২৭ জুন ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বিনিয়োগসীমা সংশোধনে শেয়ারবাজারে সূচক বাড়ল ১০৫ পয়েন্ট

বিনিয়োগসীমা সংশোধনে শেয়ারবাজারে সূচক বাড়ল ১০৫ পয়েন্ট

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ ব্যাংকের বিনিয়োগসীমা থেকে অ-তালিকাভুক্ত সিকিউরিটিজ থেকে বাদ দিয়ে প্রজ্ঞাপন জারির পর রবিবার বড় উত্থান হয়েছে শেয়ারবাজারে। এদিন ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান সূচক ১০৫ পয়েন্ট এবং চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক তিন শতাধিক বেড়েছে।

গত বৃহস্পতিবার শেয়ারবাজারের চলমান তারল্য সংকট কাটিয়ে তুলতে ব্যাংকের বিনিয়োগসীমা থেকে অ-তালিকাভুক্ত (ইক্যুইটি শেয়ার, নন-কনভার্টঅ্যাবল প্রেফারেন্স শেয়ার, নন-কনভার্টঅ্যাবল বন্ড, ডিবেঞ্চার, ওপেন-ইন্ড মিউচুয়াল ফান্ড) সিকিউরিটিজকে বাদ দিয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করে বাংলাদেশ ব্যাংক।

শেয়ারবাজারে ব্যাংকের (একক ও সমন্বিত) বিনিয়োগ হিসাবের ক্ষেত্রে অ-তালিকাভুক্ত ইক্যুইটি শেয়ার, নন-কনভার্টঅ্যাবল প্রেফারেন্স শেয়ার, নন-কনভার্টঅ্যাবল বন্ড, ডিবেঞ্চার, ওপেন-ইন্ড মিউচুয়াল ফান্ডকে অন্তভূর্ক্ত করা হবে না। যাতে শেয়ারবাজারে ব্যাংক থেকে বিনিয়োগের পরিমাণ বাড়ানো যাবে।

এর আগে গত ৯ মে বাংলাদেশ ব্যাংকে অনুষ্ঠিত এক সভায় গবর্নর ফজলে কবির ব্যাংকের বিনিয়োগসীমা অ-তালিকাভুক্ত সিকিউরিটিজ বাদ দেওয়ার আশ্বাস দিয়েছিলেন।

এদিকে প্রজ্ঞাপন জারির খবরের পরদিন সকাল থেকেই শেয়ারবাজারে সূচকের বড় উত্থান দেখা দেয়। দিনশেষে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ১০৫ পয়েন্ট বেড়ে দাড়িয়েছে ৫ হাজার ৩৩৫ পয়েন্টে। অপর সূচকগুলোর মধ্যে শরিয়াহ সূচক ১৮ ও ডিএসই-৩০ সূচক ৩২ পয়েন্ট বেগে দাড়িয়েছে যথাক্রমে ১ হাজার ২১৫ ও ১ হাজার ৮৫০ পয়েন্টে।

জানা গেছে, ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৪৪৩ কোটি ৫৫ লাখ টাকা। যা আগের দিন থেকে ১৫৩ কোটি টাকা বেশি। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ২৯০ কোটি টাকা।

ডিএসইতে লেনদেন হওয়া ৩৪৪টি কোম্পানির মধ্যে ২৭১টির বা ৭৯ শতাংশ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বেড়েছে। অন্যদিকে দাম কমেছে ৪৫টি বা ১৩ শতাংশ কোম্পানির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৮টি বা ৮ শতাংশ কোম্পানির।

টাকার অংকে ডিএসইতে সবচেয়ে বেশি লেনদেন হয়েছে ফরচুন সুজের। এদিন কোম্পানির ১৯ কোটি ৫৩ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। লেনদেনে দ্বিতীয় স্থানে থাকা আইএফআইসি ব্যাংকের ১৪ কোটি ৫৩ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে এবং ১২ কোটি ১১ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনের মাধ্যমে তৃতীয় স্থানে উঠে আসে এক্সিম ব্যাংক। সার্বিক লেনদেনে উঠে আসা অন্য কোম্পানিগুলোর মধ্যে রয়েছে- এসকে ট্রিম, উত্তরা ব্যাংক, ব্যাংক এশিয়া, পাওয়ার গ্রীড, প্রিমিয়ার ব্যাংক, সিটি ব্যাংক এবং ইন্দো-বাংলা ফার্মাসিউটিক্যালস।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই এদিন ৩০৫ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৬ হাজার ৩০৭ পয়েন্টে। এদিন সিএসইতে হাত বদল হওয়া ২৩৫টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে শেয়ার দর বেড়েছে ১৭৯টির, কমেছে ৩৪টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২২টির দর। আজ ৩২ কোটি ৩৪ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে।