ফিতর। মুসলমানদের মহা আনন্দের দিন। আর এ আনন্দ পূর্ণতা পায় নতুন নতুন পোশাকের মাধ্যমে। তাই রমজানের শুরুতেই দেশের বিভিন্ন মার্কেটে ক্রেতাদের আনাগোনা শুরু হয়। ক্রেতাদের রুচি ও চাহিদার প্রতি লক্ষ রেখে দেশের প্রতিটি ফ্যাশন হাউস, বুটিক হাউস এবং দোকানে শোভা পায় দেশীয় ফেব্রিক্স-এর নতুন ডিজাইনের পোশাক। ঈদ পোশাকের মধ্য অন্যতম হলো পাঞ্জাবি। তরুণদের ঈদের পোশাকের তালিকায় প্রথমেই স্থান পায় পাঞ্জাবি। ঈদের দিনের শুরু হয় এ পোশাকের মাধ্যমে। সকালে পাঞ্জাবি পরে সকলে একসঙ্গে ঈদের নামাজ পরতে যান। তাই প্রত্যেক তরুণেরা চান পাঞ্জাবী যেন হয় একটু ব্যতিক্রমী ও ভিন্ন ডিজাইনের। ক্রেতাদের পছন্দের প্রতি লক্ষ রেখে ফ্যাশন হাউসগুলো এবার নিয়ে এসেছে গুণগত মানের, বাহারি ডিজাইনের পাঞ্জাবি। এসব পাঞ্জাবি তৈরিতে ব্যবহার করা হয়েছে খাদি, কটন, এন্ডি, এন্ডিসিল্ক, জয়সিল্ক, দুপিয়ান, নিট ইত্যাদি ফেব্রিক্স। ঈদে পাঞ্জাবির জন্য ইজি, সুইসুতা, অর্ণব, আড়ং, লংলা, লা-রিভা, ক্যাটস আই, ক্রে-ক্রাফট, রঙ ক্রেতাদের অন্যতম পছন্দের ফ্যাশন হাউস।

.

ইনফিনিটিতে ঈদের পাঞ্জাবি

কোন ধরনের পাঞ্জাবি এবার বেশি কিনছে মানুষ। খাটো নাকি লম্বা, ঢিলে নাকি আঁটসাঁট? এসব প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে ঘুরে আসতে পারেন ইনফিনিটির আউটলেট থেকে। আপনার ঈদ আনন্দ আরও বাড়িয়ে দিতে লুবনান প্রস্তুত।

নতুন পাঞ্জাবি ছাড়া ঈদের আনন্দ খানিকটা অপূর্ণ থেকে যায়। ঈদকে সামনে রেখে এবারও নানা ধরনের পাঞ্জাবি নিয়ে এসেছে ইনফিনিটি ফ্যাশন হাউস। কাটছাঁট, রং আর আছে বৈচিত্র্যের ছোঁয়া। ঈদের তরুণদের কাছে রঙিন আর স্টাইলিস্ট পাঞ্জাবিই বেশি পছন্দের। লম্বা ও খাটো দুই ধরনেরই পাঞ্জাবি আছে ইনফিনিটিতে। পাঞ্জাবিতে ফুলেল আবহ মুঘল স্থাপত্যের অলঙ্করণে থাকা ফুলসহ লতাপাতার ব্যবহার আছে পাঞ্জাবির বাটনপ্লেট, কলার ও হাতার ওপর-নিচে। আছে নানা রকম ত্রিমাত্রিক (থ্রিডি) ছাপার কাজও।

পাঞ্জাবিতে নানা রকম হাতের কাজ, এ্যাম্ব্রয়ডারি, সুতার নকশা, বাটিক, কাতান কাপড়ের নকশা, সুতি কাপড় বেশি ব্যবহার করা হয়েছে। কিছু পাঞ্জাবিতে সুতির সঙ্গে আছে সিল্কের মিশেল। ভিসকস, খাদি, বিদেশি কাপড় দিয়ে তৈরি হয়েছে ঈদের পাঞ্জাবি।

ইনফিনিটির প্রধান ডিজাইনার ও পরিচালক নাইমুল হক খান বলেন- ‘নানা ধরনের সংগ্রহ আছে আমাদের। এবার গরমের বিষয়টি মাথায় রেখেই আমরা নতুন এবং অভিনব নানা সংগ্রহ এনেছি।

তরুণ ক্রেতা খুঁজছেন সুতির মধ্যে ঝকমকে বা গর্জিয়াস পাঞ্জাবি। তবে আমাদের ঝকমকে পাঞ্জাবি প্রধানত হয় সিনথেটিকের মধ্যে। প্রতি বছরই আমাদের চেষ্টা থাকে ভিন্ন কিছু দেয়ার। একেক ক্রেতার রুচি একেক রকম। তাই সেভাবেই পাঞ্জাবির ডিজাইন আছে। এগুলো খুব এক্সক্লুসিভ। আমাদের সবচেয়ে বড় বিশেষত্ব আমরা গুণগত মানের সঙ্গে আপস করি না।

.

ইজি

দেশের অন্যতম ফ্যাশন হাউস ঈদ উপলক্ষে ‘ইজি’ বরাবরই পাঞ্জাবির ফ্যাশনে যোগ করে নতুন মাত্রা। আবারো ক্রেতাদের চাহিদা অনুযায়ী পাঞ্জাবি তৈরি করেছে ফ্যাশন হাউস ইজি। ইজি’র সব ধরনের পোশাকই ক্রেতাদের সাধ্যের মধ্যে। ডিজাইন ও ফেব্রিক্স ভেদে পাঞ্জাবির দাম পড়বে ১৪৫০ থেকে ২৫০০ টাকা। ফ্যাশন হাউসটির প্রায় সব পাঞ্জাবিই তরুণের কথা মাথায় রেখে একটু ফ্যাশনেবল করে করা হয়। ইজি’র নতুন ডিজাইনের কালারফুল সব শর্ট ও লং পাঞ্জাবি পাওয়া যাবে যমুনা ফিউচার পার্ক, বসুন্ধরা সিটি, মিরপুর, উত্তরা, এলিফ্যান্ট রোড, আজিজ সুপার মার্কেট, শাহবাগ, শান্তিনগর, যাত্রাবাড়ী, সিলেট, চট্টগ্রাম, নরসিংদীসহ সারাদেশে ইজির ১৯টি শোরুমে।

.

সুইসুতা

ঢাকার আজিজ সুপার মার্কেটে অবস্থিত দেশের অন্যতম জনপ্রিয় ফ্যাশন হাউস ‘সুইসুতা’ ঈদ উপলক্ষে ক্রেতাদের জন্য নিয়ে এসেছে নতুন ডিজাইনের ঈদ পোশাক। ঈদে নতুন নতুন ডিজাইন ও স্টাইলের কিছু পাঞ্জাবি নিয়ে এসেছে তরুণ ও ক্রেতাদের পছন্দের ফ্যাশন হাউসটি। সুইসুতা’র বেসিক পাঞ্জাবি মূল্য ধরা হয়েছে ৯৫০ থেকে ১০৫০ টাকা, ব্লকের পাঞ্জাবি ১১৫০ টাকা, এ্যাম্ব্রডারি পাঞ্জাবি ১৫৫০ থেকে ১৬৫০ টাকা ও মোটিভের পাঞ্জাবির মূল্য ১২৫০ থেকে ১৩৫০ টাকা। এছাড়াও রয়েছে ছোট্ট শিশুদের পাঞ্জাবি। যা ক্রয় করতে প্রয়োজন হবে মাত্র ৬৫০ থেকে ৮৫০ টাকা। তারুণ্যের প্রতিটি রং এবং দেশীয় ফেব্রিক্স ব্যবহার করে সুইসুতা’র প্রতিটি পাঞ্জাবির ডিজাইন করা হয়। সুইসুতা’র প্রতিটি পাঞ্জাবি পাওয়া যাবে ঢাকার আজিজ সুপার মার্কেট, যাত্রাবাড়ী ও নতুল্লাহবাদ বরিশালের সুইসুতা’র শো-রুমে।

.

ডিমান্ড

ক্রেতাদের অন্যতম পছন্দের ফ্যাশন হাউস ‘ডিমান্ড’। প্রত্যেক শ্রেণীর ক্রেতার চাহিদা ও রুচির প্রতি লক্ষ রেখে ফ্যাশন হাউসটি পাঞ্জাবি তৈরি করে। প্রতিবারের মতো এ ঈদেও ডিমান্ড বিভিন্ন ডিজাইনের আকর্ষণীয় পাঞ্জাবি নিয়ে এসেছে। বাহারী ফেব্রিক্স ব্যবহার করে সহনীয় মাত্রায় রাখা হয়েছে পোশাকের মূল্য।

.

কে-ক্রাফট

প্রতিবারের মতো এবারও মোটিফে নতুনত্ব নিয়ে হাজির হয়েছে ফ্যাশন হাউস কে-ক্রাফট। টেক্সটাইল, তাগানকশিকাঁথা, বাইজেনটাইন, ক্রসস্টিচ, ইসলামিক আর্ট, প্রাচীন আফ্রিকা, রোমানিয়ান, আঁকা বাঁকা প্রভৃতি মোটিফ থাকছে। কটন, এন্ডি, এন্ডিসিল্ক, জয়সিল্ক, দুপিয়ান, নিট, জ্যাকার্ড, ন্যাচারাল, ইয়ার্নডায়েড এন্ডি, তাঁতেবোনা সুতি কাপড়, টুটোন, আদ্দিভয়েল ব্যবহৃত হয়েছে। এ ফ্যাশন হাউসের সকল পাঞ্জাবি পাওয়া যাবে দেশের প্রতিটি কে-ক্রাফট শো-রুমে।

ছবি কৃতজ্ঞতায় : ইনফিনিটি

মডেল : নোবেল ও নাহিদ